ঢাকা ০৬:১২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

টানেলে হামাসের কৌশলে ‘বন্দী’ হল ইসরায়েলি সৈন্য

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৪:২৭:৩৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪
  • / ৪২৫ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

অতর্কিত হামলা চালিয়ে কমপক্ষে একজন ইসরায়েলি সৈন্যকে ‘বন্দী’ করার দাবি করেছে ফিলিস্তিনি সংগঠন হামাস। শনিবার (২৫ মে) গাজা উপত্যকায় এই ঘটনা ঘটেছে। তবে ইসরাইল এ দাবি অস্বীকার করেছে।

কাসাম ব্রিগেডের মুখপাত্র আবু ওবেদা বলেছেন যে হামাস যোদ্ধারা “একটি ইসরায়েলি সৈন্যদলকে প্রলুব্ধ করে” একটি সুড়ঙ্গে ফেলে এবং উত্তর গাজার জাবালিয়া ক্যাম্পে একটি অজ্ঞাত সংখ্যাকে “হত্যা, আহত এবং বন্দী করে”। ইসরায়েলি সামরিক বাহিনী এই দাবি অস্বীকার করেছে।

হামাস একজন সৈন্যকে মাটিতে টেনে নিয়ে যাওয়ার ছবিও প্রকাশ করেছে। ছবিতে সৈন্যটির অবয়ব ইসরায়েলি সৈন্যদের সাথে মিল রয়েছে।

হামাসের কর্মকর্তা ওসামা হামদান বলেছেন যে ইসরায়েলের সাথে নতুন আলোচনার প্রয়োজন নেই, এই ধরনের আলোচনা শুধুমাত্র ইসরায়েলি সামরিক বাহিনীকে গাজায় “আগ্রাসন চালিয়ে যাওয়ার জন্য আরও সময়” দেয়।

এদিকে টেলিগ্রামে এক বিবৃতিতে ইসরায়েলি সেনাবাহিনী সৈন্য অপহরণ করার মতো কোন ঘটনা সেখানে ঘটেনি বলে দাবি করেছে।

জাতিসংঘের শীর্ষ আদালতের সামরিক অভিযান বন্ধের আদেশ উপেক্ষা করেই ইসরায়েল রাফায় যুদ্ধবিমান থেকে বোমা এবং কামানের গোলা বর্ষণ চালিয়ে যাচ্ছে। এদিকে গত ৭ অক্টোবর শুরু হওয়া ইসরাইল-হামাস যুদ্ধ বন্ধে প্যারিসে নতুন উদ্যোগ শুরু হয়েছে। সূত্র: আলজাজিরা।

নিউজটি শেয়ার করুন

টানেলে হামাসের কৌশলে ‘বন্দী’ হল ইসরায়েলি সৈন্য

আপডেট সময় : ০৪:২৭:৩৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪

অতর্কিত হামলা চালিয়ে কমপক্ষে একজন ইসরায়েলি সৈন্যকে ‘বন্দী’ করার দাবি করেছে ফিলিস্তিনি সংগঠন হামাস। শনিবার (২৫ মে) গাজা উপত্যকায় এই ঘটনা ঘটেছে। তবে ইসরাইল এ দাবি অস্বীকার করেছে।

কাসাম ব্রিগেডের মুখপাত্র আবু ওবেদা বলেছেন যে হামাস যোদ্ধারা “একটি ইসরায়েলি সৈন্যদলকে প্রলুব্ধ করে” একটি সুড়ঙ্গে ফেলে এবং উত্তর গাজার জাবালিয়া ক্যাম্পে একটি অজ্ঞাত সংখ্যাকে “হত্যা, আহত এবং বন্দী করে”। ইসরায়েলি সামরিক বাহিনী এই দাবি অস্বীকার করেছে।

হামাস একজন সৈন্যকে মাটিতে টেনে নিয়ে যাওয়ার ছবিও প্রকাশ করেছে। ছবিতে সৈন্যটির অবয়ব ইসরায়েলি সৈন্যদের সাথে মিল রয়েছে।

হামাসের কর্মকর্তা ওসামা হামদান বলেছেন যে ইসরায়েলের সাথে নতুন আলোচনার প্রয়োজন নেই, এই ধরনের আলোচনা শুধুমাত্র ইসরায়েলি সামরিক বাহিনীকে গাজায় “আগ্রাসন চালিয়ে যাওয়ার জন্য আরও সময়” দেয়।

এদিকে টেলিগ্রামে এক বিবৃতিতে ইসরায়েলি সেনাবাহিনী সৈন্য অপহরণ করার মতো কোন ঘটনা সেখানে ঘটেনি বলে দাবি করেছে।

জাতিসংঘের শীর্ষ আদালতের সামরিক অভিযান বন্ধের আদেশ উপেক্ষা করেই ইসরায়েল রাফায় যুদ্ধবিমান থেকে বোমা এবং কামানের গোলা বর্ষণ চালিয়ে যাচ্ছে। এদিকে গত ৭ অক্টোবর শুরু হওয়া ইসরাইল-হামাস যুদ্ধ বন্ধে প্যারিসে নতুন উদ্যোগ শুরু হয়েছে। সূত্র: আলজাজিরা।