ঢাকা ১২:০৩ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হতে পারে ১৫ জেলা

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০২:৫৪:০৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ অক্টোবর ২০২২
  • / ৪৪৯ বার পড়া হয়েছে

ফাইল ছবি

বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নিজস্ব প্রতিবেদক : 
সাতক্ষীরা, খুলনা, বাগেরহাট, ঝালকাঠি, পিরোজপুর, বরগুনা, পটুয়াখালী, ভোলা, বরিশাল, লক্ষ্মীপুর, চাঁদপুর, নোয়াখালী, ফেনী, চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরগুলোর নিম্নাঞ্চল স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে ৫-৭ ফুট অধিক উচ্চতার জলোচ্ছাসে প্লাবিত হতে পারে বলে জানান আবহাওয়া অধিদফতর।

ঘূর্ণিঝড় সিত্রাং-এর অগ্রবর্তী অংশ, অমাবশ্যা তিথি ও বায়ুচাপ পার্থক্যের আধিক্যের প্রভাবে এই জলোচ্ছ্বাসের আশঙ্কা করা হচ্ছে।

এদিকে দেশের উপকূলীয় জেলাগুলোর মধ্যে বরগুনা-পটুয়াখালীতে সিত্রাং-এর প্রভাব পড়বে সবচেয়ে বেশি পড়তে পারে বলে জানিয়েছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান।
সোমবার (২৪ অক্টোবর) সচিবালয়ে একটি সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান প্রতিমন্ত্রী।

তিনি আরো জানান, বরগুনা সদর ও পটুয়াখালীর কলাপাড়াতে এ ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাব সবচেয়ে বেশি পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

বিপদ সংকেত কত পর্যন্ত যেতে পারে? একজন সাংবাদিকের এই প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী বলেন, এটা মহাবিপদ সংকেত পর্যন্ত যেতে পারে।

এছাড়া আজ সন্ধ্যায় ঘূর্ণিঝড়টির অগ্রভাগ বাংলাদেশের উপকূলে আঘাত হানবে এবং কাল সকাল ৬টা থেকে ৭টার দিকে ঘূর্ণিঝড়টির কেন্দ্র বাংলাদেশের উপকূল অতিক্রম করবে বলেও জানান প্রতিমন্ত্রী।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হতে পারে ১৫ জেলা

আপডেট সময় : ০২:৫৪:০৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ অক্টোবর ২০২২

নিজস্ব প্রতিবেদক : 
সাতক্ষীরা, খুলনা, বাগেরহাট, ঝালকাঠি, পিরোজপুর, বরগুনা, পটুয়াখালী, ভোলা, বরিশাল, লক্ষ্মীপুর, চাঁদপুর, নোয়াখালী, ফেনী, চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরগুলোর নিম্নাঞ্চল স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে ৫-৭ ফুট অধিক উচ্চতার জলোচ্ছাসে প্লাবিত হতে পারে বলে জানান আবহাওয়া অধিদফতর।

ঘূর্ণিঝড় সিত্রাং-এর অগ্রবর্তী অংশ, অমাবশ্যা তিথি ও বায়ুচাপ পার্থক্যের আধিক্যের প্রভাবে এই জলোচ্ছ্বাসের আশঙ্কা করা হচ্ছে।

এদিকে দেশের উপকূলীয় জেলাগুলোর মধ্যে বরগুনা-পটুয়াখালীতে সিত্রাং-এর প্রভাব পড়বে সবচেয়ে বেশি পড়তে পারে বলে জানিয়েছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান।
সোমবার (২৪ অক্টোবর) সচিবালয়ে একটি সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান প্রতিমন্ত্রী।

তিনি আরো জানান, বরগুনা সদর ও পটুয়াখালীর কলাপাড়াতে এ ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাব সবচেয়ে বেশি পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

বিপদ সংকেত কত পর্যন্ত যেতে পারে? একজন সাংবাদিকের এই প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী বলেন, এটা মহাবিপদ সংকেত পর্যন্ত যেতে পারে।

এছাড়া আজ সন্ধ্যায় ঘূর্ণিঝড়টির অগ্রভাগ বাংলাদেশের উপকূলে আঘাত হানবে এবং কাল সকাল ৬টা থেকে ৭টার দিকে ঘূর্ণিঝড়টির কেন্দ্র বাংলাদেশের উপকূল অতিক্রম করবে বলেও জানান প্রতিমন্ত্রী।