ঢাকা ০৯:০৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

জলবায়ু পরিবর্তন : বাংলাদেশকে ৬ লাখ ইউরো দিচ্ছে ইইউ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১০:২৭:২৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৬ অক্টোবর ২০২২
  • / ৪৮৩ বার পড়া হয়েছে

ফাইল ছবি

বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নিজস্ব প্রতিবেদক : 

জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাবগুলো কাটাতে বাংলাদেশের একটি প্রকল্পে ৬ লাখ ইউরো অনুদান দিচ্ছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)।

‘লাইভস ইন ডিগনিটি গ্র্যান্ট ফ্যাসিলিটি’ থেকে এই অনুদান পাবে বাংলাদেশ। ‘উত্তরণ’ এবং ‘এডুকেশন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশন’ নামে বাংলাদেশের দুটি বেসরকারি সংস্থা ওই প্রকল্প বাস্তবায়ন করবে।

এক বিবৃতিতে ইইউ বলেছে, পরিবেশগত পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবেলায় প্রকল্পটি প্রয়োজনীয় জ্ঞান ও দক্ষতা অর্জন, অর্থায়ন ও অন্যান্য কাজে সহায়তা করবে।

জলবায়ু পরিবর্তন এবং দুর্যোগ বৃদ্ধির ঝুঁকির কথা তুলে ধরে বিবৃতিতে বলা হয়, ক্রমবর্ধমান শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড়ের কারণে বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের সাতক্ষীরা জেলা বছরের ছয় মাস পর্যন্ত পানির নিচে থাকার শঙ্কা তৈরি হচ্ছে। সেখানে মাটির লবণাক্ততা বাড়ছে এবং উপকূলীয় কৃষিজীবী মানুষের বেকারত্ব বাড়ছে।

শহুরে এলাকায় যেতে বাধ্য হওয়া বেশিরভাগ মানুষের আশ্রয় হয় বস্তিতে। যেখানে নারীরা সহিংসতার ঝুঁকির সম্মুখীন হন সবচেয়ে বেশি। নারী ও মেয়েদের সহায়তায় জোর দিয়ে সাতক্ষীরার শহরাঞ্চলের বস্তিতে বাসকারীদের সহায়তা করা হবে এ প্রকল্পের মাধ্যমে।

ইইউ বলছে, এ প্রকল্পের মাধ্যমে বস্তিবাসীর শিক্ষা, পানি ও স্যানিটেশন ব্যবস্থার উন্নয়ন করা হবে। অর্থ ও প্রযুক্তি উভয় ক্ষেত্রেই দক্ষতা ও অন্যান্য সহায়তা দেওয়া হবে, যাতে মানুষের আয়ের ব্যবস্থা তৈরি হয়।

২০২০ সালে ‘লাইভস ইন ডিগনিটি গ্র্যান্ট ফ্যাসিলিটি’ গঠন করা হয়। বিশ্বে দীর্ঘস্থায়ী বাস্তুচ্যুতির সংকট মোকাবেলায় সমাধানের পথ দেখাতে এ তহবিল গঠন করে ইইউ।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

জলবায়ু পরিবর্তন : বাংলাদেশকে ৬ লাখ ইউরো দিচ্ছে ইইউ

আপডেট সময় : ১০:২৭:২৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৬ অক্টোবর ২০২২

নিজস্ব প্রতিবেদক : 

জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাবগুলো কাটাতে বাংলাদেশের একটি প্রকল্পে ৬ লাখ ইউরো অনুদান দিচ্ছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)।

‘লাইভস ইন ডিগনিটি গ্র্যান্ট ফ্যাসিলিটি’ থেকে এই অনুদান পাবে বাংলাদেশ। ‘উত্তরণ’ এবং ‘এডুকেশন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশন’ নামে বাংলাদেশের দুটি বেসরকারি সংস্থা ওই প্রকল্প বাস্তবায়ন করবে।

এক বিবৃতিতে ইইউ বলেছে, পরিবেশগত পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবেলায় প্রকল্পটি প্রয়োজনীয় জ্ঞান ও দক্ষতা অর্জন, অর্থায়ন ও অন্যান্য কাজে সহায়তা করবে।

জলবায়ু পরিবর্তন এবং দুর্যোগ বৃদ্ধির ঝুঁকির কথা তুলে ধরে বিবৃতিতে বলা হয়, ক্রমবর্ধমান শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড়ের কারণে বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের সাতক্ষীরা জেলা বছরের ছয় মাস পর্যন্ত পানির নিচে থাকার শঙ্কা তৈরি হচ্ছে। সেখানে মাটির লবণাক্ততা বাড়ছে এবং উপকূলীয় কৃষিজীবী মানুষের বেকারত্ব বাড়ছে।

শহুরে এলাকায় যেতে বাধ্য হওয়া বেশিরভাগ মানুষের আশ্রয় হয় বস্তিতে। যেখানে নারীরা সহিংসতার ঝুঁকির সম্মুখীন হন সবচেয়ে বেশি। নারী ও মেয়েদের সহায়তায় জোর দিয়ে সাতক্ষীরার শহরাঞ্চলের বস্তিতে বাসকারীদের সহায়তা করা হবে এ প্রকল্পের মাধ্যমে।

ইইউ বলছে, এ প্রকল্পের মাধ্যমে বস্তিবাসীর শিক্ষা, পানি ও স্যানিটেশন ব্যবস্থার উন্নয়ন করা হবে। অর্থ ও প্রযুক্তি উভয় ক্ষেত্রেই দক্ষতা ও অন্যান্য সহায়তা দেওয়া হবে, যাতে মানুষের আয়ের ব্যবস্থা তৈরি হয়।

২০২০ সালে ‘লাইভস ইন ডিগনিটি গ্র্যান্ট ফ্যাসিলিটি’ গঠন করা হয়। বিশ্বে দীর্ঘস্থায়ী বাস্তুচ্যুতির সংকট মোকাবেলায় সমাধানের পথ দেখাতে এ তহবিল গঠন করে ইইউ।