ঢাকা ০৩:২৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

জয়ে ফিরল ম্যানইউ, হেরেছে নিউক্যাসল

ক্রীড়া ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ১২:১৭:৩৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৭ ডিসেম্বর ২০২৩
  • / ৪৫৫ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

বক্সিং ডেতে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে উঠে এলো লিভারপুল। বার্নলিকে ২-০ গোলে হারিয়েছে অলরেডস। আর হারের বৃত্ত থেকে বেরিয়ে এলো ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। অ্যাস্টন ভিলার বিপক্ষে ২-০ গোলে পিছিয়ে পরেও আলেহান্দ্রো গারনাচোর জোড়া গোলে জিতেছে রেড ডেভিলস। রুদ্ধশ্বাস ম্যাচ জিতে পয়েন্ট টেবিলের ছয়ে ম্যানইউ। তবে নটিংহ্যাম ফরেস্টের কাছে হেরে গেছে নিউক্যাসল।

আগের ম্যাচে আর্সেনালের সঙ্গে না পারলেও এবার বার্নলির বিপক্ষে সুযোগ কাজে লাগিয়েছে লিভারপুল। গানারদের চেয়ে দুই পয়েন্ট বেশি নিয়ে টেবিলের শীর্ষে অলরেডস। যদিও খেলেছে এক ম্যাচ বেশি।

লিগে টানা দুই ম্যাচ ড্রয়ের পর এদিন টার্ফ মুরে আক্রমণের পসরা সাজিয়ে বসেছিল য়্যুর্গেন ক্লপ শীষ্যরা। লিড নিতেও সময় নেয়নি। ম্যাচের ছয় মিনিটে কোডি গাকপোর পাস পূর্ণতা দেন দারউইন নুনেস। মৌসুমে ক্লাব জার্সিতে অষ্টম গোল উরুগুইয়ান ফরোয়ার্ডের।

এরপর রেলিগেশন জোনে থাকা বার্নলির রক্ষণভাগের কঠিন পরীক্ষা নেন মোহামেদ সালাহ, ট্রেন্ট আলেকজান্ডার আর্নল্ড, জো গোমেসরা। তবে বাধার দেয়াল হয়ে ছিলেন গোলরক্ষক জেমস ট্রাফোর্ড। যদিও প্রথমার্ধে ও দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে দু’বার এগিয়ে যেতে পারত লিভারপুল। বল জালে পাঠিয়েছিলেন কোডি গ্যাকপো ও হার্ভি এলিয়ট। তবে প্রথমটি ফাউল আর দ্বিতীয়টি পূর্ণতা পায়নি অফসাইডে।

নির্ধারিত সময়ের শেষ মিনিটে আর আটকাতে পারেননি ট্র্যাফোর্ড। লুইস দিয়াজের বাড়ানো বল গোলে রূপ দেন দিয়েগো জোতা। ম্যাচে ১০টি অন টার্গেটে শট নেন য়্যুর্গেন ক্লপ শীষ্যরা। বিপরীতে বার্নলি নিতে পারেনি একটিও।

এদিকে হারের বৃত্ত থেকে বেরিয়ে এসেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। চার ম্যাচ পর জয়ের দেখা পেল এরিক টেন হাগের দল। তবে ম্যাচের শুরুর গল্পটা ভিন্ন। ওল্ড ট্রাফোর্ডে পাঁচ মিনিটের ব্যবধানে দুই গোলে পিছিয়ে পরে রেড ডেভিলস। জন ম্যাকগিনের ফ্রি কিক সবাইকে ফাকি দেন।

প্রথম গোলের রেশ না কাটতেই আবারও স্তব্ধ ওল্ড ট্রাফোর্ড। স্কোরশিটে নাম লেখান বেলজিয়ান মিডফিল্ডার লিয়ান্দার দেনদোনকার। প্রথমার্ধ অ্যাস্টন ভিলার হলে দ্বিতীয়ার্ধ ম্যান ইউর। এমিলিয়ানো মার্টিনেজকে পরাস্ত করে বল জালে পাঠান আলেহান্দ্রো গারনাচো। তবে অফসাইডের ফাঁদে আর্জেন্টাইন তারকা।

ম্যাচে ফিরতে মরিয়া ইউনাইটেড অবশেষে গোলের দেখা পায়। এবার আর ভুল করেননি গারনাচো। ডি-বক্সের ভেতর র‍্যাশফোর্ডের পাস থেকে ব্যবধান কমান ১৯ বছরের তরুণ। ১২ মিনিটের ব্যবধানে নিজের জোড়া গোল পূর্ণ করেন আলেহান্দ্রো গারনাচো। সমতায় ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।

রেড ডেভিল জার্সিতে নিজের প্রথমটা গোলটা স্মরনীয় করে রাখেন রাসমুস হোলান্ড। তার নিখুঁত ফিনিশিংয়ে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। জয়ে পয়েন্ট টেবিলের সঙ্গে ছয়ে উঠে এলো এরিক টেন হাগ শীষ্যরা। আর সাত ম্যাচ পর হারের স্বাদ পেল অ্যাস্টন ভিলা।

