ঢাকা ১০:৪০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी
ব্রেকিং নিউজ ::
পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা ছাড়াই আজকের মতো আন্দোলন স্থগিত করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা ছেড়েছেন কোটাবিরোধী আন্দোলনকারীরা। আপাতত আন্দোলন স্থগিতের ঘোষণা দেন কোটা সংস্কার আন্দোলনের অন্যতম সমন্বয়কারী হাসনাত আব্দুল্লাহ :: সারা দেশের মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটের শ্রেণি কার্যক্রম অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে :: শেষ খবর পর্যন্ত ঢাকা, চট্টগ্রাম ও রংপুরে ছাত্রলীগ ও পুলিশের সঙ্গে আন্দোলনকারীদের সংঘর্ষে ৬ জন নিহত হয়েছেন :: চলমান এইচএসসি ও সমমানের আগামী ১৮ জুলাইয়ের (বৃহস্পতিবার) পরীক্ষা স্থগিত করেছে বাংলাদেশ আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় কমিটি। তবে আগামী ২১ জুলাই থেকে পূর্বঘোষিত সময়সূচি অনুযায়ী পরীক্ষা যথারীতি চলবে :: ঢাকা, চট্টগ্রাম, বগুড়া ও রাজশাহীতে বিজিবি মোতায়েন :: জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে দুটি বাসে আগুন দেওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার রাত ৮টা ২৫ মিনিটের দিকে এ ঘটনা ঘটে। আগুনের ঘটনায় হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি :: চার শিক্ষার্থী গুলিবিদ্ধ, উত্তাল জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা

গোদাগাড়ীতে রিকশা চালককে মধ্যযুগীয় কায়দায় সারা রাত নির্যাতন : প্রধান আসামী গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী
  • আপডেট সময় : ০৬:৩৭:৪০ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪
  • / ৪২০ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে এক রিকশা চালককে লোহার রড গরম করে বাড়ির ভিতরে হাত পা বেঁধে রাতভর নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে। সকালে স্থানীয় লোকজন বাড়ির সামনে অচেতন অবস্থায় পরে থাকতে দেখে উদ্ধার করে গোদাগাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।
এই মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে গত ২২ জুন রাত সাড়ে ১১ টার দিকে গোদাগাড়ী পৌর এলাকার মাদারপুর গ্রামে। নির্যাতনের শিকার ওই যুবকের নাম মোঃ সুজন (২৪) পিতা মৃত সাহজাহান আলী।
এই ঘটনায় গোদাগাড়ী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে। এতে মামলার প্রধান আসামী কামরুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে পুলিশ।
রিকশা চালক সুজন জানান, গত ২২ জুন রাতে রবিউল ইসলাম নামে এক ব্যক্তি রিক্সা ভাড়ার নেওয়ার জন্য আমাকে তার বসত বাড়ীতে ডাকে, আমি তার বাড়িতে গেলে দলবদ্ধ হয়ে তার বসত বাড়ীর শয়ন ঘরের ভিতর আমাকে আটকে রাখে। হাতে থাকা লোহার রড ও বাঁশের লাঠি দিয়ে এলোপাথারিভাবে মারপিট করে শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম করে। ৫-৭জন ব্যাক্তি মাটিতে শুইয়ে তার হাত-পা চেপে ধরে থাকে এবং হাতে থাকা লোহার রড আগুনে গরম করে হত্যার উদ্দেশ্যে তার পিঠে একাধিক স্থানে ছেঁকা দিয়ে রক্তাক্ত গুরুতর জখম করে।
স্থানীয় বাসিন্দা মোঃ বাবু জানান রিকশা চালক সুজনকে পশুর মত নির্যাতন করা হয়েছে। এভাবে মানুষ মানুষকে মারতে পারে? তার শরীরে যে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে তা দেখে সবাই আঁতকে উঠবে। যারা এভাবে তাকে নির্যাতন করেছে তাদের সবাইকে আইনের আওতায় আনা হোক। আমরা এর বিচার চাই।
নির্যাতিতর বড় ভাই মোঃ জামিল হোসেন গোদাগাড়ী মডেল থানায় পাঁচজনের নামসহ অঙ্গাতনামা আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলার আসামীরা হলেন মাদারপুর গ্রামের মনিরুল ইসলামের ছেলে মোঃ কামরুল ইসলাম এই এলাকার রবিউল ইসলাম , মোঃ বাবু (২৫), মোসাঃ পারভীন (৪৫), মোসাঃ মরিয়ম (৩০)।
এই বিষয়ে গোদাগাড়ী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আব্দুল মতিন জানান, রিকশা চলক সুজনকে নির্যাতনের ঘটনায় মামলার প্রধান আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্যদের গ্রেপ্তার অভিযান অব্যাহত আছে।
বাখ//আর

