ঢাকা ০৯:০৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

চীনে মুখে নেয়ার কোভিড টিকা চালু

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৮:১৫:১০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৭ অক্টোবর ২০২২
  • / ৪৮৫ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : 

অনেক দিন ধরে মুখে নেয়ার কোভিড টিকার কথা শোনা যাচ্ছিল। এ ক্ষেত্রে এগিয়ে গেল চীন। বিশ্বে প্রথম মুখে নেয়ার কোভিড-১৯ টিকা চালু করেছে দেশটি।

বুধবার সকালে বাণিজ্য নগরী সাংহাইয়ে নতুন এই টিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়েছে। সেই ছবি ও ভিডিও চীনের সরকারি সংবাদমাধ্যমে প্রচার হচ্ছে।

যারা এর মধ্যেই দুটি টিকা নিয়েছেন, প্রথম পর্যায়ে তাদের ‘বুস্টার’ হিসেবে মুখে নেয়ার টিকা বিনামূল্যে দেওয়া হচ্ছে। তবে পরবর্তীতে প্রাথমিক ধাপেই সুঁই-সিরিঞ্জের ব্যবহার না করে এই পদ্ধতিতে টিকাকরণ হতে পারে। বেইজিং দাবি করছে, উন্নয়নশীল দেশে দ্রুত টিকাদানের ক্ষেত্রে এই পদ্ধতি কার্যকরী হবে। মুখে টিকা নিতে সর্বোচ্চ ২০ সেকেন্ড সময় লাগে।

এ দিকে দেড় বছর ধরে সারা পৃথিবীতে টিকাদান চলছেও এখনো অনেক মানুষ এর বাইরে। চিকিৎসক ও বিজ্ঞানীরা দ্রুত টিকাকরণের কথা বললেও অনেকক্ষেত্রে পদ্ধতিকে বাধা হিসেবে দেখা হচ্ছে। সুঁই-সিরিঞ্জের বাইরে কিছু দেশে নাকে স্প্রের মাধ্যমে টিকাদান শুরু হয়েছে। এর সাথে যুক্ত হলো মুখে নেয়া টিকা।

এ পদ্ধতিতে একজন ব্যক্তি সর্বোচ্চ ২০ সেকেন্ড সময়ে টিকাটি নিতে পারেন। যারা মুখে খাওয়ার টিকা নিয়েছেন, তারা বলেছেন এর স্বাদ মিষ্টি। বেইজিং দাবি করেছে, উন্নয়নশীল দেশগুলোয় দ্রুত টিকা দেওয়ার ক্ষেত্রে এ পদ্ধতি কার্যকরী হবে। সূত্র: এপি

নিউজটি শেয়ার করুন

চীনে মুখে নেয়ার কোভিড টিকা চালু

আপডেট সময় : ০৮:১৫:১০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৭ অক্টোবর ২০২২

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : 

অনেক দিন ধরে মুখে নেয়ার কোভিড টিকার কথা শোনা যাচ্ছিল। এ ক্ষেত্রে এগিয়ে গেল চীন। বিশ্বে প্রথম মুখে নেয়ার কোভিড-১৯ টিকা চালু করেছে দেশটি।

বুধবার সকালে বাণিজ্য নগরী সাংহাইয়ে নতুন এই টিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়েছে। সেই ছবি ও ভিডিও চীনের সরকারি সংবাদমাধ্যমে প্রচার হচ্ছে।

যারা এর মধ্যেই দুটি টিকা নিয়েছেন, প্রথম পর্যায়ে তাদের ‘বুস্টার’ হিসেবে মুখে নেয়ার টিকা বিনামূল্যে দেওয়া হচ্ছে। তবে পরবর্তীতে প্রাথমিক ধাপেই সুঁই-সিরিঞ্জের ব্যবহার না করে এই পদ্ধতিতে টিকাকরণ হতে পারে। বেইজিং দাবি করছে, উন্নয়নশীল দেশে দ্রুত টিকাদানের ক্ষেত্রে এই পদ্ধতি কার্যকরী হবে। মুখে টিকা নিতে সর্বোচ্চ ২০ সেকেন্ড সময় লাগে।

এ দিকে দেড় বছর ধরে সারা পৃথিবীতে টিকাদান চলছেও এখনো অনেক মানুষ এর বাইরে। চিকিৎসক ও বিজ্ঞানীরা দ্রুত টিকাকরণের কথা বললেও অনেকক্ষেত্রে পদ্ধতিকে বাধা হিসেবে দেখা হচ্ছে। সুঁই-সিরিঞ্জের বাইরে কিছু দেশে নাকে স্প্রের মাধ্যমে টিকাদান শুরু হয়েছে। এর সাথে যুক্ত হলো মুখে নেয়া টিকা।

এ পদ্ধতিতে একজন ব্যক্তি সর্বোচ্চ ২০ সেকেন্ড সময়ে টিকাটি নিতে পারেন। যারা মুখে খাওয়ার টিকা নিয়েছেন, তারা বলেছেন এর স্বাদ মিষ্টি। বেইজিং দাবি করেছে, উন্নয়নশীল দেশগুলোয় দ্রুত টিকা দেওয়ার ক্ষেত্রে এ পদ্ধতি কার্যকরী হবে। সূত্র: এপি