ঢাকা ১২:০১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

জনগণকে ব্লাফ দিতে চায় বিএনপি: তোফায়েল

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৪:০৫:৫০ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০২২
  • / ৪৪৭ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নিজস্ব প্রতিবেদক : 
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য ও বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ তোফায়েল আহমেদ বলেন, আমরা ৭ মার্চ রেসকোর্সে সভা করেছি, নানা আন্দোলনে বড় বড় সভা করেছি। অথচ এখন বিএনপি বলে তাদের পল্টনে সভা করতে দিতে হবে। কারণ ওখানে মাত্র ২০-৩০ হাজার লোক হলেই মঞ্চ ভরে যায়। ব্লাফ দেওয়ার জন্যে বিএনপি এটা করতে চায়।

শনিবার (০৩ ডিসেম্বর) দুপুরে বঙ্গবন্ধু ২৩ এভিনিউয়ে যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শহীদ শেখ ফজলুল হক মণির ৮৪তম জন্মদিন উপলক্ষে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

দেশের বিরুদ্ধে যড়যন্ত্র চলছে মন্তব্য করে বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ তোফায়েল বলেন, আমরা অনুমতি দিয়েছি, ছাত্রলীগের সমাবেশ দুদিন এগিয়ে নিয়েছি। সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ছেড়ে দিয়েছি। কিন্তু পল্টনে বিশৃঙ্খলা করতে সমাবেশ করতে চায় বিএনপি।

তিনি বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে চলেছে, পদ্মা সেতু, মেট্রোরেল, কর্ণফুলী টানেল সবকিছু বঙ্গবন্ধু কন্যার কারণে সম্ভব হয়েছে।

যুবলীগ কর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, কেউ যদ বিশৃঙ্খলা তৈরি করতে চায়। যুবলীগ সভাপতির নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ থাকবেন, যেন কেউ দেশ নিয়ে ছিনিমিনি খেলতে না পারে। কথায় কথায় সরকারের পতন। সরকার পতন এতো সহজ! বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ তৃণমূলে বিস্তৃত।

১০ ডিসেম্বর বিএনপির সমাবেশ নিয়ে আওয়ামী লীগের প্রবীণ নেতা বলেন, বিশৃঙ্খলার করার উদ্দেশ্যে সমাবেশ করবে বিএনপি। এই ব্যাপারে যুবলীগের সভাপতির নেতৃত্বে আপনারা সবাই ঐক্যবদ্ধ থাকবেন। সতর্ক থাকবেন। কেউ আমার দেশ নিয়ে ছিনিমিনি খেলতে না পারে।
শেখ ফজলুল হক মণি সম্পর্কে তোফায়েল আহমেদ বলেন, আমি যতটুকু হয়েছি তার সবচেয়ে অবদান শেখ ফজলুল হক মণি ভাইয়ের। উনি শুধু নেতা ছিলেন না, নেতা তৈরি করতেন। আমার সৌভাগ্য তার সঙ্গ পেয়েছিলাম।

তিনি বলেন, মণি ভাই ছিলেন আমার প্রিয় নেতা। আমি যখন বরিশালে বিএম কলেজে পড়তাম, তখন তিনি আমার হোস্টেলে গিয়েছিলেন। আমাকে বলেছিলেন, ‘তুমি আমার সঙ্গে ছাত্রলীগের রাজনীতি কর। তখন মণি ভাই ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। তারপর থেকে আমার ছাত্রলীগে যাত্রা শুরু। তার সঙ্গে আমার অনেক স্মৃতি। তাকে গ্রেফতার করার পরে ১৯৬৭ সালে মুক্তি পেয়েছিলেন। আমরা একসঙ্গে মুজিব বাহিনীতে ছিলাম।

বর্তমানে ‘খেলা হবে’ স্লোগান নিয়ে তোফায়েল আহমদে বলেন, খেলা হবে এটা কোনো রাজনৈতিক স্লোগান হতে পারে না।

যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সাংবাদিক মনজুরুল আহসান বুলবুল। যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মাইনুল হোসেন খান নিখিলের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে সংগঠনের কেন্দ্রীয় ও মহানগরের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

