ঢাকা ১১:৪০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

জাতিসংঘের তত্ত্বাবধানে নির্বাচন চায় জাতীয়তাবাদী সমমনা জোট

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৪:০৬:৫৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ৫ অগাস্ট ২০২৩
  • / ৪৪৬ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নিজস্ব প্রতিবেদক : জাতীয়তাবাদী সমমনা জোটের সমন্বয়ক ও এনপিপির চেয়ারম্যান ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদ বলেছেন, ‘শেখ হাসিনা সরকারের অধীনে এদেশে কোনো নির্বাচন হবে না। জনগণ আর কোনো প্রহসনের নির্বাচন হতে দেবে না। নির্বাচন হতে হবে নির্দলীয়-নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে। প্রয়োজনে জাতিসংঘের তত্ত্বাবধানে নির্বাচন হতে হবে।’

আজ শনিবার (৫ আগস্ট) দুপুরে রাজধানীর পুরানা পল্টন মোড় সংলগ্ন আল রাজি কমপ্লেক্সের সামনে এক প্রতিবাদ সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদ। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও তার স্ত্রী ডা. জুবাইদা রহমানকে সাজা দেওয়ার প্রতিবাদে জাতীয়তাবাদী সমমনা জোটের উদ্যোগে এ সমাবেশ হয়।

ফরিদুজ্জামান ফরহাদ বলেন, ‘শেখ হাসিনা ও আওয়ামী লীগ জিয়া পরিবার ও বিএনপিকে অত্যন্ত ভয় পায়। কারণ, সুষ্ঠু নির্বাচন হলে এবং বিএনপি নির্বাচনে থাকলে আওয়ামী লীগ কখনো জয়লাভ করতে পারবে না। সে কারণে বিএনপিকে নিশ্চিহ্ন করতে নানান ষড়যন্ত্র করছে। তারেক রহমান ও ডা. জুবাইদা রহমানের বিরুদ্ধে এই রায় তারই অংশ। জাতীয়তাবাদী সমমনা জোট এই ফরমায়েশি রায়ের নিন্দা জানায়।’

এনপিপির চেয়ারম্যান ড. ফরহাদ আরও বলেন, ‘শেখ হাসিনা সরকারের পদত্যাগ ও নির্দলীয়-নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের একদফা দাবিতে আন্দোলন চলছে। জনগণ ইতোমধ্যে এই আন্দোলনে সম্পৃক্ত হয়েছে। ফলে ছয়-নয় করে বেশিদিন ক্ষমতায় থাকা যাবে না। সরকারের পতন অতি সন্নিকটে।’

জাতীয়তাবাদী সমমনা জোটের এই সমন্বয়ক বলেন, ‘দফা এক দাবি এক, শেখ হাসিনা সরকারের পদত্যাগ। অবিলম্বে এই সরকারকে পদত্যাগ এবং নির্বাচন কমিশন ও সংসদ বিলুপ্ত করে নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচনের ব্যবস্থা করতে হবে। অন্যথায়, জনগণ আন্দোলনের মাধ্যমে এই সরকারকে বিদায় করে দাবি আদায় করবে। তখন ক্ষমতাসীনরা পালানোর পথও পাবে না।’

এনপিপির মহাসচিব মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তফার সঞ্চালনায় সমাবেশে আরও বক্তব্য দেন জাগপার সভাপতি খন্দকার লুৎফর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক এস এম শাহাদাত, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক ডা. সৈয়দ নুরুল ইসলাম, বিকল্পধারার মহাসচিব শাহ আহমেদ বাদল, বাংলাদেশ ন্যাপের চেয়ারম্যান এম এন শাওন সাদেকী ও মহাসচিব ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল বারিক, বাংলাদেশ মাইনরিটি জনতা পার্টির চেয়ারম্যান সুকৃতি কুমার মণ্ডল, এনপিপির নবী চৌধুরী, মো. ফখরুজ্জামান প্রমুখ।

সমাবেশ শেষে ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদের নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিল করা হয়। মিছিলটি পল্টন মোড় ও জাতীয় প্রেসক্লাব হয়ে পুনরায় পল্টন মোড়ে এসে শেষ হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

