বুধবার, ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৯:৩৫ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
৬ দিনে ৭৪৫ কোটি ছাড়িয়েছে ‘পাঠান’ পুলের ধারে বসে চুরুট ধরালেন সুস্মিতা দেশে চার হাজার ৬৩৩টি ইটভাটা অবৈধ: সংসদে পরিবেশমন্ত্রী নারী ও শিশুর প্রতি সহিংসতা রোধে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে : মহিলাবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী চার্লসের সেঞ্চুরিতে রেকর্ড গড়ে কুমিল্লার জয় মুক্তিযোদ্ধাদের ত্যাগের বিনিময়ে আমরা স্বাধীন দেশ পেয়েছি : মেয়র আতিক দেশে উচ্চশিক্ষিত বেকার বাড়ছে : রাষ্ট্রপতি আকাশে কেবিন ক্রুকে নারী যাত্রীর থাপ্পড় সাহস থাকলে দেশে আসুন : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পকেটে আহলে হাদিসের দুই কোটি ভোট : সংসদে এমপি রহমতুল্লাহ প্ররোচনায় পড়ে র‌্যাবের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা : সংসদে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কারামুক্ত যুবদল নেতা নয়ন ‘ভারতীয় ছবি রিলিজের পক্ষে সবাই থাকলেও আমি নেই’-রাউজানে অভিনেতা রুবেল ইসলামপুরে দৈনিক গণমুক্তি’র প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত অবসরে গেলেন সকলের প্রিয় ফজলু স্যার

তুমব্রুর ১৫টি গ্রাম প্রায় জনশূন্য

মিয়ানমার থেকে গোলাগুলি ও গোলা ছোড়া অব্যাহত রয়েছে। এতে বান্দবানের ঘুমধুমের তুমব্রু সীমান্তে বসবাসকারীরা এখনো আতংকে আছে। পশ্চিমকুল, ক্যাম্পপাড়া, বাজারপাড়া, কোনারপাড়া, খিজারীঘোনা, ভূমিহীন পাড়াসহ তুমব্রুর অন্তত ১৫ গ্রামে বিরাজ করছে সুনসান নীরবতা। খুব প্রয়োজন না হলে কেউ ঘর থেকে বের হচ্ছেন না।

মঙ্গলবার (২০শে সেপ্টেম্বর) ভোরে মুহুর্মুহু গুলি, থেমে থেমে ছোড়া হচ্ছে আর্টিলারি, মর্টারের গোলা। দুই মাস ধরে চলা মিয়ানমারের গোলাগুলিতে ঘুমধুমের তুমব্র“ এলাকার হাজারো মানুষের স্বাভাবিক জীবনযাপন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। সীমান্ত এলাকার চাষাবাদ প্রায় বন্ধ। খুব প্রয়োজন না হলে ঘর থেকেও কেউ বের হচ্ছে না। বন্ধ রয়েছে ওই সীমান্তের প্রায় সবগুলো বাজার ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।

এদিকে, অনেকেই নিরাপদ আশ্রয়ের খোঁজে ছেড়েছেন তুমব্রু। ওই এলাকার ৩০০ পরিবারকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়ার প্রস্তুতি চলছে প্রশাসনের পক্ষ থেকে। জেলা প্রশাসন, পুলিশ ও বিজিবির উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘুমধুম সীমান্ত এলাকা পরিদর্শন করে স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলেছেন। সীমান্তে টহল জোরদার করেছে বিজিবি।

গত দু’মাস ধরে মিয়ানমার সীমান্তে মিয়ানমার সেনাবাহিনী ও বিচ্ছিন্নতাবাদী আরাকান আর্মির মধ্যে সংঘর্ষ চলছে। এরমধ্যে মিয়ানমার থেকে ছোড়া গুলি মর্টার শেল এসে পড়েছে বাংলাদেশ সীমান্তে। গত শুক্রবার তুমব্রু সীমান্তে মর্টার শেল বিস্ফোরণে একজন নিহত ও কয়েকজন আহত হওয়ার পর সীমান্তের বাসিন্দারা আতংকে দিন কাটাচ্ছেন।

এ ঘটনায় মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূতকে ডেকে কড়া প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশ। তবে তাতে তেমন কোনো কাজ হয়নি, সীমান্তে এখনো উত্তেজনা বিরাজ করছে। এদিকে, গোটা পরিস্থিতি সম্পর্কে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার জোট আসিয়ানের দূতাবাস প্রধানদের অবহিত করেছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। ওই আলোচনায় মিয়ানমারের অভ্যন্তরীণ পরিস্থিতির কারণে এই অঞ্চলে অস্থিতিশীলতা তৈরি হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছে আসিয়ান। এ কারণে রোহিঙ্গা সমস্যা এবং সামগ্রিকভাবে মিয়ানমারের রাজনৈতিক সমস্যার বিষয়টি জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে বড় আকারে তুলে ধরতে পারে আসিয়ানের কয়েকটি সদস্য রাষ্ট্র। আজ চীন ও জাপানসহ বেশ কয়েকটি দেশের প্রতিনিধিদের সাথে বৈঠকের কথা রয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *