ঢাকা ০৪:০১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

জাতিসংঘের নির্দেশনা মানবে না, হামলা চালিয়ে যাবে: ইসরায়েলি পররাষ্ট্রমন্ত্রী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০১:৫৩:২৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ মার্চ ২০২৪
  • / ৪৫৮ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিশোধে গাজায় অবিলম্বে যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব পাস হলেও তা মানবে না ইসরায়েল। এ প্রস্তাবকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে গাজায় হামলা অব্যাহত রাখার কথা জানিয়েছেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইসরায়েল কাটজ। সোমবার (২৫ মার্চ) তিনি এ কথা বলেন। খবর আনাদলু এজেন্সি

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এক্স প্লাফটর্মে দেওয়া এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, ইসরায়েল যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব মানবে না। আমরা হামাসকে ধ্বংস করতে চাই। এছাড়া আমরা আমাদের জিম্মিদের ফিরিয়ে না আনা পর্যন্ত সেখানে হামলা চালিয়ে যাব।

সোমবার জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ পবিত্র মাস রমজানে গাজায় যুদ্ধবিরতির দাবিতে একটি প্রস্তাব পাস করেছে। পবিত্র এই মাসটি মধ্যপ্রাচ্যে গত ১১ মার্চ থেকে শুরু হয়েছে এবং আগামী ৯ এপ্রিল শেষ হতে পারে।

কাউন্সিলের নির্বাচিত ১০ সদস্যের উপস্থিতিতে গাজায় যুদ্ধবিরতির প্রস্তাবে ১৪টি দেশ ভোট দিয়েছে। তবে ভোট দানে বিরত ছিল যুক্তরাষ্ট্র এবং এ প্রস্তাবে তারা ভেটোও দেয়নি।

জাতিসংঘে নিযুক্ত ইসরায়েলের দূত গিলাদ এরদান দাবি করেছেন, জাতিসংঘের এই প্রস্তাব গাজা থেকে ইসরায়েলি বন্দিদের মুক্তি ‘নিশ্চিত করার প্রচেষ্টাকে দুর্বল করবে’।

প্রস্তাবে পবিত্র রমজানকে কেন্দ্র করে দ্রুত সময়ের মধ্যে গাজায় যুদ্ধ বন্ধের আহ্বান জানানো হয়েছে। এছাড়া সব দলকে স্থায়ীভাবে এ যুদ্ধ বন্ধে এগিয়ে আসার আহ্বান জানানো হয়েছে।

এই প্রস্তাবে ‘সমস্ত বন্দির অবিলম্বে এবং নিঃশর্ত মুক্তির পাশাপাশি তাদের চিকিৎসা এবং অন্যান্য মানবিক চাহিদা পূরণের জন্য মানবিক সহায়তার প্রবেশ নিশ্চিত করার’ দাবিও করা হয়েছে।

এদিকে ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজা ভূখণ্ডে ইসরায়েলি বর্বর হামলায় আরও শতাধিক ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। এতে করে উপত্যকাটিতে নিহতের মোট সংখ্যা পৌঁছেছে ৩২ হাজার ৩৩৩ জনে।

নিউজটি শেয়ার করুন

জাতিসংঘের নির্দেশনা মানবে না, হামলা চালিয়ে যাবে: ইসরায়েলি পররাষ্ট্রমন্ত্রী

আপডেট সময় : ০১:৫৩:২৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ মার্চ ২০২৪

জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিশোধে গাজায় অবিলম্বে যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব পাস হলেও তা মানবে না ইসরায়েল। এ প্রস্তাবকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে গাজায় হামলা অব্যাহত রাখার কথা জানিয়েছেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইসরায়েল কাটজ। সোমবার (২৫ মার্চ) তিনি এ কথা বলেন। খবর আনাদলু এজেন্সি

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এক্স প্লাফটর্মে দেওয়া এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, ইসরায়েল যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব মানবে না। আমরা হামাসকে ধ্বংস করতে চাই। এছাড়া আমরা আমাদের জিম্মিদের ফিরিয়ে না আনা পর্যন্ত সেখানে হামলা চালিয়ে যাব।

সোমবার জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ পবিত্র মাস রমজানে গাজায় যুদ্ধবিরতির দাবিতে একটি প্রস্তাব পাস করেছে। পবিত্র এই মাসটি মধ্যপ্রাচ্যে গত ১১ মার্চ থেকে শুরু হয়েছে এবং আগামী ৯ এপ্রিল শেষ হতে পারে।

কাউন্সিলের নির্বাচিত ১০ সদস্যের উপস্থিতিতে গাজায় যুদ্ধবিরতির প্রস্তাবে ১৪টি দেশ ভোট দিয়েছে। তবে ভোট দানে বিরত ছিল যুক্তরাষ্ট্র এবং এ প্রস্তাবে তারা ভেটোও দেয়নি।

জাতিসংঘে নিযুক্ত ইসরায়েলের দূত গিলাদ এরদান দাবি করেছেন, জাতিসংঘের এই প্রস্তাব গাজা থেকে ইসরায়েলি বন্দিদের মুক্তি ‘নিশ্চিত করার প্রচেষ্টাকে দুর্বল করবে’।

প্রস্তাবে পবিত্র রমজানকে কেন্দ্র করে দ্রুত সময়ের মধ্যে গাজায় যুদ্ধ বন্ধের আহ্বান জানানো হয়েছে। এছাড়া সব দলকে স্থায়ীভাবে এ যুদ্ধ বন্ধে এগিয়ে আসার আহ্বান জানানো হয়েছে।

এই প্রস্তাবে ‘সমস্ত বন্দির অবিলম্বে এবং নিঃশর্ত মুক্তির পাশাপাশি তাদের চিকিৎসা এবং অন্যান্য মানবিক চাহিদা পূরণের জন্য মানবিক সহায়তার প্রবেশ নিশ্চিত করার’ দাবিও করা হয়েছে।

এদিকে ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজা ভূখণ্ডে ইসরায়েলি বর্বর হামলায় আরও শতাধিক ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। এতে করে উপত্যকাটিতে নিহতের মোট সংখ্যা পৌঁছেছে ৩২ হাজার ৩৩৩ জনে।