ঢাকা ১২:৪৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

তাইওয়ানে শক্তিশালী ভূমিকম্পে ৪ জনের মৃত্যু, আহত ৭১১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০১:৪৪:২৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩ এপ্রিল ২০২৪
  • / ৪৪৬ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

শক্তিশালী ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল তাইওয়ান। আজ বুধবার স্থানীয় সময় সকালে তাইওয়ানের পূর্ব উপকূলে এই ভূমিকম্প হয়। রিখটার স্কেলে এর মাত্রা ছিল ৭ দশমিক ৪। ভূমিকম্পে এখন পর্যন্ত চারজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। আর আহত হয়েছেন কমপক্ষে ৭১১ জন। আশঙ্কা করা হচ্ছে অনেকে ধ্বংসস্তুপের নিচে চাপা পড়ে থাকতে পারেন।

বিবিসির প্রতিবেদনে জানা যায়, ভূমিকম্পে বহু ঘরবাড়ি ভেঙে পড়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বেশ কয়েকটি বহুতল ভবন।

তাইওয়ান সরকারের বরাতে প্রতিবেদনে বলা হয়, ভূমিকম্পের কেন্দ্রস্থল হুয়ালিয়েন শহরে অন্তত চারজনের মৃত্যু হয়েছে। আর আহত হয়েছেন সাত শতাধিক মানুষ। অন্তত ২৬টি ভবন ধসে পড়েছে। অর্ধেকের বেশিই হুয়ালিয়েনে। আর এসব ধসে পড়া ভবনে অন্তত ২০ জন আটকা পড়েছে। তাদের উদ্ধারে অভিযান চলছে।দেশটির কেন্দ্রীয় আবহাওয়া প্রশাসন জানিয়েছে, ভূমিকম্পটির গভীরতা ছিল সাড়ে ১৫ কিলোমিটার।

এদিকে ভূমিকম্পের পর সুনামি সতর্কতা জারি করেছে তাইওয়ান। জাপান ও ফিলিপাইনেও সুনামি সতর্কতা জারি করা হয়েছে। প্রায় ১০ ফুট পর্যন্ত উচ্চতার সুনামি আঘাত হানতে পারে বলে পূর্বভাস দিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর।

মার্কিন ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা (ইউএসজিএস) ভূমিকম্পের মাত্রা ৭ দশমিক ৪ বলে জানালেও তাইওয়ানের ভূমিকম্প পর্যবেক্ষণ সংস্থা বলেছে এর মাত্রা ছিল ৭ দশমিক ২। ভূমিকম্পের কেন্দ্রস্থল ছিল দেশটির হুয়ালিয়েন শহরের ১৮ কিলোমিটার দক্ষিণে। উৎপত্তিস্থল ছিল ভূপৃষ্ঠের ৩৪ দশমিক ৮ কিলোমিটার গভীরে।

তাইওয়ানে গত ২৫ বছরের মধ্যে এটি ছিল সবচেয়ে শক্তিশালী ভূমিকম্প। এর আগে ১৯৯৯ সালের সেপ্টেম্বরে দেশটিতে ৭ দশমিক ৬ মাত্রার ভূমিকম্প হয়েছিল। এতে ২ হাজার ৪০০ মানুষের মৃত্যু হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

তাইওয়ানে শক্তিশালী ভূমিকম্পে ৪ জনের মৃত্যু, আহত ৭১১

আপডেট সময় : ০১:৪৪:২৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩ এপ্রিল ২০২৪

শক্তিশালী ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল তাইওয়ান। আজ বুধবার স্থানীয় সময় সকালে তাইওয়ানের পূর্ব উপকূলে এই ভূমিকম্প হয়। রিখটার স্কেলে এর মাত্রা ছিল ৭ দশমিক ৪। ভূমিকম্পে এখন পর্যন্ত চারজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। আর আহত হয়েছেন কমপক্ষে ৭১১ জন। আশঙ্কা করা হচ্ছে অনেকে ধ্বংসস্তুপের নিচে চাপা পড়ে থাকতে পারেন।

বিবিসির প্রতিবেদনে জানা যায়, ভূমিকম্পে বহু ঘরবাড়ি ভেঙে পড়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বেশ কয়েকটি বহুতল ভবন।

তাইওয়ান সরকারের বরাতে প্রতিবেদনে বলা হয়, ভূমিকম্পের কেন্দ্রস্থল হুয়ালিয়েন শহরে অন্তত চারজনের মৃত্যু হয়েছে। আর আহত হয়েছেন সাত শতাধিক মানুষ। অন্তত ২৬টি ভবন ধসে পড়েছে। অর্ধেকের বেশিই হুয়ালিয়েনে। আর এসব ধসে পড়া ভবনে অন্তত ২০ জন আটকা পড়েছে। তাদের উদ্ধারে অভিযান চলছে।দেশটির কেন্দ্রীয় আবহাওয়া প্রশাসন জানিয়েছে, ভূমিকম্পটির গভীরতা ছিল সাড়ে ১৫ কিলোমিটার।

এদিকে ভূমিকম্পের পর সুনামি সতর্কতা জারি করেছে তাইওয়ান। জাপান ও ফিলিপাইনেও সুনামি সতর্কতা জারি করা হয়েছে। প্রায় ১০ ফুট পর্যন্ত উচ্চতার সুনামি আঘাত হানতে পারে বলে পূর্বভাস দিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর।

মার্কিন ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা (ইউএসজিএস) ভূমিকম্পের মাত্রা ৭ দশমিক ৪ বলে জানালেও তাইওয়ানের ভূমিকম্প পর্যবেক্ষণ সংস্থা বলেছে এর মাত্রা ছিল ৭ দশমিক ২। ভূমিকম্পের কেন্দ্রস্থল ছিল দেশটির হুয়ালিয়েন শহরের ১৮ কিলোমিটার দক্ষিণে। উৎপত্তিস্থল ছিল ভূপৃষ্ঠের ৩৪ দশমিক ৮ কিলোমিটার গভীরে।

তাইওয়ানে গত ২৫ বছরের মধ্যে এটি ছিল সবচেয়ে শক্তিশালী ভূমিকম্প। এর আগে ১৯৯৯ সালের সেপ্টেম্বরে দেশটিতে ৭ দশমিক ৬ মাত্রার ভূমিকম্প হয়েছিল। এতে ২ হাজার ৪০০ মানুষের মৃত্যু হয়।