ঢাকা ১২:৪০ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

গাজীপুরে নির্বাচনে অংশ নেওয়া ৩০ নেতাকে বিএনপির শোকজ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৫:৪৮:০১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ মে ২০২৩
  • / ৪৯৪ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নিজস্ব প্রতিবেদক: দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে অংশ নেওয়ায় বিএনপির ৩০ নেতাকে দলের পক্ষ থেকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে। নোটিশে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তাদের লিখিত জবাব দিতে বলা হয়েছে।

শোকজ পাওয়া সবাই গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে কাউন্সিলর পদে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এদের মধ্যে নগরীর ১৫ নং ওয়ার্ড থেকে মহানগর শ্রমিকদলের সদস্য সচিব ফয়সাল আহমদ সরকার বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। শোকজ পাওয়া ওই ৩০ জন মহানগর বিএনপির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা।

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী ওই শোকজ নোটিশে স্বাক্ষর করেছেন। আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে লিখিত জবাব দলের কেন্দ্রীয় দপ্তরে জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে সিটি করপোরেশনের ৩৬ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদপ্রার্থী হান্নান মিয়া হান্নু চিঠি পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘দলের চিঠি পেয়েছি। মহানগর নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করে শোকজের জবাব দেওয়া হবে।’

শোকজ নোটিস পাওয়া কাউন্সিলর পদপ্রার্থী বিএনপিনেতারা হলেন সদর থানার আহ্বায়ক হাসান আজমল ভুইয়া, সাবেক আহ্বায়ক হান্নান মিয়া হান্নু, বাসন থানার সাধারণ সম্পাদক মোসলেম উদ্দিন চৌধুরী মূসা, টঙ্গী পূর্ব থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সফি উদ্দিন, টঙ্গী পশ্চিম থানা বিএনপির সাবেক সভাপতি শেখ আলেক, মহানগর শ্রমিকদলের আহ্বায়ক ফয়সাল আহমদ সরকার, পূবাইল থানা বিএনপির সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট নজরুল ইসলাম বিকি, সাবেক আহ্বায়ক সুলতান উদ্দিন চেয়ারম্যান, সদর থানা বিএনপির সভাপতি মজিবুর রহমান, সদস্য মো. মাহবুবুর রশিদ খান শিপু, সবদের হাসান, খাইরুল আলম, জি এস নাসিমুল ইসলাম মনির, শহিদুল ইসলাম, তানবীর আহমেদ, আনোয়ার সরকার, রফিকুল ইসলাম রাতা, বাবু চৌধুরী, আবুল হাসেম, সেলিম হোসেন, মো. ফারুক হোসেন খান, মহানগর মহিলা দলের সিনিয়র সহসভাপতি খন্দকার নুরুন্নাহার, সহসভাপতি কেয়া শারমিন, শ্রমিকদলনেত্রী ফিরোজা বেগম, হাসিনা মমতাজ, বিএনপিনেতা অ্যাডভোকেট আলম, ৩৭ নং ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি আউয়াল সরকার, বিএনপিনেতা মো. মাহফুজুর রহমান ও ৪৯ নং ওয়ার্ড বিএনপির যুববিষয়ক সম্পাদক মোবারক হোসেন মিলন।

এ ব্যাপারে গাজীপুর মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব শওকত হোসেন সরকার বলেন, ‘যারা দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে সিটি নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন দল তাদের বিরুদ্ধে কঠোর সিদ্ধান্ত নেবে। দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান এ ব্যাপারে কঠোর বার্তা দিয়েছেন। গাজীপুরে ইতোমধ্যে ৩০ জনকে চিঠি দেওয়া হয়েছে।’

নিউজটি শেয়ার করুন

গাজীপুরে নির্বাচনে অংশ নেওয়া ৩০ নেতাকে বিএনপির শোকজ

আপডেট সময় : ০৫:৪৮:০১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ মে ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক: দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে অংশ নেওয়ায় বিএনপির ৩০ নেতাকে দলের পক্ষ থেকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে। নোটিশে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তাদের লিখিত জবাব দিতে বলা হয়েছে।

শোকজ পাওয়া সবাই গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে কাউন্সিলর পদে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এদের মধ্যে নগরীর ১৫ নং ওয়ার্ড থেকে মহানগর শ্রমিকদলের সদস্য সচিব ফয়সাল আহমদ সরকার বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। শোকজ পাওয়া ওই ৩০ জন মহানগর বিএনপির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা।

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী ওই শোকজ নোটিশে স্বাক্ষর করেছেন। আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে লিখিত জবাব দলের কেন্দ্রীয় দপ্তরে জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে সিটি করপোরেশনের ৩৬ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদপ্রার্থী হান্নান মিয়া হান্নু চিঠি পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘দলের চিঠি পেয়েছি। মহানগর নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করে শোকজের জবাব দেওয়া হবে।’

শোকজ নোটিস পাওয়া কাউন্সিলর পদপ্রার্থী বিএনপিনেতারা হলেন সদর থানার আহ্বায়ক হাসান আজমল ভুইয়া, সাবেক আহ্বায়ক হান্নান মিয়া হান্নু, বাসন থানার সাধারণ সম্পাদক মোসলেম উদ্দিন চৌধুরী মূসা, টঙ্গী পূর্ব থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সফি উদ্দিন, টঙ্গী পশ্চিম থানা বিএনপির সাবেক সভাপতি শেখ আলেক, মহানগর শ্রমিকদলের আহ্বায়ক ফয়সাল আহমদ সরকার, পূবাইল থানা বিএনপির সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট নজরুল ইসলাম বিকি, সাবেক আহ্বায়ক সুলতান উদ্দিন চেয়ারম্যান, সদর থানা বিএনপির সভাপতি মজিবুর রহমান, সদস্য মো. মাহবুবুর রশিদ খান শিপু, সবদের হাসান, খাইরুল আলম, জি এস নাসিমুল ইসলাম মনির, শহিদুল ইসলাম, তানবীর আহমেদ, আনোয়ার সরকার, রফিকুল ইসলাম রাতা, বাবু চৌধুরী, আবুল হাসেম, সেলিম হোসেন, মো. ফারুক হোসেন খান, মহানগর মহিলা দলের সিনিয়র সহসভাপতি খন্দকার নুরুন্নাহার, সহসভাপতি কেয়া শারমিন, শ্রমিকদলনেত্রী ফিরোজা বেগম, হাসিনা মমতাজ, বিএনপিনেতা অ্যাডভোকেট আলম, ৩৭ নং ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি আউয়াল সরকার, বিএনপিনেতা মো. মাহফুজুর রহমান ও ৪৯ নং ওয়ার্ড বিএনপির যুববিষয়ক সম্পাদক মোবারক হোসেন মিলন।

এ ব্যাপারে গাজীপুর মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব শওকত হোসেন সরকার বলেন, ‘যারা দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে সিটি নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন দল তাদের বিরুদ্ধে কঠোর সিদ্ধান্ত নেবে। দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান এ ব্যাপারে কঠোর বার্তা দিয়েছেন। গাজীপুরে ইতোমধ্যে ৩০ জনকে চিঠি দেওয়া হয়েছে।’