ঢাকা ০৯:৩৯ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

তাপপ্রবাহ থাকবে আরও পাঁচ থেকে ছয় দিন

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:৩২:২৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৬ জুন ২০২৩
  • / ৪৬০ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নিজস্ব প্রতিবেদক : গরমে জনজীবন অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে। সহসা বৃষ্টিরও দেখা নেই। এবছরের তাপপ্রবাহ যেন হার মানিয়েছে মানুষের সহ্য ক্ষমতাকে। বেশ কয়েকদিন ধরে দেশজুড়ে বয়ে চলা তাপপ্রবাহে নাজেহাল মানুষ। রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন জায়গাতে আবহাওয়ার পরিমাপ অনুযায়ী মৃদু তাপপ্রবাহ থাকলেও তা অনুভূত হচ্ছে তীব্র।

দেশের দুটি জেলার ওপর দিয়ে তীব্র তাপপ্রবাহ এবং ৫৭টি জেলার ওপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। দেশের ওপর দিয়ে চলমান এই তাপপ্রবাহ আরও পাঁচ থেকে ছয় দিন অব্যাহত থাকতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

আজ মঙ্গলবার (৬ জুন) সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত আবহাওয়ার পূর্বাভাসে সংস্থাটির ওয়েবসাইটে এ তথ্য জানানো হয়।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ মুহাম্মদ আবুল কালাম মল্লিক জানান, রাজশাহী ও পাবনা জেলার ওপর দিয়ে তীব্র তাপপ্রবাহ এবং চট্টগ্রাম, রাঙ্গামাটি, কুমিল্লা, চাঁদপুর, নোয়াখালী, বান্দরবান ও রাজশাহী বিভাগের অবশিষ্টাংশসহ ঢাকা বিভাগের ১৩টি, খুলনার ১০টি, বরিশাল বিভাগের ছয়টি, রংপুরের আটটি, ময়মনসিংহের চারটি ও সিলেটের চারটি জেলার ওপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা অব্যাহত থাকতে পারে।

আগামী দুই দিন চলমান তাপপ্রবাহ অব্যাহত থাকতে পারে বলেও জানান এই আবহাওয়াবিদ। এছাড়া আগামী পাঁচ দিনে দক্ষিণ পশ্চিম মৌসুমী বায়ু টেকনাফ উপকূল পর্যন্ত অগ্রসর হতে পারে।

এরই মধ্যে নতুন তথ্য জানিয়েছেন কানাডার সাসকাচোয়ান বিশ্ববিদ্যালয়ের আবহাওয়া ও জলবায়ূ গবেষক মোস্তফা কামাল পশাল।

তিনি বলেন, ৬ থেকে ১২ জুন পর্যন্ত চুয়াডাঙ্গা, কুষ্টিয়া, মেহেরপুর, যশোর, ঝিনাইদহ, রাজশাহী, নাটোর ও পাবনা জেলায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪২ থেকে ৪৫ ডিগ্রি পর্যন্ত উঠতে পারে।

আবহাওয়া বিষয়ক তথ্য শেয়ারকারী ওয়েবসাইটে তিনি একথা বলেন। এতে আরো বলা হয়, আগামী ১৪ জুন পর্যন্ত সিলেট ও চট্টগ্রাম বিভাগ ছাড়া অন্যান্য বিভাগে উল্লেখযোগ্য পরিমাণ বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা খুবই কম। এ সময়ের মধ্যে মাঝারি থেকে তীব্র তাপপ্রবাহ বয়ে যাওয়ার সম্ভবনা দেখা যাচ্ছে।

আগামী ১৫ জুন থেকে ২৫ জুন পর্যন্ত বর্ষা মৌসুমের বৃষ্টিপাত শুরু হওয়ার প্রবল সম্ভবনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন মোস্তফা কামাল পশাল।

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে রাজশাহীতে ৪০ দশমিক ৭ ডিগ্রী সেলসিয়াস।

প্রসঙ্গত, জুন মাসের এই সময়ে সূর্য ঠিক বাংলাদেশের ওপর অবস্থান করে। ফলে দিনের বেলা সূর্যের শক্তি বাংলাদেশের বায়ূমন্ডলের ওপর প্রবেশ করে। ফলে গরমের তীব্রতা বাড়ে।