জনগণকে ব্লাফ দিতে চায় বিএনপি: তোফায়েল

আপডেট সময় : ০৪:০৫:৫০ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০২২

নিজস্ব প্রতিবেদক : 
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য ও বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ তোফায়েল আহমেদ বলেন, আমরা ৭ মার্চ রেসকোর্সে সভা করেছি, নানা আন্দোলনে বড় বড় সভা করেছি। অথচ এখন বিএনপি বলে তাদের পল্টনে সভা করতে দিতে হবে। কারণ ওখানে মাত্র ২০-৩০ হাজার লোক হলেই মঞ্চ ভরে যায়। ব্লাফ দেওয়ার জন্যে বিএনপি এটা করতে চায়।

শনিবার (০৩ ডিসেম্বর) দুপুরে বঙ্গবন্ধু ২৩ এভিনিউয়ে যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শহীদ শেখ ফজলুল হক মণির ৮৪তম জন্মদিন উপলক্ষে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

দেশের বিরুদ্ধে যড়যন্ত্র চলছে মন্তব্য করে বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ তোফায়েল বলেন, আমরা অনুমতি দিয়েছি, ছাত্রলীগের সমাবেশ দুদিন এগিয়ে নিয়েছি। সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ছেড়ে দিয়েছি। কিন্তু পল্টনে বিশৃঙ্খলা করতে সমাবেশ করতে চায় বিএনপি।

তিনি বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে চলেছে, পদ্মা সেতু, মেট্রোরেল, কর্ণফুলী টানেল সবকিছু বঙ্গবন্ধু কন্যার কারণে সম্ভব হয়েছে।

যুবলীগ কর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, কেউ যদ বিশৃঙ্খলা তৈরি করতে চায়। যুবলীগ সভাপতির নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ থাকবেন, যেন কেউ দেশ নিয়ে ছিনিমিনি খেলতে না পারে। কথায় কথায় সরকারের পতন। সরকার পতন এতো সহজ! বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ তৃণমূলে বিস্তৃত।

১০ ডিসেম্বর বিএনপির সমাবেশ নিয়ে আওয়ামী লীগের প্রবীণ নেতা বলেন, বিশৃঙ্খলার করার উদ্দেশ্যে সমাবেশ করবে বিএনপি। এই ব্যাপারে যুবলীগের সভাপতির নেতৃত্বে আপনারা সবাই ঐক্যবদ্ধ থাকবেন। সতর্ক থাকবেন। কেউ আমার দেশ নিয়ে ছিনিমিনি খেলতে না পারে।
শেখ ফজলুল হক মণি সম্পর্কে তোফায়েল আহমেদ বলেন, আমি যতটুকু হয়েছি তার সবচেয়ে অবদান শেখ ফজলুল হক মণি ভাইয়ের। উনি শুধু নেতা ছিলেন না, নেতা তৈরি করতেন। আমার সৌভাগ্য তার সঙ্গ পেয়েছিলাম।

তিনি বলেন, মণি ভাই ছিলেন আমার প্রিয় নেতা। আমি যখন বরিশালে বিএম কলেজে পড়তাম, তখন তিনি আমার হোস্টেলে গিয়েছিলেন। আমাকে বলেছিলেন, ‘তুমি আমার সঙ্গে ছাত্রলীগের রাজনীতি কর। তখন মণি ভাই ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। তারপর থেকে আমার ছাত্রলীগে যাত্রা শুরু। তার সঙ্গে আমার অনেক স্মৃতি। তাকে গ্রেফতার করার পরে ১৯৬৭ সালে মুক্তি পেয়েছিলেন। আমরা একসঙ্গে মুজিব বাহিনীতে ছিলাম।

বর্তমানে ‘খেলা হবে’ স্লোগান নিয়ে তোফায়েল আহমদে বলেন, খেলা হবে এটা কোনো রাজনৈতিক স্লোগান হতে পারে না।

যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সাংবাদিক মনজুরুল আহসান বুলবুল। যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মাইনুল হোসেন খান নিখিলের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে সংগঠনের কেন্দ্রীয় ও মহানগরের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।