ঢাকা ০৬:০০ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

চিলমারীতে এসিড নিক্ষেপকারীদের শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন

চিলমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ০৩:২২:০০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪
  • / ৪২৭ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
কুড়িগ্রামের চিলমারীতে বালাবাড়ীহাট ভাষারভিটা এলাকায় জোড় করে জমি দখলের চেষ্টা ও সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে ও এসিড নিক্ষেপ কারীদের শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী। বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলা পরিষদের সামনে কেসি রাস্তায় মানববন্ধনে অংশ গ্রহণ করে ভুক্তভোগী এলাকার কয়েকশত নারী-পুরুষ।
ভুমি দস্্যুদের শাস্তি চাই, এসিড নিক্ষেপ কারীদের ফাঁসি চাই,সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করো-করতে হবে ইত্যাদি শ্লোগান লেখা প্লাকার্ড ও এসিড নিক্ষেপসহ সন্ত্রাসী হামলার ছবি হাতে নিয়ে ঘন্টা ব্যাপী অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন,মো.বজলার রহমান লাভলু,গোলাম মোস্তফা লিটু,বক্তার আলী,গয়ছল হক প্রমুখ।
মানববন্ধনে বক্তারা প্রশাসনের নিকট সন্ত্রাসী হামলাকারী ও এসিড নিক্ষেপকারীদের ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে শাস্তি প্রদানের জোড় দাবী জানান।
উল্লেখ্য, উপজেলার বালাবাড়ীহাট ভাসারভিটা এলাকার বজলার রহমান লাভলু গং ও নুর মোহাম্মদ গং এর মধ্যে জমি দখল নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে।ওই জমি নিয়ে চলমান মামলায় বিজ্ঞ আদালত বজলার রহমান গং এর পক্ষে রায় প্রদান করেন।আদালতের পক্ষ থেকে গত ২০২৩ সালের ২৪ আগষ্ট তারিখে তাদের নিকট জমির দখলও বুঝিয়ে দেয়া হয়। বিষয়টি নিয়ে স্থানীয়ভাবে সমাধানের জন্যও কয়েক দফা উদ্যোগ নেয়া হয়েছিল।
গত শুক্রবার(১৭ মে)সকালে বজলার রহমান সরকার লাভলু গং জমির সীমানা ঠিক করতে গেলে নুর মোহাম্মদ গং তাদের উপর অতর্কিত হামলা চালায়।হামলায় বজলার গং এর আকবর আলীর ছেলে মুকুল মিয়ার পায়ে দা দিয়ে কোপ মারলে পা মারাত্মক যখম হয়।
এ সময় নুর মোহাম্মদ বাহিনীর এসিড মিশ্রত গরম পানি নিক্ষেপে গয়ছল হকের স্ত্রী সাহেরা বেগম, বক্তার আলীর ছেলে সুরুজ্জামান উজ্জল ও বশির উদ্দিনের ছেলে গোলাম মোস্তাফা লিটুর শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ ঝলসে যায়। এসিড মিশ্রিত গরম পানিতে ঝলসে যাওয়া ওই ৩জনকে প্রথমে চিলমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করেন।
মামলার বাদী মো.বজলার রহমান লাভলু জানান,তারা আদালত কর্তৃক রায়প্রাপ্ত জমিতে গেলে নুর মোহাম্মদ,বকুল বেগম ওরফে বোনো, ফজলুল হক ওরফে আল্টু, মাইদুল ইসলাম, মাজেদুল ইসলাম,পারুল বেগম ও রোকাইয়া বেগমরা দেশীয় বিভিন্ন প্রকার অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায় এবং আমাদের শরীরে এসিড মিশ্রিত গরম পানি নিক্ষেপ করে।
বাখ//আর

নিউজটি শেয়ার করুন

চিলমারীতে এসিড নিক্ষেপকারীদের শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন

আপডেট সময় : ০৩:২২:০০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪
কুড়িগ্রামের চিলমারীতে বালাবাড়ীহাট ভাষারভিটা এলাকায় জোড় করে জমি দখলের চেষ্টা ও সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে ও এসিড নিক্ষেপ কারীদের শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী। বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলা পরিষদের সামনে কেসি রাস্তায় মানববন্ধনে অংশ গ্রহণ করে ভুক্তভোগী এলাকার কয়েকশত নারী-পুরুষ।
ভুমি দস্্যুদের শাস্তি চাই, এসিড নিক্ষেপ কারীদের ফাঁসি চাই,সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করো-করতে হবে ইত্যাদি শ্লোগান লেখা প্লাকার্ড ও এসিড নিক্ষেপসহ সন্ত্রাসী হামলার ছবি হাতে নিয়ে ঘন্টা ব্যাপী অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন,মো.বজলার রহমান লাভলু,গোলাম মোস্তফা লিটু,বক্তার আলী,গয়ছল হক প্রমুখ।
মানববন্ধনে বক্তারা প্রশাসনের নিকট সন্ত্রাসী হামলাকারী ও এসিড নিক্ষেপকারীদের ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে শাস্তি প্রদানের জোড় দাবী জানান।
উল্লেখ্য, উপজেলার বালাবাড়ীহাট ভাসারভিটা এলাকার বজলার রহমান লাভলু গং ও নুর মোহাম্মদ গং এর মধ্যে জমি দখল নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে।ওই জমি নিয়ে চলমান মামলায় বিজ্ঞ আদালত বজলার রহমান গং এর পক্ষে রায় প্রদান করেন।আদালতের পক্ষ থেকে গত ২০২৩ সালের ২৪ আগষ্ট তারিখে তাদের নিকট জমির দখলও বুঝিয়ে দেয়া হয়। বিষয়টি নিয়ে স্থানীয়ভাবে সমাধানের জন্যও কয়েক দফা উদ্যোগ নেয়া হয়েছিল।
গত শুক্রবার(১৭ মে)সকালে বজলার রহমান সরকার লাভলু গং জমির সীমানা ঠিক করতে গেলে নুর মোহাম্মদ গং তাদের উপর অতর্কিত হামলা চালায়।হামলায় বজলার গং এর আকবর আলীর ছেলে মুকুল মিয়ার পায়ে দা দিয়ে কোপ মারলে পা মারাত্মক যখম হয়।
এ সময় নুর মোহাম্মদ বাহিনীর এসিড মিশ্রত গরম পানি নিক্ষেপে গয়ছল হকের স্ত্রী সাহেরা বেগম, বক্তার আলীর ছেলে সুরুজ্জামান উজ্জল ও বশির উদ্দিনের ছেলে গোলাম মোস্তাফা লিটুর শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ ঝলসে যায়। এসিড মিশ্রিত গরম পানিতে ঝলসে যাওয়া ওই ৩জনকে প্রথমে চিলমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করেন।
মামলার বাদী মো.বজলার রহমান লাভলু জানান,তারা আদালত কর্তৃক রায়প্রাপ্ত জমিতে গেলে নুর মোহাম্মদ,বকুল বেগম ওরফে বোনো, ফজলুল হক ওরফে আল্টু, মাইদুল ইসলাম, মাজেদুল ইসলাম,পারুল বেগম ও রোকাইয়া বেগমরা দেশীয় বিভিন্ন প্রকার অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায় এবং আমাদের শরীরে এসিড মিশ্রিত গরম পানি নিক্ষেপ করে।
বাখ//আর