ঢাকা ০১:৪৮ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

চীনকে বিশ্বের প্রয়োজন : শি

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:৩৯:৩৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ অক্টোবর ২০২২
  • / ৪৫৯ বার পড়া হয়েছে

চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিন পিং

বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নিজস্ব প্রতিবেদক : 
চীনে ঐতিহাসিকভাবে তৃতীয় মেয়াদে নেতৃত্ব পেয়েছেন শি জিন পিং। তৃতীয় মেয়াদে নির্বাচিত হওয়ার পর চীনের সবচেয়ে শক্তিশালী শাসক মাও সে তুংয়ের পরই শির অবস্থান পোক্ত হয়েছে। মাও গণপ্রজাতান্ত্রিক চীনের প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন। এএফপির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।
প্রতিবেদনে বলা হয়, রোববার (২৩ অক্টোবর) চীনা কমিউনিস্ট দলের কেন্দ্রীয় কমিটি আবার শিকে সাধারণ সম্পাদক হিসেবে নির্বাচিত করেছে। নির্বাচিত হওয়ার পর শি জিন পিং গণমাধ্যমের উদ্দেশে বলেন, চীনকে বিশ্বের প্রয়োজন। চীন বিশ্বকে ছাড়া উন্নতি করতে পারবে না। আবার বিশ্বেরও চীনকে প্রয়োজন।
২০তম কংগ্রেসে নতুন পলিটব্যুরো স্ট্যান্ডিং কমিটির নির্বাচিত সদস্যরা হলেন শি জিন পিং, লি কিয়াং, ঝাও লেইজি, ওয়াং হুনিং, কাই কি, ডিং জুয়েজিয়াং ও লি জি মিট। বেইজিংয়ের গ্রেট হলে এই অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়, এই কমিটিতে শি’র ঘনিষ্ঠ কয়েকজন মিত্র রয়েছেন।

সাবেক সাংহাই কমিউনিস্ট পার্টির প্রধান লি কিয়াং গ্রেট হল অফ পিপলের মঞ্চে প্রেসিডেন্ট শি’র পেছনে ছিলেন। আগামী মার্চে লি কেকিয়াং প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পেতে পারেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

কংগ্রেসে দেওয়া বক্তব্যে শি জিন পিং আরো বলেন, সংস্কার ও উন্মুক্তকরণের ৪০ বছরেরও বেশি সময় পর তারা দুইটি অলৌকিক ঘটনা ঘটিয়েছেন। তারা দ্রুত অর্থনৈতিক উন্নয়ন করেছেন এবং দীর্ঘস্থায়ী সামাজিক স্থিতিশীলতা বজায় রাখতে সক্ষম হয়েছেন।

চীনের প্রেসিডেন্ট তার দলের ওপর জনগণের আস্থা প্রমাণ করতে নিরলসভাবে দায়িত্ব পালনের প্রতিশ্রুতি দেন। চীনের কেন্দ্রীয় সামরিক কমিশনের প্রধান হিসেবেও পুনর্নিয়োগ পেয়েছেন শি।

নিউজটি শেয়ার করুন

চীনকে বিশ্বের প্রয়োজন : শি

আপডেট সময় : ১২:৩৯:৩৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ অক্টোবর ২০২২

নিজস্ব প্রতিবেদক : 
চীনে ঐতিহাসিকভাবে তৃতীয় মেয়াদে নেতৃত্ব পেয়েছেন শি জিন পিং। তৃতীয় মেয়াদে নির্বাচিত হওয়ার পর চীনের সবচেয়ে শক্তিশালী শাসক মাও সে তুংয়ের পরই শির অবস্থান পোক্ত হয়েছে। মাও গণপ্রজাতান্ত্রিক চীনের প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন। এএফপির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।
প্রতিবেদনে বলা হয়, রোববার (২৩ অক্টোবর) চীনা কমিউনিস্ট দলের কেন্দ্রীয় কমিটি আবার শিকে সাধারণ সম্পাদক হিসেবে নির্বাচিত করেছে। নির্বাচিত হওয়ার পর শি জিন পিং গণমাধ্যমের উদ্দেশে বলেন, চীনকে বিশ্বের প্রয়োজন। চীন বিশ্বকে ছাড়া উন্নতি করতে পারবে না। আবার বিশ্বেরও চীনকে প্রয়োজন।
২০তম কংগ্রেসে নতুন পলিটব্যুরো স্ট্যান্ডিং কমিটির নির্বাচিত সদস্যরা হলেন শি জিন পিং, লি কিয়াং, ঝাও লেইজি, ওয়াং হুনিং, কাই কি, ডিং জুয়েজিয়াং ও লি জি মিট। বেইজিংয়ের গ্রেট হলে এই অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়, এই কমিটিতে শি’র ঘনিষ্ঠ কয়েকজন মিত্র রয়েছেন।

সাবেক সাংহাই কমিউনিস্ট পার্টির প্রধান লি কিয়াং গ্রেট হল অফ পিপলের মঞ্চে প্রেসিডেন্ট শি’র পেছনে ছিলেন। আগামী মার্চে লি কেকিয়াং প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পেতে পারেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

কংগ্রেসে দেওয়া বক্তব্যে শি জিন পিং আরো বলেন, সংস্কার ও উন্মুক্তকরণের ৪০ বছরেরও বেশি সময় পর তারা দুইটি অলৌকিক ঘটনা ঘটিয়েছেন। তারা দ্রুত অর্থনৈতিক উন্নয়ন করেছেন এবং দীর্ঘস্থায়ী সামাজিক স্থিতিশীলতা বজায় রাখতে সক্ষম হয়েছেন।

চীনের প্রেসিডেন্ট তার দলের ওপর জনগণের আস্থা প্রমাণ করতে নিরলসভাবে দায়িত্ব পালনের প্রতিশ্রুতি দেন। চীনের কেন্দ্রীয় সামরিক কমিশনের প্রধান হিসেবেও পুনর্নিয়োগ পেয়েছেন শি।