ঢাকা ০৪:১১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

তমব্রু সীমান্তে রকেট লাঞ্চার উদ্ধার, পড়ে আছে মরদেহ

বান্দরবান প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ০১:২৫:৪৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • / ৪৫৬ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির তুমব্রু সীমান্তে মিয়ানমার থেকে ছোঁড়া আরও দু’টি অবিস্ফোরিত রকেট গোলা উদ্ধার করেছে বিজিবি। শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) সকালে এ গোলা দুটি উদ্ধার করা হয়। জানা গেছে, তুমব্রু সীমান্তের পশ্চিমকূলে ফসলের খেতে কাজ করার সময় অবিস্ফোরিত রকেট লঞ্চারের গোলা দেখতে পায় স্থানীয়রা।

তবে গতকাল শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে আবারও ভারি মর্টারশেল বিস্ফোরণ ও গোলাগুলির শব্দে কেঁপেছে বান্দরবানের ঘুমধুম সীমান্ত। উড়ে এসেছে অবিস্ফোরিত রকেট লঞ্চার। এর আগে বুধবার (৭ ফেব্রুয়ারি)-ও একটি অবিস্ফোরিত মর্টারশেল উদ্ধার করা হয়। পরে সেগুলো নিষ্ক্রিয় করে সেনাবাহিনী। তবে এসব ঘটনায় নতুন করে আতংক ছড়িয়েছে স্থানীয়দের মধ্যে।

এদিকে, উখিয়া সীমান্তের রহমতের বিল এলাকায় কয়েকজনের মরদেহ পড়ে আছে বলে দাবি করছে স্থানীয়রা। স্থানীয় সাবেক স্কুলশিক্ষক নুরুল বশর বলেন, ‘রহমতের বিল থেকে ওপারে মিয়ানমারের ঢেঁকিবুনিয়া সীমান্তের দূরত্ব আধা কিলোমিটার। সীমান্তের এপারে তিন থেকে চারটি মরদেহ পড়ে আছে।

উখিয়া থানার ওসি শামীম হোসেন বলেন, উখিয়া সীমান্তের রহমতের বিল এলাকায় কয়েকটি মরদেহ পড়ে আছে। স্থানীয় লোকজনের কাছ থেকে এমন খবর পেয়ে শুক্রবার দুপুরে পুলিশ সেখানে যায়। কিন্তু সীমান্তের একেবারে কাছাকাছি লাশগুলো থাকায় নিরাপত্তাজনিত কারণে পুলিশ তা উদ্ধার করতে পারেনি। তবে চেষ্টা চলছে।

মিয়ানমারে বিদ্রোহী গোষ্ঠীর হাত থেকে প্রাণ বাঁচাতে বাংলাদেশে পালিয়ে এসে আশ্রয় নিয়েছেন দেশটির ৩৩০ জন সীমান্তরক্ষী। দুই দেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মধ্যে আলোচনার পর তাদের ফিরিয়ে নিতে সম্মত হয়েছে মিয়ানমার। ইতোমধ্যে ফেরত পাঠানোর প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে বলে জানান শরনার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার মিজানুর রহমান।

গত ৫ ফেব্রুয়ারি মায়ানমার থেকে বান্দরবানের ঘুমধুমে উড়ে আসা মর্টারশেলের আঘাতে প্রাণ হারিয়েছেন এক বাংলাদেশি নারী ও এক রোহিঙ্গা।

নিউজটি শেয়ার করুন

তমব্রু সীমান্তে রকেট লাঞ্চার উদ্ধার, পড়ে আছে মরদেহ

আপডেট সময় : ০১:২৫:৪৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির তুমব্রু সীমান্তে মিয়ানমার থেকে ছোঁড়া আরও দু’টি অবিস্ফোরিত রকেট গোলা উদ্ধার করেছে বিজিবি। শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) সকালে এ গোলা দুটি উদ্ধার করা হয়। জানা গেছে, তুমব্রু সীমান্তের পশ্চিমকূলে ফসলের খেতে কাজ করার সময় অবিস্ফোরিত রকেট লঞ্চারের গোলা দেখতে পায় স্থানীয়রা।

তবে গতকাল শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে আবারও ভারি মর্টারশেল বিস্ফোরণ ও গোলাগুলির শব্দে কেঁপেছে বান্দরবানের ঘুমধুম সীমান্ত। উড়ে এসেছে অবিস্ফোরিত রকেট লঞ্চার। এর আগে বুধবার (৭ ফেব্রুয়ারি)-ও একটি অবিস্ফোরিত মর্টারশেল উদ্ধার করা হয়। পরে সেগুলো নিষ্ক্রিয় করে সেনাবাহিনী। তবে এসব ঘটনায় নতুন করে আতংক ছড়িয়েছে স্থানীয়দের মধ্যে।

এদিকে, উখিয়া সীমান্তের রহমতের বিল এলাকায় কয়েকজনের মরদেহ পড়ে আছে বলে দাবি করছে স্থানীয়রা। স্থানীয় সাবেক স্কুলশিক্ষক নুরুল বশর বলেন, ‘রহমতের বিল থেকে ওপারে মিয়ানমারের ঢেঁকিবুনিয়া সীমান্তের দূরত্ব আধা কিলোমিটার। সীমান্তের এপারে তিন থেকে চারটি মরদেহ পড়ে আছে।

উখিয়া থানার ওসি শামীম হোসেন বলেন, উখিয়া সীমান্তের রহমতের বিল এলাকায় কয়েকটি মরদেহ পড়ে আছে। স্থানীয় লোকজনের কাছ থেকে এমন খবর পেয়ে শুক্রবার দুপুরে পুলিশ সেখানে যায়। কিন্তু সীমান্তের একেবারে কাছাকাছি লাশগুলো থাকায় নিরাপত্তাজনিত কারণে পুলিশ তা উদ্ধার করতে পারেনি। তবে চেষ্টা চলছে।

মিয়ানমারে বিদ্রোহী গোষ্ঠীর হাত থেকে প্রাণ বাঁচাতে বাংলাদেশে পালিয়ে এসে আশ্রয় নিয়েছেন দেশটির ৩৩০ জন সীমান্তরক্ষী। দুই দেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মধ্যে আলোচনার পর তাদের ফিরিয়ে নিতে সম্মত হয়েছে মিয়ানমার। ইতোমধ্যে ফেরত পাঠানোর প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে বলে জানান শরনার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার মিজানুর রহমান।

গত ৫ ফেব্রুয়ারি মায়ানমার থেকে বান্দরবানের ঘুমধুমে উড়ে আসা মর্টারশেলের আঘাতে প্রাণ হারিয়েছেন এক বাংলাদেশি নারী ও এক রোহিঙ্গা।