ঢাকা ০১:০১ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

জ্বালানির দাম নিয়ে বিশ্বব্যাংকের সুখবর

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৪:৩২:৪২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৮ অক্টোবর ২০২২
  • / ৪৯৪ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : 

চলতি বছর জ্বালানির দাম গত বছরের তুলনায় অনেকটাই বেড়েছে। তবে আগামী বছর দাম কিছুটা কমে আসবে। শুধু জ্বালানিই নয়, গমসহ আরও অনেক পণ্যের দামও কমবে। এমনটাই বলছে বিশ্বব্যাংক।

বুধবার (২৬ অক্টোবর) বাজার বিষয়ক সবশেষ মূল্যায়নে আন্তর্জাতিক ঋণদানকারী সংস্থাটি বলেছে, ইউক্রেনে রাশিয়ার সামরিক অভিযানের কারণে জ্বালানির বাজার অস্থির হয়ে ওঠে। ফলে চলতি বছর এখন পর্যন্ত জ্বালানির মূল্য ৬০ শতাংশ বেড়েছে।

বিশ্বব্যাংকের মতে, জ্বালানির মূল্যবৃদ্ধির এ প্রবণতায় আগামী কয়েক মাসের মধ্যে উল্টোস্রোত তৈরি হবে। ফলে ২০২৩ সালে জ্বালানির দাম ১১ শতাংশ হ্রাস পাবে। এরপর মন্থর অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ও চীনের করোনা বিধিনিষেধের কারণে জ্বালানির দাম আরও কমতে পারে।

বর্তমানে বৃহস্পতিবার (২৭ অক্টোবর পর্যন্ত) আন্তর্জাতিক বাজারে অপরিশোধিত জ্বালানির গড় দাম ৯৬.৬২ ডলার।

বিশ্বব্যাংকের প্রতিবেদন মতে, ২০২৩ সালে এই দাম ৯২ ডলারে নেমে আসবে। পরের বছর অর্থাৎ ২০২৪ সালে তা আরও কমে ৮০ ডলারে দাঁড়াবে। তবে দাম কমলেও তা হবে গত পাঁচ বছরের গড় দাম থেকে ৭৫ শতাংশ বেশি।

এছাড়া আগামী বছর কৃষিপণ্যের দাম ৫ শতাংশ কমবে বলেও আশা করা হচ্ছে। ২০২২ সালের তৃতীয় প্রান্তিকে গমের দাম প্রায় ২০ শতাংশ কমেছে। তবে এক বছর আগের তুলনায় তা ২৪ শতাংশ বেশিই।

২০২৩ সালে বিশ্বে গমের ভালো ফলন, চালের বাজারে স্থিতিশীল সরবরাহ এবং ইউক্রেন থেকে শস্য রফতানি পুনরুদ্ধারের কারণে এমনটা ঘটবে বলে জানায় বিশ্বব্যাংক।

এমনকি, বৈশ্বিক মন্দার আশঙ্কার কারণে ২০২৩ সালে ধাতুর দাম ১৫ শতাংশ হ্রাস পাবে বলেও অনুমান করা হয়েছে বিশ্বব্যাংকের এই প্রতিবেদনে।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

জ্বালানির দাম নিয়ে বিশ্বব্যাংকের সুখবর

আপডেট সময় : ০৪:৩২:৪২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৮ অক্টোবর ২০২২

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : 

চলতি বছর জ্বালানির দাম গত বছরের তুলনায় অনেকটাই বেড়েছে। তবে আগামী বছর দাম কিছুটা কমে আসবে। শুধু জ্বালানিই নয়, গমসহ আরও অনেক পণ্যের দামও কমবে। এমনটাই বলছে বিশ্বব্যাংক।

বুধবার (২৬ অক্টোবর) বাজার বিষয়ক সবশেষ মূল্যায়নে আন্তর্জাতিক ঋণদানকারী সংস্থাটি বলেছে, ইউক্রেনে রাশিয়ার সামরিক অভিযানের কারণে জ্বালানির বাজার অস্থির হয়ে ওঠে। ফলে চলতি বছর এখন পর্যন্ত জ্বালানির মূল্য ৬০ শতাংশ বেড়েছে।

বিশ্বব্যাংকের মতে, জ্বালানির মূল্যবৃদ্ধির এ প্রবণতায় আগামী কয়েক মাসের মধ্যে উল্টোস্রোত তৈরি হবে। ফলে ২০২৩ সালে জ্বালানির দাম ১১ শতাংশ হ্রাস পাবে। এরপর মন্থর অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ও চীনের করোনা বিধিনিষেধের কারণে জ্বালানির দাম আরও কমতে পারে।

বর্তমানে বৃহস্পতিবার (২৭ অক্টোবর পর্যন্ত) আন্তর্জাতিক বাজারে অপরিশোধিত জ্বালানির গড় দাম ৯৬.৬২ ডলার।

বিশ্বব্যাংকের প্রতিবেদন মতে, ২০২৩ সালে এই দাম ৯২ ডলারে নেমে আসবে। পরের বছর অর্থাৎ ২০২৪ সালে তা আরও কমে ৮০ ডলারে দাঁড়াবে। তবে দাম কমলেও তা হবে গত পাঁচ বছরের গড় দাম থেকে ৭৫ শতাংশ বেশি।

এছাড়া আগামী বছর কৃষিপণ্যের দাম ৫ শতাংশ কমবে বলেও আশা করা হচ্ছে। ২০২২ সালের তৃতীয় প্রান্তিকে গমের দাম প্রায় ২০ শতাংশ কমেছে। তবে এক বছর আগের তুলনায় তা ২৪ শতাংশ বেশিই।

২০২৩ সালে বিশ্বে গমের ভালো ফলন, চালের বাজারে স্থিতিশীল সরবরাহ এবং ইউক্রেন থেকে শস্য রফতানি পুনরুদ্ধারের কারণে এমনটা ঘটবে বলে জানায় বিশ্বব্যাংক।

এমনকি, বৈশ্বিক মন্দার আশঙ্কার কারণে ২০২৩ সালে ধাতুর দাম ১৫ শতাংশ হ্রাস পাবে বলেও অনুমান করা হয়েছে বিশ্বব্যাংকের এই প্রতিবেদনে।