ঢাকা ০৭:৫১ অপরাহ্ন, রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

গ্রাম আদালত সংশোধন আইন-২০২৪ মন্ত্রিসভায় চূড়ান্ত অনুমোদন

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় : ১০:৪৪:৩০ অপরাহ্ন, রবিবার, ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • / ৪৮১ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

গ্রাম আদালত সংশোধন আইন-২০২৪ চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। রোববার (১১ ফেব্রুয়ারি) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে মন্ত্রিসভা বৈঠকে এ আইনের খসড়ার অনুমোদন দেয়া হয়। আগে সর্বোচ্চ ৭৫ হাজার টাকা জরিমানা করার ক্ষমতা ছিল গ্রাম আদালতের। এখন সেটা বাড়িয়ে ৩ লাখ টাকা পর্যন্ত করা হয়েছে।

সভা শেষে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মাহবুব হোসেন এক ব্রিফিংয়ে বলেন, গত বছর এই আইনের খসড়ার নীতিগত ও চূড়ান্ত অনুমোদন দেয়া হয়। কিন্তু এটি সংসদে উপস্থাপন না হওয়ায় এবং নতুন মন্ত্রিসভা থেকে অনুমোদন নেয়ার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। এটিকে চূড়ান্ত অনুমোদন করে দিয়েছে।

চেয়ারম্যানসহ পাঁচজনের সমন্বয়ে গ্রাম আদালত হয় জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, কোনো সময় একজন অনুপস্থিত থাকলে আদালতের সদস্য সংখ্যা চারজন হয়ে যায়। এমন পরিস্থিতি হলে অনুপস্থিত যিনি ছিলেন তাকে উপস্থিত হতে সাতদিন সময় দেয়া হবে। এর মধ্যে তিনি উপস্থিত না হলে তখন ভোটাভুটি হলে চেয়ারম্যানের ক্ষমতা রাখা হয়েছে।

তিনি বলেন, মামলার এক পক্ষ মারা গেলে মামলার ভবিষ্যৎ নিয়ে জটিলতা দেখা দেয়। এখন বলা হয়েছে, রায়ের আগে কোনো পক্ষের মৃত্যু হলে তার উত্তরাধিকারকে পক্ষ করা যাবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

গ্রাম আদালত সংশোধন আইন-২০২৪ মন্ত্রিসভায় চূড়ান্ত অনুমোদন

আপডেট সময় : ১০:৪৪:৩০ অপরাহ্ন, রবিবার, ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

গ্রাম আদালত সংশোধন আইন-২০২৪ চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। রোববার (১১ ফেব্রুয়ারি) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে মন্ত্রিসভা বৈঠকে এ আইনের খসড়ার অনুমোদন দেয়া হয়। আগে সর্বোচ্চ ৭৫ হাজার টাকা জরিমানা করার ক্ষমতা ছিল গ্রাম আদালতের। এখন সেটা বাড়িয়ে ৩ লাখ টাকা পর্যন্ত করা হয়েছে।

সভা শেষে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মাহবুব হোসেন এক ব্রিফিংয়ে বলেন, গত বছর এই আইনের খসড়ার নীতিগত ও চূড়ান্ত অনুমোদন দেয়া হয়। কিন্তু এটি সংসদে উপস্থাপন না হওয়ায় এবং নতুন মন্ত্রিসভা থেকে অনুমোদন নেয়ার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। এটিকে চূড়ান্ত অনুমোদন করে দিয়েছে।

চেয়ারম্যানসহ পাঁচজনের সমন্বয়ে গ্রাম আদালত হয় জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, কোনো সময় একজন অনুপস্থিত থাকলে আদালতের সদস্য সংখ্যা চারজন হয়ে যায়। এমন পরিস্থিতি হলে অনুপস্থিত যিনি ছিলেন তাকে উপস্থিত হতে সাতদিন সময় দেয়া হবে। এর মধ্যে তিনি উপস্থিত না হলে তখন ভোটাভুটি হলে চেয়ারম্যানের ক্ষমতা রাখা হয়েছে।

তিনি বলেন, মামলার এক পক্ষ মারা গেলে মামলার ভবিষ্যৎ নিয়ে জটিলতা দেখা দেয়। এখন বলা হয়েছে, রায়ের আগে কোনো পক্ষের মৃত্যু হলে তার উত্তরাধিকারকে পক্ষ করা যাবে।