নিউজটি শেয়ার করুন

জয়ে ফিরল ম্যানইউ, হেরেছে নিউক্যাসল

আপডেট সময় : ১২:১৭:৩৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৭ ডিসেম্বর ২০২৩

বক্সিং ডেতে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে উঠে এলো লিভারপুল। বার্নলিকে ২-০ গোলে হারিয়েছে অলরেডস। আর হারের বৃত্ত থেকে বেরিয়ে এলো ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। অ্যাস্টন ভিলার বিপক্ষে ২-০ গোলে পিছিয়ে পরেও আলেহান্দ্রো গারনাচোর জোড়া গোলে জিতেছে রেড ডেভিলস। রুদ্ধশ্বাস ম্যাচ জিতে পয়েন্ট টেবিলের ছয়ে ম্যানইউ। তবে নটিংহ্যাম ফরেস্টের কাছে হেরে গেছে নিউক্যাসল।

আগের ম্যাচে আর্সেনালের সঙ্গে না পারলেও এবার বার্নলির বিপক্ষে সুযোগ কাজে লাগিয়েছে লিভারপুল। গানারদের চেয়ে দুই পয়েন্ট বেশি নিয়ে টেবিলের শীর্ষে অলরেডস। যদিও খেলেছে এক ম্যাচ বেশি।

লিগে টানা দুই ম্যাচ ড্রয়ের পর এদিন টার্ফ মুরে আক্রমণের পসরা সাজিয়ে বসেছিল য়্যুর্গেন ক্লপ শীষ্যরা। লিড নিতেও সময় নেয়নি। ম্যাচের ছয় মিনিটে কোডি গাকপোর পাস পূর্ণতা দেন দারউইন নুনেস। মৌসুমে ক্লাব জার্সিতে অষ্টম গোল উরুগুইয়ান ফরোয়ার্ডের।

এরপর রেলিগেশন জোনে থাকা বার্নলির রক্ষণভাগের কঠিন পরীক্ষা নেন মোহামেদ সালাহ, ট্রেন্ট আলেকজান্ডার আর্নল্ড, জো গোমেসরা। তবে বাধার দেয়াল হয়ে ছিলেন গোলরক্ষক জেমস ট্রাফোর্ড। যদিও প্রথমার্ধে ও দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে দু’বার এগিয়ে যেতে পারত লিভারপুল। বল জালে পাঠিয়েছিলেন কোডি গ্যাকপো ও হার্ভি এলিয়ট। তবে প্রথমটি ফাউল আর দ্বিতীয়টি পূর্ণতা পায়নি অফসাইডে।

নির্ধারিত সময়ের শেষ মিনিটে আর আটকাতে পারেননি ট্র্যাফোর্ড। লুইস দিয়াজের বাড়ানো বল গোলে রূপ দেন দিয়েগো জোতা। ম্যাচে ১০টি অন টার্গেটে শট নেন য়্যুর্গেন ক্লপ শীষ্যরা। বিপরীতে বার্নলি নিতে পারেনি একটিও।

এদিকে হারের বৃত্ত থেকে বেরিয়ে এসেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। চার ম্যাচ পর জয়ের দেখা পেল এরিক টেন হাগের দল। তবে ম্যাচের শুরুর গল্পটা ভিন্ন। ওল্ড ট্রাফোর্ডে পাঁচ মিনিটের ব্যবধানে দুই গোলে পিছিয়ে পরে রেড ডেভিলস। জন ম্যাকগিনের ফ্রি কিক সবাইকে ফাকি দেন।

প্রথম গোলের রেশ না কাটতেই আবারও স্তব্ধ ওল্ড ট্রাফোর্ড। স্কোরশিটে নাম লেখান বেলজিয়ান মিডফিল্ডার লিয়ান্দার দেনদোনকার। প্রথমার্ধ অ্যাস্টন ভিলার হলে দ্বিতীয়ার্ধ ম্যান ইউর। এমিলিয়ানো মার্টিনেজকে পরাস্ত করে বল জালে পাঠান আলেহান্দ্রো গারনাচো। তবে অফসাইডের ফাঁদে আর্জেন্টাইন তারকা।

ম্যাচে ফিরতে মরিয়া ইউনাইটেড অবশেষে গোলের দেখা পায়। এবার আর ভুল করেননি গারনাচো। ডি-বক্সের ভেতর র‍্যাশফোর্ডের পাস থেকে ব্যবধান কমান ১৯ বছরের তরুণ। ১২ মিনিটের ব্যবধানে নিজের জোড়া গোল পূর্ণ করেন আলেহান্দ্রো গারনাচো। সমতায় ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।

রেড ডেভিল জার্সিতে নিজের প্রথমটা গোলটা স্মরনীয় করে রাখেন রাসমুস হোলান্ড। তার নিখুঁত ফিনিশিংয়ে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। জয়ে পয়েন্ট টেবিলের সঙ্গে ছয়ে উঠে এলো এরিক টেন হাগ শীষ্যরা। আর সাত ম্যাচ পর হারের স্বাদ পেল অ্যাস্টন ভিলা।