ঢাকা ০৬:১৫ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

গোয়েন্দা তথ্য বিশ্লেষণ করে বিএনপিকে সমাবেশের অনুমতি : ডিএমপি

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০২:৩৬:০৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৫ নভেম্বর ২০২২
  • / ৪৫৩ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নিজস্ব প্রতিবেদক : 
গোয়েন্দা সংস্থার দেওয়া তথ্যের ঝুঁকি বিশ্লেষণ করে বিএনপিকে সমাবেশের অনুমতি দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) উপপুলিশ কমিশনার মো. ফারুক হোসেন। তবে কবে নাগাদ অনুমতি দেওয়া যাবে তা নির্দিষ্ট করে বলা যাচ্ছে না বলে জানান তিনি।

মঙ্গলবার (১৫ নভেম্বর) দুপুর সোয়া ১২টার দিকে রাজধানীর মিন্টো রোডের ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে সাংবাদিকদের এ কথা জানান তিনি।

বিএনপির গণসমাবেশের অনুমতি পেতে কতদিন লাগবে—এমন প্রশ্নের জবাবে ফারুক হোসেন বলেন, বিএনপি ঢাকা বিভাগে যে গণসমাবেশ করবে, সেটার অনুমতির জন্য দলটির নেতারা ডিএমপি কমিশনারের সঙ্গে দেখা করেন। তারা সমাবেশের অনুমতি চেয়ে একটি আবেদন করেছেন। আমরা আমাদের নিজস্ব গোয়েন্দা সংস্থার মাধ্যমে ঝুঁকি বিশ্লেষণ করে আলোচনার মাধ্যমে সিদ্ধান্ত নেব।

ফারুক হোসেন আরও বলেন, আমরা লিখিত দরখাস্ত পেয়েছি, এখন সেটি বিবেচনা করে দেখব, অনুমতি দেওয়া যায় কি না। আমাদের যে গোয়েন্দা সংস্থা রয়েছে, তাদের তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখব, কোনো ধরনের ঝুঁকি রয়েছে কি না।

 

 

নিউজটি শেয়ার করুন

গোয়েন্দা তথ্য বিশ্লেষণ করে বিএনপিকে সমাবেশের অনুমতি : ডিএমপি

আপডেট সময় : ০২:৩৬:০৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৫ নভেম্বর ২০২২

নিজস্ব প্রতিবেদক : 
গোয়েন্দা সংস্থার দেওয়া তথ্যের ঝুঁকি বিশ্লেষণ করে বিএনপিকে সমাবেশের অনুমতি দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) উপপুলিশ কমিশনার মো. ফারুক হোসেন। তবে কবে নাগাদ অনুমতি দেওয়া যাবে তা নির্দিষ্ট করে বলা যাচ্ছে না বলে জানান তিনি।

মঙ্গলবার (১৫ নভেম্বর) দুপুর সোয়া ১২টার দিকে রাজধানীর মিন্টো রোডের ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে সাংবাদিকদের এ কথা জানান তিনি।

বিএনপির গণসমাবেশের অনুমতি পেতে কতদিন লাগবে—এমন প্রশ্নের জবাবে ফারুক হোসেন বলেন, বিএনপি ঢাকা বিভাগে যে গণসমাবেশ করবে, সেটার অনুমতির জন্য দলটির নেতারা ডিএমপি কমিশনারের সঙ্গে দেখা করেন। তারা সমাবেশের অনুমতি চেয়ে একটি আবেদন করেছেন। আমরা আমাদের নিজস্ব গোয়েন্দা সংস্থার মাধ্যমে ঝুঁকি বিশ্লেষণ করে আলোচনার মাধ্যমে সিদ্ধান্ত নেব।

ফারুক হোসেন আরও বলেন, আমরা লিখিত দরখাস্ত পেয়েছি, এখন সেটি বিবেচনা করে দেখব, অনুমতি দেওয়া যায় কি না। আমাদের যে গোয়েন্দা সংস্থা রয়েছে, তাদের তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখব, কোনো ধরনের ঝুঁকি রয়েছে কি না।