নিউজটি শেয়ার করুন

তাপপ্রবাহ থাকবে আরও পাঁচ থেকে ছয় দিন

আপডেট সময় : ১২:৩২:২৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৬ জুন ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক : গরমে জনজীবন অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে। সহসা বৃষ্টিরও দেখা নেই। এবছরের তাপপ্রবাহ যেন হার মানিয়েছে মানুষের সহ্য ক্ষমতাকে। বেশ কয়েকদিন ধরে দেশজুড়ে বয়ে চলা তাপপ্রবাহে নাজেহাল মানুষ। রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন জায়গাতে আবহাওয়ার পরিমাপ অনুযায়ী মৃদু তাপপ্রবাহ থাকলেও তা অনুভূত হচ্ছে তীব্র।

দেশের দুটি জেলার ওপর দিয়ে তীব্র তাপপ্রবাহ এবং ৫৭টি জেলার ওপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। দেশের ওপর দিয়ে চলমান এই তাপপ্রবাহ আরও পাঁচ থেকে ছয় দিন অব্যাহত থাকতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

আজ মঙ্গলবার (৬ জুন) সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত আবহাওয়ার পূর্বাভাসে সংস্থাটির ওয়েবসাইটে এ তথ্য জানানো হয়।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ মুহাম্মদ আবুল কালাম মল্লিক জানান, রাজশাহী ও পাবনা জেলার ওপর দিয়ে তীব্র তাপপ্রবাহ এবং চট্টগ্রাম, রাঙ্গামাটি, কুমিল্লা, চাঁদপুর, নোয়াখালী, বান্দরবান ও রাজশাহী বিভাগের অবশিষ্টাংশসহ ঢাকা বিভাগের ১৩টি, খুলনার ১০টি, বরিশাল বিভাগের ছয়টি, রংপুরের আটটি, ময়মনসিংহের চারটি ও সিলেটের চারটি জেলার ওপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা অব্যাহত থাকতে পারে।

আগামী দুই দিন চলমান তাপপ্রবাহ অব্যাহত থাকতে পারে বলেও জানান এই আবহাওয়াবিদ। এছাড়া আগামী পাঁচ দিনে দক্ষিণ পশ্চিম মৌসুমী বায়ু টেকনাফ উপকূল পর্যন্ত অগ্রসর হতে পারে।

এরই মধ্যে নতুন তথ্য জানিয়েছেন কানাডার সাসকাচোয়ান বিশ্ববিদ্যালয়ের আবহাওয়া ও জলবায়ূ গবেষক মোস্তফা কামাল পশাল।

তিনি বলেন, ৬ থেকে ১২ জুন পর্যন্ত চুয়াডাঙ্গা, কুষ্টিয়া, মেহেরপুর, যশোর, ঝিনাইদহ, রাজশাহী, নাটোর ও পাবনা জেলায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪২ থেকে ৪৫ ডিগ্রি পর্যন্ত উঠতে পারে।

আবহাওয়া বিষয়ক তথ্য শেয়ারকারী ওয়েবসাইটে তিনি একথা বলেন। এতে আরো বলা হয়, আগামী ১৪ জুন পর্যন্ত সিলেট ও চট্টগ্রাম বিভাগ ছাড়া অন্যান্য বিভাগে উল্লেখযোগ্য পরিমাণ বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা খুবই কম। এ সময়ের মধ্যে মাঝারি থেকে তীব্র তাপপ্রবাহ বয়ে যাওয়ার সম্ভবনা দেখা যাচ্ছে।

আগামী ১৫ জুন থেকে ২৫ জুন পর্যন্ত বর্ষা মৌসুমের বৃষ্টিপাত শুরু হওয়ার প্রবল সম্ভবনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন মোস্তফা কামাল পশাল।

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে রাজশাহীতে ৪০ দশমিক ৭ ডিগ্রী সেলসিয়াস।

প্রসঙ্গত, জুন মাসের এই সময়ে সূর্য ঠিক বাংলাদেশের ওপর অবস্থান করে। ফলে দিনের বেলা সূর্যের শক্তি বাংলাদেশের বায়ূমন্ডলের ওপর প্রবেশ করে। ফলে গরমের তীব্রতা বাড়ে।