ঢাকা ০৫:৩৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

গোদাগাড়ীতে দংশন করা রোগি এন্টিভেনম নিয়ে এখন ভাল আছে

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী
  • আপডেট সময় : ১১:৩৩:৪৫ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৬ জুলাই ২০২৪
  • / ৪৭৫ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার ঝিকরাপাড়া গ্রামে সাধন কুমার নামে ব্যক্তিকে সাপে দংশন করে। জৈনক আব্দুর রহমান তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স প্রেমতলীতে সাপসহ নিয়ে এনে ভর্তি করেন।

গতকাল উপজেলা নির্বাহী অফিসার আতিকুল ইসলাম এন্টিভেনম নিয়ে ফেসবুকে পোস্ট করেন সেখানে প্রেমতলী হাসপাতালের ইউএইচএফপিও নাম্বার দেওয়া হয়েছিল। সেই সুবাদে সাপে কাটা রোগীর স্বজনেরা যোগাযোগ করেন, যার ফলে হাসপাতাল কতৃপক্ষ রোগী পৌঁছার পূর্বেই সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেন এবং রোগী পৌছা মাত্রই তার সুচিকিৎসার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেন। রোগী এখন সুস্থ আছেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ আলী মাজরুই রহমান বলেন, রোগির আত্নীয়স্বজন আমার নাম্বারে মোবাইল করে জানান, একজনকে সাপে দংশন করেছে তাকে দ্রুত হাসপাতালে আনার কথা বলি রোগী পৌঁছার পূর্বেই সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয় এবং রোগী পৌঁছা মাত্রই তার সুচিকিৎসার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করার ফলে রোগি এখন ভাল আছে। সরকার ৯ টি এন্টিভেনম দিয়েছেন।

একটি সাপে কাটা রোগির জন্য ৫/৮টি সাপের “অ্যান্টিভেনম প্রয়োজন হতে পারে। তাই উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ বেলাল উদ্দীন সোহেল স্যার গোদাগাড়ীবাসীর কথা বিবেচনা করে আমাদের হাসপাতালে ১০০ টি এন্টিভেনম হস্তান্তর করার পরের দিনই রোগির উপকারে এসেছে। এটা একটি মহৎ কাজ। আপনাদের সবাইকে রাসেল’স ভাইপার হতে সাবধানতা অবলম্বন ও সচেতন থাকার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করছি। সাপে দংশন করলে কিংবা জরুরী প্রয়োজনে যোগাযোগ করুন:-০১৭০১২৪৮৬৮৫, ০১৭১২৫৬৭৩৮৩ ও সাপে কাটা রোগীকে দ্রুত আপনার নিকটস্থ হাসপাতালে প্রেরণ নিশ্চিত করুন।

এ প্রসঙ্গে মোঃ বেলাল উদ্দীন সোহেল বলেন, শুনে ভাল লাগল যে, আমার দেয়া এন্টিভেনম রোগির কাজে এসেছে। বর্তমান শেখ হাসিনার সরকার, জনবান্ধব ও উন্নায়নমূখী সরকার। এ সময় সাপ মানুষকে বেশী কামড় দেয়। আর রাসেল’স ভাইপার সাপ নিয়ে গোদাগাড়ীর মানুষ বেশী আতঙ্কিত পড়ে পড়েছিল। তাদের কথা বিবেচনা করে নিজস্ব অর্থায়নে ১০০ টি এন্টিভেনম সরবরাহ করেছি। কালকে কৃষকদের গামবুট দিয়েছি। মানুষকে সচেতন, সাবধানতা আবলম্বন করে রাস্তাঘাট, মাঠে চলাচল করতে হবে। আতঙ্কিত হবার কোন কারন নেই।

বাখ//আর

নিউজটি শেয়ার করুন

গোদাগাড়ীতে দংশন করা রোগি এন্টিভেনম নিয়ে এখন ভাল আছে

আপডেট সময় : ১১:৩৩:৪৫ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৬ জুলাই ২০২৪

রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার ঝিকরাপাড়া গ্রামে সাধন কুমার নামে ব্যক্তিকে সাপে দংশন করে। জৈনক আব্দুর রহমান তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স প্রেমতলীতে সাপসহ নিয়ে এনে ভর্তি করেন।

গতকাল উপজেলা নির্বাহী অফিসার আতিকুল ইসলাম এন্টিভেনম নিয়ে ফেসবুকে পোস্ট করেন সেখানে প্রেমতলী হাসপাতালের ইউএইচএফপিও নাম্বার দেওয়া হয়েছিল। সেই সুবাদে সাপে কাটা রোগীর স্বজনেরা যোগাযোগ করেন, যার ফলে হাসপাতাল কতৃপক্ষ রোগী পৌঁছার পূর্বেই সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেন এবং রোগী পৌছা মাত্রই তার সুচিকিৎসার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেন। রোগী এখন সুস্থ আছেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ আলী মাজরুই রহমান বলেন, রোগির আত্নীয়স্বজন আমার নাম্বারে মোবাইল করে জানান, একজনকে সাপে দংশন করেছে তাকে দ্রুত হাসপাতালে আনার কথা বলি রোগী পৌঁছার পূর্বেই সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয় এবং রোগী পৌঁছা মাত্রই তার সুচিকিৎসার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করার ফলে রোগি এখন ভাল আছে। সরকার ৯ টি এন্টিভেনম দিয়েছেন।

একটি সাপে কাটা রোগির জন্য ৫/৮টি সাপের “অ্যান্টিভেনম প্রয়োজন হতে পারে। তাই উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ বেলাল উদ্দীন সোহেল স্যার গোদাগাড়ীবাসীর কথা বিবেচনা করে আমাদের হাসপাতালে ১০০ টি এন্টিভেনম হস্তান্তর করার পরের দিনই রোগির উপকারে এসেছে। এটা একটি মহৎ কাজ। আপনাদের সবাইকে রাসেল’স ভাইপার হতে সাবধানতা অবলম্বন ও সচেতন থাকার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করছি। সাপে দংশন করলে কিংবা জরুরী প্রয়োজনে যোগাযোগ করুন:-০১৭০১২৪৮৬৮৫, ০১৭১২৫৬৭৩৮৩ ও সাপে কাটা রোগীকে দ্রুত আপনার নিকটস্থ হাসপাতালে প্রেরণ নিশ্চিত করুন।

এ প্রসঙ্গে মোঃ বেলাল উদ্দীন সোহেল বলেন, শুনে ভাল লাগল যে, আমার দেয়া এন্টিভেনম রোগির কাজে এসেছে। বর্তমান শেখ হাসিনার সরকার, জনবান্ধব ও উন্নায়নমূখী সরকার। এ সময় সাপ মানুষকে বেশী কামড় দেয়। আর রাসেল’স ভাইপার সাপ নিয়ে গোদাগাড়ীর মানুষ বেশী আতঙ্কিত পড়ে পড়েছিল। তাদের কথা বিবেচনা করে নিজস্ব অর্থায়নে ১০০ টি এন্টিভেনম সরবরাহ করেছি। কালকে কৃষকদের গামবুট দিয়েছি। মানুষকে সচেতন, সাবধানতা আবলম্বন করে রাস্তাঘাট, মাঠে চলাচল করতে হবে। আতঙ্কিত হবার কোন কারন নেই।

বাখ//আর