ঢাকা ০১:৫১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

দিনাজপুরের বিরলে কৃষক কৃষণীদের দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত

মো: খাদেমুল ইসলাম, দিনাজপুর প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ০৪:০৮:০৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪
  • / ৪৪৪ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

দিনাজপুরের বিরল উপজেলায় ২০২৩-২৪ অর্থবছরে দিনাজপুর অঞ্চলে কৃষি ও টেকসই উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ ১৬ই এপ্রিল বিরল উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ মোস্তফা হাসান ইমামের সভাপতিত্বে কনফারেন্স রুমে দিনব্যাপী এই প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় প্রধান প্রশিক্ষক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পরিচালক মো: হামিদুর রহমান।এছাড়াও অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রকল্প পরিচালক আবু রেজা আসাদুজ্জামান, অতিরিক্ত উপ-পরিচালক প্লান্ট প্রটেকশন মোঃ আবু জাফর সাদেক আলী।

উল্লেখ্য যে, জাতিসংঘ প্রণীত টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্য এসডিজিতে ১৭ টি অভীষ্টের মধ্যে কৃষি সম্পর্কিত অন্যতম অভীষ্ট লক্ষ্য হলো : ক্ষুধার অবসান, খাদ্য নিরাপত্তা ও উন্নত পুষ্টিমান অর্জন এবং টেকসই কৃষি সম্প্রসারণ। ২০৩০ সালের মধ্যে ফসলের উৎপাদন দ্বিগুণ করতে হবে। বর্তমান সরকার কৃষি উন্নয়নের মাধ্যমে পুষ্টি উন্নয়ন, কর্মসংস্থান ও দারিদ্র্য বিমোচনের সাথে খাদ্য নিরাপত্তা বিধানের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। বাংলাদেশর অর্থনীতি এবং কর্মসংস্থানে কৃষির ভূমিকা অনেক। উৎপাদিত কৃষি পণ্য সঠিকভাবে রপ্তানি করতে পারলে আরো সক্ষমতা বাড়বে। তখন মানুষের নিরাপদ ও পুষ্টি মানসম্পন্ন খাদ্য গ্রহণের হারও বাড়বে। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত সোনার বাংলা গড়তে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ২০৪১ সালের মধ্যে সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বিনির্মাণের প্রত্যয়ে বর্তমান সরকার নিরলস ও নিবেদিতভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

দিনব্যাপী এই প্রশিক্ষণে ২০ জন কৃষাক ৪০ জন কৃষাণী অংশ নেয়।

 

বাখ//আর

নিউজটি শেয়ার করুন

দিনাজপুরের বিরলে কৃষক কৃষণীদের দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত

আপডেট সময় : ০৪:০৮:০৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪

দিনাজপুরের বিরল উপজেলায় ২০২৩-২৪ অর্থবছরে দিনাজপুর অঞ্চলে কৃষি ও টেকসই উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ ১৬ই এপ্রিল বিরল উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ মোস্তফা হাসান ইমামের সভাপতিত্বে কনফারেন্স রুমে দিনব্যাপী এই প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় প্রধান প্রশিক্ষক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পরিচালক মো: হামিদুর রহমান।এছাড়াও অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রকল্প পরিচালক আবু রেজা আসাদুজ্জামান, অতিরিক্ত উপ-পরিচালক প্লান্ট প্রটেকশন মোঃ আবু জাফর সাদেক আলী।

উল্লেখ্য যে, জাতিসংঘ প্রণীত টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্য এসডিজিতে ১৭ টি অভীষ্টের মধ্যে কৃষি সম্পর্কিত অন্যতম অভীষ্ট লক্ষ্য হলো : ক্ষুধার অবসান, খাদ্য নিরাপত্তা ও উন্নত পুষ্টিমান অর্জন এবং টেকসই কৃষি সম্প্রসারণ। ২০৩০ সালের মধ্যে ফসলের উৎপাদন দ্বিগুণ করতে হবে। বর্তমান সরকার কৃষি উন্নয়নের মাধ্যমে পুষ্টি উন্নয়ন, কর্মসংস্থান ও দারিদ্র্য বিমোচনের সাথে খাদ্য নিরাপত্তা বিধানের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। বাংলাদেশর অর্থনীতি এবং কর্মসংস্থানে কৃষির ভূমিকা অনেক। উৎপাদিত কৃষি পণ্য সঠিকভাবে রপ্তানি করতে পারলে আরো সক্ষমতা বাড়বে। তখন মানুষের নিরাপদ ও পুষ্টি মানসম্পন্ন খাদ্য গ্রহণের হারও বাড়বে। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত সোনার বাংলা গড়তে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ২০৪১ সালের মধ্যে সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বিনির্মাণের প্রত্যয়ে বর্তমান সরকার নিরলস ও নিবেদিতভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

দিনব্যাপী এই প্রশিক্ষণে ২০ জন কৃষাক ৪০ জন কৃষাণী অংশ নেয়।

 

বাখ//আর