ঢাকা ০৬:৪৬ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

গোললাইন প্রযুক্তি না থাকা লজ্জাজনক: জাভি

স্পোর্টস ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০১:২৩:০৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪
  • / ৪২৪ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

দুইবার এগিয়ে গিয়েও এল ক্ল্যাসিকোতে রিয়াল মাদ্রিদের কাছে হারতে হয়েছে বার্সেলোনাকে। ঘরের মাঠ সান্তিয়াগো বার্ণাব্যুতে বার্সার বিপক্ষে মাদ্রিদের জয় ৩-২ ব্যবধানে। লা লিগায় রোববার (২১ এপ্রিল) দিনগত রাতে মাঠে নামে দল দুটি। ফুটবলের অন্যতম ঐতিহ্যবাহী লড়াই এল ক্ল্যাসিকো। যেখানে জয় ছাপিয়ে মর্যাদা, অহংয়ের জায়গাটা বেশি।

এমন ম্যাচে হারের পর এমনিতেই মেনে নেওয়া কঠিন, তার ওপর তৈরি হয়েছে বিতর্ক। বার্সার একটি নিশ্চিত গোল রেফারি দেননি, যেটি হলে ম্যাচের ফল হয়তো বদলে যেতে পারত। গোললাইন প্রযুক্তি না থাকায় এটি বাতিল হয়, যা লজ্জাজনক বলে মনে করেন জাভি হার্নান্দেজ।

ঘটনার সূত্রপাত ম্যাচের ২৮ মিনিটে। কর্ণার থেকে বার্সা ফুটবলার লামিন ইয়ামালের আলতো টোকায় দেওয়া শট গোললাইন থেকে কোনোমতে বাঁচান মাদ্রিদ গোলরক্ষক আন্দ্রে লুনিন। কাতালান ফুটবলাররা গোলের দাবি তুললেও ম্যাচ রেফারি দ্বারস্থ হন ভিডিও অ্যাসিট্যান্ট রেফারির (ভিএআর)। তাতে বিভিন্ন অ্যাঙ্গেল থেকে দেখেও নিশ্চিত হতে পারেননি রেফারি। ফলে, গোল না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন তিনি।

বার্সা কোচ জাভির দাবি, এটি গোল হয়েছে। গোললাইন প্রযুক্তি থাকলে রেফারির হাতে থাকা ঘড়িতে সঙ্গে সঙ্গে গোলের সংকেত দেখা যেত। কোনো সংশয় থাকত না। গোললাইন প্রযুক্তি মূলত এমন একটি ব্যবস্থা, যেখানে বলের অধিকাংশ অংশ গোলবারের দাগ স্পর্শ করে ভেতরের দিকে গেলে রেফারির ঘড়িতে গোলের সংকেত আসে। ইউরোপের শীর্ষ পাঁচ লিগের মধ্যে কেবল লা লিগাতেই এই প্রযুক্তি নেই। জাভির ক্ষোভ সেখানেই।

ইএসপিএনে প্রকাশিত আজ সোমবারের (২২ এপ্রিল) প্রতিবেদন অনুসারে জাভি বলেন, ‘আমাদের সঙ্গে অন্যায় হয়েছে। সবাই এটি দেখেছে। আমরা নিজেদের সেরা লিগ দাবি করছি, অথচ আমাদের গোললাইন প্রযুক্তি নেই। এটি লজ্জাজনক। এমন একটি শীর্ষ লিগে এই প্রযুক্তি অবশ্যই থাকা প্রয়োজন।’

নিউজটি শেয়ার করুন

গোললাইন প্রযুক্তি না থাকা লজ্জাজনক: জাভি

আপডেট সময় : ০১:২৩:০৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪

দুইবার এগিয়ে গিয়েও এল ক্ল্যাসিকোতে রিয়াল মাদ্রিদের কাছে হারতে হয়েছে বার্সেলোনাকে। ঘরের মাঠ সান্তিয়াগো বার্ণাব্যুতে বার্সার বিপক্ষে মাদ্রিদের জয় ৩-২ ব্যবধানে। লা লিগায় রোববার (২১ এপ্রিল) দিনগত রাতে মাঠে নামে দল দুটি। ফুটবলের অন্যতম ঐতিহ্যবাহী লড়াই এল ক্ল্যাসিকো। যেখানে জয় ছাপিয়ে মর্যাদা, অহংয়ের জায়গাটা বেশি।

এমন ম্যাচে হারের পর এমনিতেই মেনে নেওয়া কঠিন, তার ওপর তৈরি হয়েছে বিতর্ক। বার্সার একটি নিশ্চিত গোল রেফারি দেননি, যেটি হলে ম্যাচের ফল হয়তো বদলে যেতে পারত। গোললাইন প্রযুক্তি না থাকায় এটি বাতিল হয়, যা লজ্জাজনক বলে মনে করেন জাভি হার্নান্দেজ।

ঘটনার সূত্রপাত ম্যাচের ২৮ মিনিটে। কর্ণার থেকে বার্সা ফুটবলার লামিন ইয়ামালের আলতো টোকায় দেওয়া শট গোললাইন থেকে কোনোমতে বাঁচান মাদ্রিদ গোলরক্ষক আন্দ্রে লুনিন। কাতালান ফুটবলাররা গোলের দাবি তুললেও ম্যাচ রেফারি দ্বারস্থ হন ভিডিও অ্যাসিট্যান্ট রেফারির (ভিএআর)। তাতে বিভিন্ন অ্যাঙ্গেল থেকে দেখেও নিশ্চিত হতে পারেননি রেফারি। ফলে, গোল না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন তিনি।

বার্সা কোচ জাভির দাবি, এটি গোল হয়েছে। গোললাইন প্রযুক্তি থাকলে রেফারির হাতে থাকা ঘড়িতে সঙ্গে সঙ্গে গোলের সংকেত দেখা যেত। কোনো সংশয় থাকত না। গোললাইন প্রযুক্তি মূলত এমন একটি ব্যবস্থা, যেখানে বলের অধিকাংশ অংশ গোলবারের দাগ স্পর্শ করে ভেতরের দিকে গেলে রেফারির ঘড়িতে গোলের সংকেত আসে। ইউরোপের শীর্ষ পাঁচ লিগের মধ্যে কেবল লা লিগাতেই এই প্রযুক্তি নেই। জাভির ক্ষোভ সেখানেই।

ইএসপিএনে প্রকাশিত আজ সোমবারের (২২ এপ্রিল) প্রতিবেদন অনুসারে জাভি বলেন, ‘আমাদের সঙ্গে অন্যায় হয়েছে। সবাই এটি দেখেছে। আমরা নিজেদের সেরা লিগ দাবি করছি, অথচ আমাদের গোললাইন প্রযুক্তি নেই। এটি লজ্জাজনক। এমন একটি শীর্ষ লিগে এই প্রযুক্তি অবশ্যই থাকা প্রয়োজন।’