জাতিসংঘের তত্ত্বাবধানে নির্বাচন চায় জাতীয়তাবাদী সমমনা জোট

আপডেট সময় : ০৪:০৬:৫৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ৫ অগাস্ট ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক : জাতীয়তাবাদী সমমনা জোটের সমন্বয়ক ও এনপিপির চেয়ারম্যান ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদ বলেছেন, ‘শেখ হাসিনা সরকারের অধীনে এদেশে কোনো নির্বাচন হবে না। জনগণ আর কোনো প্রহসনের নির্বাচন হতে দেবে না। নির্বাচন হতে হবে নির্দলীয়-নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে। প্রয়োজনে জাতিসংঘের তত্ত্বাবধানে নির্বাচন হতে হবে।’

আজ শনিবার (৫ আগস্ট) দুপুরে রাজধানীর পুরানা পল্টন মোড় সংলগ্ন আল রাজি কমপ্লেক্সের সামনে এক প্রতিবাদ সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদ। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও তার স্ত্রী ডা. জুবাইদা রহমানকে সাজা দেওয়ার প্রতিবাদে জাতীয়তাবাদী সমমনা জোটের উদ্যোগে এ সমাবেশ হয়।

ফরিদুজ্জামান ফরহাদ বলেন, ‘শেখ হাসিনা ও আওয়ামী লীগ জিয়া পরিবার ও বিএনপিকে অত্যন্ত ভয় পায়। কারণ, সুষ্ঠু নির্বাচন হলে এবং বিএনপি নির্বাচনে থাকলে আওয়ামী লীগ কখনো জয়লাভ করতে পারবে না। সে কারণে বিএনপিকে নিশ্চিহ্ন করতে নানান ষড়যন্ত্র করছে। তারেক রহমান ও ডা. জুবাইদা রহমানের বিরুদ্ধে এই রায় তারই অংশ। জাতীয়তাবাদী সমমনা জোট এই ফরমায়েশি রায়ের নিন্দা জানায়।’

এনপিপির চেয়ারম্যান ড. ফরহাদ আরও বলেন, ‘শেখ হাসিনা সরকারের পদত্যাগ ও নির্দলীয়-নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের একদফা দাবিতে আন্দোলন চলছে। জনগণ ইতোমধ্যে এই আন্দোলনে সম্পৃক্ত হয়েছে। ফলে ছয়-নয় করে বেশিদিন ক্ষমতায় থাকা যাবে না। সরকারের পতন অতি সন্নিকটে।’

জাতীয়তাবাদী সমমনা জোটের এই সমন্বয়ক বলেন, ‘দফা এক দাবি এক, শেখ হাসিনা সরকারের পদত্যাগ। অবিলম্বে এই সরকারকে পদত্যাগ এবং নির্বাচন কমিশন ও সংসদ বিলুপ্ত করে নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচনের ব্যবস্থা করতে হবে। অন্যথায়, জনগণ আন্দোলনের মাধ্যমে এই সরকারকে বিদায় করে দাবি আদায় করবে। তখন ক্ষমতাসীনরা পালানোর পথও পাবে না।’

এনপিপির মহাসচিব মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তফার সঞ্চালনায় সমাবেশে আরও বক্তব্য দেন জাগপার সভাপতি খন্দকার লুৎফর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক এস এম শাহাদাত, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক ডা. সৈয়দ নুরুল ইসলাম, বিকল্পধারার মহাসচিব শাহ আহমেদ বাদল, বাংলাদেশ ন্যাপের চেয়ারম্যান এম এন শাওন সাদেকী ও মহাসচিব ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল বারিক, বাংলাদেশ মাইনরিটি জনতা পার্টির চেয়ারম্যান সুকৃতি কুমার মণ্ডল, এনপিপির নবী চৌধুরী, মো. ফখরুজ্জামান প্রমুখ।

সমাবেশ শেষে ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদের নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিল করা হয়। মিছিলটি পল্টন মোড় ও জাতীয় প্রেসক্লাব হয়ে পুনরায় পল্টন মোড়ে এসে শেষ হয়।