ঢাকা ১১:০৩ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

ডাচদের কাছে হেরে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় প্রোটিয়াদের

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১০:৪৭:৫৫ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৬ নভেম্বর ২০২২
  • / ৪৩২ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

স্পোর্টস ডেস্ক : 
দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে মাঠে নামার আগের দিন সংবাদ সম্মেলনে নেদারল্যান্ডসের অলরাউন্ডার ভ্যান ডার মারউই বলেছিলেন, প্রোটিয়াদের হারিয়ে বিশ্বকাপ শেষ করতে চাই আমরা। অন্যদিকে বিশ্বকাপের মঞ্চে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করতে নেদারল্যান্ডসকে যেকোনও ব্যবধানে হারালেই চলতো টেম্বা বাভুমাদের।

অ্যাডিলেড ওভালে ঘটলো আরেকটি অঘটন। ইতিহাস গড়লো নেদারল্যান্ডস। সে সঙ্গে প্রোটিয়াদের বিদায় নিশ্চিত করে দিয়েছে তারা এবং সঙ্গে বাংলাদেশ এবং পাকিস্তানের জন্য দারুন সুযোগ তৈরি করে দিলো নেদারল্যান্ডস।

পরের ম্যাচে বাংলাদেশ এবং পাকিস্তানের মধ্যকার বিজয়ী দলই ভারতের সঙ্গে উঠে যাবে সেমিফাইনালে। সাকিব-বাবরদের দুই দলেরই পয়েন্ট সমান ৪ করে।

তবে দক্ষিণ আফ্রিকা পারলো না, উলটো বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভ পর্বের শেষ দিনে এসে অঘটন ঘটিয়ে দিলো ডাচরা। অ্যাডিলেইড ওভালে প্রোটিয়াদের হারিয়ে দিয়েছে ১৩ রানে। এই জয়ে ডাচরা আনন্দে বিশ্বকাপ শেষ করতে পারলেও চোখের জলেই বিদায় নিতে হচ্ছে দক্ষিণ আফ্রিকার। ডাচদের বিপক্ষে এই হারের কারণে বিশ্বকাপ থেকে ছিটকেই গেছে দলটি।

সুপার টুয়েলভ পর্বে প্রথম ৩ ম্যাচ থেকে ২ জয় ও বৃষ্টির কারণে পরিত্যক্ত হওয়া ১ ম্যাচ থেকে মোট ৫ পয়েন্ট অর্জন করেছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। ফলে সেমিফাইনালে ওঠার পথে সবচেয়ে বড় দাবিদার ছিল তারাই। তবে শেষ দুই ম্যাচে টানা হারে বিশ্বকাপ থেকেই বাদ পড়লো তারা। বাংলাদেশ-পাকিস্তান ম্যাচে যে দল জিতবে তারাই এখন খেলবে সেমিফাইনাল।

অ্যাডিলেইডে এদিন টসে হেরে আগে ব্যাটিং করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৪ উইকেটে ১৫৮ রান তোলে নেদারল্যান্ডস। জবাবে নির্ধারিত ২০ ওভার খেলে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৪৫ রানের বেশি করতে পারেনি বাভুমার দল।
নেদারল্যান্ডসের পক্ষে এদিন কলিন অ্যাকারমান অপরাজিত ৪১, স্টিফেন মাইবার্গ ৩৭ এবং টম কুপার করেন ৩৫ রান।

লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে নিয়মিত বিরতিতেই উইকেট হারাতে থাকে দক্ষিণ আফ্রিকা। কোনো ব্যাটসম্যানই উইকেটে থিতু হতে পারেনি। যার ফলে তিনজন ব্যাটসম্যান বিশের এবং চারজন দশের ঘরে গিয়ে আউট হয়ে যান। প্রোটিয়াদের পক্ষে সর্বোচ্চ ২৫ রান আসে রাইলি রুশোর ব্যাট থেকে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ডাচদের কাছে হেরে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় প্রোটিয়াদের

আপডেট সময় : ১০:৪৭:৫৫ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৬ নভেম্বর ২০২২

স্পোর্টস ডেস্ক : 
দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে মাঠে নামার আগের দিন সংবাদ সম্মেলনে নেদারল্যান্ডসের অলরাউন্ডার ভ্যান ডার মারউই বলেছিলেন, প্রোটিয়াদের হারিয়ে বিশ্বকাপ শেষ করতে চাই আমরা। অন্যদিকে বিশ্বকাপের মঞ্চে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করতে নেদারল্যান্ডসকে যেকোনও ব্যবধানে হারালেই চলতো টেম্বা বাভুমাদের।

অ্যাডিলেড ওভালে ঘটলো আরেকটি অঘটন। ইতিহাস গড়লো নেদারল্যান্ডস। সে সঙ্গে প্রোটিয়াদের বিদায় নিশ্চিত করে দিয়েছে তারা এবং সঙ্গে বাংলাদেশ এবং পাকিস্তানের জন্য দারুন সুযোগ তৈরি করে দিলো নেদারল্যান্ডস।

পরের ম্যাচে বাংলাদেশ এবং পাকিস্তানের মধ্যকার বিজয়ী দলই ভারতের সঙ্গে উঠে যাবে সেমিফাইনালে। সাকিব-বাবরদের দুই দলেরই পয়েন্ট সমান ৪ করে।

তবে দক্ষিণ আফ্রিকা পারলো না, উলটো বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভ পর্বের শেষ দিনে এসে অঘটন ঘটিয়ে দিলো ডাচরা। অ্যাডিলেইড ওভালে প্রোটিয়াদের হারিয়ে দিয়েছে ১৩ রানে। এই জয়ে ডাচরা আনন্দে বিশ্বকাপ শেষ করতে পারলেও চোখের জলেই বিদায় নিতে হচ্ছে দক্ষিণ আফ্রিকার। ডাচদের বিপক্ষে এই হারের কারণে বিশ্বকাপ থেকে ছিটকেই গেছে দলটি।

সুপার টুয়েলভ পর্বে প্রথম ৩ ম্যাচ থেকে ২ জয় ও বৃষ্টির কারণে পরিত্যক্ত হওয়া ১ ম্যাচ থেকে মোট ৫ পয়েন্ট অর্জন করেছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। ফলে সেমিফাইনালে ওঠার পথে সবচেয়ে বড় দাবিদার ছিল তারাই। তবে শেষ দুই ম্যাচে টানা হারে বিশ্বকাপ থেকেই বাদ পড়লো তারা। বাংলাদেশ-পাকিস্তান ম্যাচে যে দল জিতবে তারাই এখন খেলবে সেমিফাইনাল।

অ্যাডিলেইডে এদিন টসে হেরে আগে ব্যাটিং করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৪ উইকেটে ১৫৮ রান তোলে নেদারল্যান্ডস। জবাবে নির্ধারিত ২০ ওভার খেলে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৪৫ রানের বেশি করতে পারেনি বাভুমার দল।
নেদারল্যান্ডসের পক্ষে এদিন কলিন অ্যাকারমান অপরাজিত ৪১, স্টিফেন মাইবার্গ ৩৭ এবং টম কুপার করেন ৩৫ রান।

লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে নিয়মিত বিরতিতেই উইকেট হারাতে থাকে দক্ষিণ আফ্রিকা। কোনো ব্যাটসম্যানই উইকেটে থিতু হতে পারেনি। যার ফলে তিনজন ব্যাটসম্যান বিশের এবং চারজন দশের ঘরে গিয়ে আউট হয়ে যান। প্রোটিয়াদের পক্ষে সর্বোচ্চ ২৫ রান আসে রাইলি রুশোর ব্যাট থেকে।