ঢাকা ০৮:৪০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

তাড়াশে ভাই-বোনদের সাথে ঝগড়া :অভিমানে ভাইয়ের আত্মহত্যা

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:৩০:৫২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৩
  • / ৪৬৫ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

// তাড়াশ (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি //

সিরাজগঞ্জের তাড়াশে পারিবারিক বিরোধের জের ধরে চাচাতো ভাই ও বোনদের সাথে তুচ্ছ বিষয় নিয়ে মারামারির পর শহিদুল ইসলাম (৪০) নামের এক ব্যাক্তি কিটনাশক (গ্যাস ট্যাবলেট) পানে আত্মহত্যা করেছেন। বৃহস্পতিবার সকালে তার মরদেহ উদ্ধার করে সিরাজগঞ্জ বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ২৫০শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে পুলিশ। সে উপজেলার বারুহাস ইউনিয়নের পালাশী গ্রামের মৃত এলাহী বক্সের ছেলে।

বুধবার (১৯এপ্রিল) দুপুরে উপজেলার বারুহাস ইউনিয়নের পালাশী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। সে উপজেলার বারুহাস ইউনিয়নের পালাশী গ্রামের মৃত.এলাহী বক্সের ছেলে।

তাড়াশ থানার এসআই আব্দুল মমিন জানান, পারিবারিক বিরোধের জের ধরে বুধবার সকালে পলাশী গ্রামের শহিদুল ইসলামের সাথে তার ভাই হাজামত আলী, ভাতিজা স্বপন আহমেদ, বোন জুলেখা খাতুন ও সানোয়রা খাতুনের সাথে ঝগড়া হয়। একপর্যায়ে তাদের মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটে। এতে ভাইবোনদের ওপর অভিমান দুপুরে দিকে গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে আত্মহত্যা করেন।

বারুহাস ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো: ময়নুল হক জানান, পারিবারিক বিরোধের জের ধরে সকালে পলাশী গ্রামের শহিদুল ইসলামের সাথে ভাইবোনদের সাথে ঝগড়া হয়। এতে ক্ষোভ ও অভিমানে তিনি গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে আত্মহত্যা করেন। পরে থানায় খবর দিলে মরদেহ উদ্ধার নিয়ে যায় পুলিশ।

তাড়াশ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) নুরে আলম জানান, বুধবার রাতে শহিদুল ইসলামের মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়। পরে বৃহস্পতিবার সকালে ময়নাতদন্তের জন্য সিরাজগঞ্জ বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ২৫০শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ বিষয়ে থানায় একটি ইউডি মামলা দায়ের হয়েছে।

বা/খ: এসআর।

নিউজটি শেয়ার করুন

তাড়াশে ভাই-বোনদের সাথে ঝগড়া :অভিমানে ভাইয়ের আত্মহত্যা

আপডেট সময় : ১২:৩০:৫২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৩

// তাড়াশ (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি //

সিরাজগঞ্জের তাড়াশে পারিবারিক বিরোধের জের ধরে চাচাতো ভাই ও বোনদের সাথে তুচ্ছ বিষয় নিয়ে মারামারির পর শহিদুল ইসলাম (৪০) নামের এক ব্যাক্তি কিটনাশক (গ্যাস ট্যাবলেট) পানে আত্মহত্যা করেছেন। বৃহস্পতিবার সকালে তার মরদেহ উদ্ধার করে সিরাজগঞ্জ বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ২৫০শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে পুলিশ। সে উপজেলার বারুহাস ইউনিয়নের পালাশী গ্রামের মৃত এলাহী বক্সের ছেলে।

বুধবার (১৯এপ্রিল) দুপুরে উপজেলার বারুহাস ইউনিয়নের পালাশী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। সে উপজেলার বারুহাস ইউনিয়নের পালাশী গ্রামের মৃত.এলাহী বক্সের ছেলে।

তাড়াশ থানার এসআই আব্দুল মমিন জানান, পারিবারিক বিরোধের জের ধরে বুধবার সকালে পলাশী গ্রামের শহিদুল ইসলামের সাথে তার ভাই হাজামত আলী, ভাতিজা স্বপন আহমেদ, বোন জুলেখা খাতুন ও সানোয়রা খাতুনের সাথে ঝগড়া হয়। একপর্যায়ে তাদের মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটে। এতে ভাইবোনদের ওপর অভিমান দুপুরে দিকে গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে আত্মহত্যা করেন।

বারুহাস ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো: ময়নুল হক জানান, পারিবারিক বিরোধের জের ধরে সকালে পলাশী গ্রামের শহিদুল ইসলামের সাথে ভাইবোনদের সাথে ঝগড়া হয়। এতে ক্ষোভ ও অভিমানে তিনি গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে আত্মহত্যা করেন। পরে থানায় খবর দিলে মরদেহ উদ্ধার নিয়ে যায় পুলিশ।

তাড়াশ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) নুরে আলম জানান, বুধবার রাতে শহিদুল ইসলামের মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়। পরে বৃহস্পতিবার সকালে ময়নাতদন্তের জন্য সিরাজগঞ্জ বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ২৫০শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ বিষয়ে থানায় একটি ইউডি মামলা দায়ের হয়েছে।

বা/খ: এসআর।