ঢাকা ১০:৪৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

গোয়েন্দাদের মাধ্যমে জলদস্যুদের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা হচ্ছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় : ০৬:৫৫:৩০ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৩ মার্চ ২০২৪
  • / ৪২৯ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

গোয়েন্দাদের মাধ্যমে জলদস্যুদের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। বুধবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনে সাংবাদিকদের তিনি আরো বলেন, ‘জিম্মি ২৩ বাংলাদেশি নাবিককে দ্রুত উদ্ধারের চেষ্টা করছে সরকার।’

পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, তৃতীয় পক্ষের মাধ্যমে বিশেষ করে চীন ও রাশিয়ার গোয়েন্দাদের মাধ্যমে যোগাযোগ স্থাপনের চেষ্টা করা হচ্ছে। কূটনৈতিক মাধ্যমেও তৎপরতা চলছে। তবে জলদস্যুদের সাথে সরকার এখনো যোগাযোগ করতে পারেনি। যেকোনো পরিস্থিতিতে জিম্মিদের মুক্ত করা হবে আশা প্রকাশ করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

‘এমপাওয়ারিং ফিউচার: ইনভেস্ট ইন উইমেন টুয়ার্ডস স্মার্ট বাংলাদেশ’ শীর্ষক ওই সেমিনারে তিনি বলেন, “পৃথিবীতে সবচেয়ে বেশি কাজ করেন নারীরা। পুরুষের তুলনায় ৭০ শতাংশ কাজ নারীরা করে থাকেন। তারা অফিসও করেন, বাসায় গিয়ে পারিবারিক কাজ ও সন্তানদের লালন পালনও করেন। কিন্তু তাদের আনপেইড কেয়ার ওয়ার্কের কোনো মূল্যায়ন নেই।

“আমরা এমন একটি রাষ্ট্র চাই, যেটা হবে মানবিক। যেখানে মানুষের আত্মিক উন্নয়ন ঘটবে। সেজন্য মায়েদের ক্ষমতায়ন ও উন্নয়ন ঘটাতে হবে। সমৃদ্ধ রাষ্ট্র গঠনের জন্য সর্বক্ষেত্রে নারী ক্ষমতায়ন প্রয়োজন।”

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক এ এস এম মাকসুদ কামাল, সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক জিয়া রহমান, যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার সাইদা মুনা তাসনিম, বাংলাদেশ অ্যালায়েন্স ফর উইমেন লিডারশিপের সভাপতি নাসিম ফেরদৌস, বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ডেভেলপমেন্ট স্টাডিজের মহাপরিচালক বিনায়ক সেন, বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা সেন্টার ফর জেন্ডার এন্ড ডেভেলপমেন্ট স্টাডিজের পরিচালক অধ্যাপক তানিয়া হক সেমিনারে উপস্থিত ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

গোয়েন্দাদের মাধ্যমে জলদস্যুদের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা হচ্ছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

আপডেট সময় : ০৬:৫৫:৩০ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৩ মার্চ ২০২৪

গোয়েন্দাদের মাধ্যমে জলদস্যুদের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। বুধবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনে সাংবাদিকদের তিনি আরো বলেন, ‘জিম্মি ২৩ বাংলাদেশি নাবিককে দ্রুত উদ্ধারের চেষ্টা করছে সরকার।’

পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, তৃতীয় পক্ষের মাধ্যমে বিশেষ করে চীন ও রাশিয়ার গোয়েন্দাদের মাধ্যমে যোগাযোগ স্থাপনের চেষ্টা করা হচ্ছে। কূটনৈতিক মাধ্যমেও তৎপরতা চলছে। তবে জলদস্যুদের সাথে সরকার এখনো যোগাযোগ করতে পারেনি। যেকোনো পরিস্থিতিতে জিম্মিদের মুক্ত করা হবে আশা প্রকাশ করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

‘এমপাওয়ারিং ফিউচার: ইনভেস্ট ইন উইমেন টুয়ার্ডস স্মার্ট বাংলাদেশ’ শীর্ষক ওই সেমিনারে তিনি বলেন, “পৃথিবীতে সবচেয়ে বেশি কাজ করেন নারীরা। পুরুষের তুলনায় ৭০ শতাংশ কাজ নারীরা করে থাকেন। তারা অফিসও করেন, বাসায় গিয়ে পারিবারিক কাজ ও সন্তানদের লালন পালনও করেন। কিন্তু তাদের আনপেইড কেয়ার ওয়ার্কের কোনো মূল্যায়ন নেই।

“আমরা এমন একটি রাষ্ট্র চাই, যেটা হবে মানবিক। যেখানে মানুষের আত্মিক উন্নয়ন ঘটবে। সেজন্য মায়েদের ক্ষমতায়ন ও উন্নয়ন ঘটাতে হবে। সমৃদ্ধ রাষ্ট্র গঠনের জন্য সর্বক্ষেত্রে নারী ক্ষমতায়ন প্রয়োজন।”

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক এ এস এম মাকসুদ কামাল, সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক জিয়া রহমান, যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার সাইদা মুনা তাসনিম, বাংলাদেশ অ্যালায়েন্স ফর উইমেন লিডারশিপের সভাপতি নাসিম ফেরদৌস, বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ডেভেলপমেন্ট স্টাডিজের মহাপরিচালক বিনায়ক সেন, বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা সেন্টার ফর জেন্ডার এন্ড ডেভেলপমেন্ট স্টাডিজের পরিচালক অধ্যাপক তানিয়া হক সেমিনারে উপস্থিত ছিলেন।