নিউজটি শেয়ার করুন

গোদাগাড়ীতে রিকশা চালককে মধ্যযুগীয় কায়দায় সারা রাত নির্যাতন : প্রধান আসামী গ্রেফতার

আপডেট সময় : ০৬:৩৭:৪০ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪
রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে এক রিকশা চালককে লোহার রড গরম করে বাড়ির ভিতরে হাত পা বেঁধে রাতভর নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে। সকালে স্থানীয় লোকজন বাড়ির সামনে অচেতন অবস্থায় পরে থাকতে দেখে উদ্ধার করে গোদাগাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।
এই মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে গত ২২ জুন রাত সাড়ে ১১ টার দিকে গোদাগাড়ী পৌর এলাকার মাদারপুর গ্রামে। নির্যাতনের শিকার ওই যুবকের নাম মোঃ সুজন (২৪) পিতা মৃত সাহজাহান আলী।
এই ঘটনায় গোদাগাড়ী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে। এতে মামলার প্রধান আসামী কামরুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে পুলিশ।
রিকশা চালক সুজন জানান, গত ২২ জুন রাতে রবিউল ইসলাম নামে এক ব্যক্তি রিক্সা ভাড়ার নেওয়ার জন্য আমাকে তার বসত বাড়ীতে ডাকে, আমি তার বাড়িতে গেলে দলবদ্ধ হয়ে তার বসত বাড়ীর শয়ন ঘরের ভিতর আমাকে আটকে রাখে। হাতে থাকা লোহার রড ও বাঁশের লাঠি দিয়ে এলোপাথারিভাবে মারপিট করে শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম করে। ৫-৭জন ব্যাক্তি মাটিতে শুইয়ে তার হাত-পা চেপে ধরে থাকে এবং হাতে থাকা লোহার রড আগুনে গরম করে হত্যার উদ্দেশ্যে তার পিঠে একাধিক স্থানে ছেঁকা দিয়ে রক্তাক্ত গুরুতর জখম করে।
স্থানীয় বাসিন্দা মোঃ বাবু জানান রিকশা চালক সুজনকে পশুর মত নির্যাতন করা হয়েছে। এভাবে মানুষ মানুষকে মারতে পারে? তার শরীরে যে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে তা দেখে সবাই আঁতকে উঠবে। যারা এভাবে তাকে নির্যাতন করেছে তাদের সবাইকে আইনের আওতায় আনা হোক। আমরা এর বিচার চাই।
নির্যাতিতর বড় ভাই মোঃ জামিল হোসেন গোদাগাড়ী মডেল থানায় পাঁচজনের নামসহ অঙ্গাতনামা আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলার আসামীরা হলেন মাদারপুর গ্রামের মনিরুল ইসলামের ছেলে মোঃ কামরুল ইসলাম এই এলাকার রবিউল ইসলাম , মোঃ বাবু (২৫), মোসাঃ পারভীন (৪৫), মোসাঃ মরিয়ম (৩০)।
এই বিষয়ে গোদাগাড়ী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আব্দুল মতিন জানান, রিকশা চলক সুজনকে নির্যাতনের ঘটনায় মামলার প্রধান আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্যদের গ্রেপ্তার অভিযান অব্যাহত আছে।
বাখ//আর