ঢাকা ০২:৩৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

গোদাগাড়ীতে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে মারামারিতে নিহত ১

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী
  • আপডেট সময় : ১২:২২:২৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪
  • / ৪১৮ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
রাজশাহী রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে মসজিদের গাছ ছাগলে খাওয়াকে কেন্দ্র করে রুহুল আমিন নামের একজন মারা গেছে। এই ঘটনায় তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছ গোদাগাড়ী মডেল থানা পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, আব্দুল লতিফের ছেলে স্থানীয় ইউপি সদস্য মনিরুল ইসলাম ও তার ভাই এলাকার রবিউল ইসলাম এবং একই এলাকার মনিরুল ইসলামের ছেলে সিফাত (২৭)।
থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সোমবার সন্ধ্যায় উপজেলার গোদাগাড়ী ইউনিয়নের সাগুয়ান ঘুন্টি গ্রামে ছাগলে গাছ খাওয়াকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মধ্যে কথা-কাটাকাটির সময় মসজিদ কমিটির সভাপতি নেজাম উদ্দীন মেম্বারের পক্ষের লোকজন ও আওয়ামী লীগ নেতা আজিজুলের পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে মারামারিতে জড়িয়ে পড়ে। এতে ১১ জন আহত হয়।
গুরুতর আহত অবস্থায় রুহুল আমিন (৩৮) নামে এক ব্যক্তি রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে যাওয়ার পথে মারা যায়।
নিহত রুহুল আমিন সাগুয়ান ঘুন্টি গ্রামের ফজলুল হকের ছেলে এবং নেজাম মেম্বারের পক্ষের লোক। স্থানীয়রা জানান, সাগুয়ান জামে মসজিদের সভাপতি ছিলেন আজিজুল হক। তাকে বাদ দিয়ে নতুন করে নেজাম মেম্বারকে সভাপতি করে কমিটি গঠিত হয়।
এই কমিটির সদস্য ছিলেন নিহত রুহুল আমিন। আজিজুলের পক্ষের এক লোকের ছাগলে মসজিদের একটি গাছ খাচ্ছিল। এ সময় ছাগলটিকে তাড়িয়ে দেওয়া হয়। এতে সভাপতি থেকে বাদ পড়ার ক্ষোভে আজিজুল হক নতুন সভাপতি নেজাম মেম্বারের ওপর চড়াও হয়ে কথা-কাটাকাটিতে জড়িয়ে পড়েন। একপর্যায়ে আজিজুলের লোকজন মসজিদ কমিটির লোকজনের ওপর হামলা চালালে তা সংঘর্ষে রূপ নেয়।
এবিষয়ে গোদাগাড়ী গোদাগাড়ী মডেল থানার ওসি আব্দুল মতিন বলেন, এই ঘটনায় নিহত রুহুল আমিনের স্ত্রী আকলিমা খাতুন সোমবার দিবাগত রাত ১২ টা ১০ মিনিটে মামলা দায়ের করেন। এতে তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
বাখ//আর

নিউজটি শেয়ার করুন

গোদাগাড়ীতে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে মারামারিতে নিহত ১

আপডেট সময় : ১২:২২:২৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪
রাজশাহী রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে মসজিদের গাছ ছাগলে খাওয়াকে কেন্দ্র করে রুহুল আমিন নামের একজন মারা গেছে। এই ঘটনায় তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছ গোদাগাড়ী মডেল থানা পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, আব্দুল লতিফের ছেলে স্থানীয় ইউপি সদস্য মনিরুল ইসলাম ও তার ভাই এলাকার রবিউল ইসলাম এবং একই এলাকার মনিরুল ইসলামের ছেলে সিফাত (২৭)।
থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সোমবার সন্ধ্যায় উপজেলার গোদাগাড়ী ইউনিয়নের সাগুয়ান ঘুন্টি গ্রামে ছাগলে গাছ খাওয়াকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মধ্যে কথা-কাটাকাটির সময় মসজিদ কমিটির সভাপতি নেজাম উদ্দীন মেম্বারের পক্ষের লোকজন ও আওয়ামী লীগ নেতা আজিজুলের পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে মারামারিতে জড়িয়ে পড়ে। এতে ১১ জন আহত হয়।
গুরুতর আহত অবস্থায় রুহুল আমিন (৩৮) নামে এক ব্যক্তি রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে যাওয়ার পথে মারা যায়।
নিহত রুহুল আমিন সাগুয়ান ঘুন্টি গ্রামের ফজলুল হকের ছেলে এবং নেজাম মেম্বারের পক্ষের লোক। স্থানীয়রা জানান, সাগুয়ান জামে মসজিদের সভাপতি ছিলেন আজিজুল হক। তাকে বাদ দিয়ে নতুন করে নেজাম মেম্বারকে সভাপতি করে কমিটি গঠিত হয়।
এই কমিটির সদস্য ছিলেন নিহত রুহুল আমিন। আজিজুলের পক্ষের এক লোকের ছাগলে মসজিদের একটি গাছ খাচ্ছিল। এ সময় ছাগলটিকে তাড়িয়ে দেওয়া হয়। এতে সভাপতি থেকে বাদ পড়ার ক্ষোভে আজিজুল হক নতুন সভাপতি নেজাম মেম্বারের ওপর চড়াও হয়ে কথা-কাটাকাটিতে জড়িয়ে পড়েন। একপর্যায়ে আজিজুলের লোকজন মসজিদ কমিটির লোকজনের ওপর হামলা চালালে তা সংঘর্ষে রূপ নেয়।
এবিষয়ে গোদাগাড়ী গোদাগাড়ী মডেল থানার ওসি আব্দুল মতিন বলেন, এই ঘটনায় নিহত রুহুল আমিনের স্ত্রী আকলিমা খাতুন সোমবার দিবাগত রাত ১২ টা ১০ মিনিটে মামলা দায়ের করেন। এতে তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
বাখ//আর