ঢাকা ০৫:৫২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

গাজীপুরে নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের মহাসড়ক অবরোধ 

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৫:৩৮:৫৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুলাই ২০২৩
  • / ৪৬৭ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
// কাজী মকবুল, গাজীপুর থেকে //
গাজীপুরের টঙ্গীতে নিরাপদ সড়ক ও ফুটওভার ব্রিজ নির্মানসহ পাঁচ দফা দাবি নিয়ে মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা। একের একের পর সড়ক দুর্ঘটনায় ফুঁসে উঠেছে শিক্ষার্থীরা। দুপুরে টঙ্গীর কলেজ গেইট এলাকার শিক্ষার্থীরা মানববন্ধনে অংশ নেয়। পরে টঙ্গীর আশেপাশের বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা অবরোধ কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে শিক্ষার্থীরা ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের উভয় পাশের সড়কে যানচলাচল বন্ধ করে দিয়ে বিক্ষোভ শুরু করে। এ সময় শিক্ষার্থীদের শান্ত করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও বিআরটি প্রকল্পের উর্ধ্বতন কর্মকতারা ঘটনাস্থলে যান। পরে শিক্ষার্থীদের পক্ষ ফুটওভার ব্রিজ নির্মান, স্পিড ব্রেকার, স্থায়ী ট্রাফিক পুলিশ মোতায়েন, বিআরটি প্রকল্পের মাঝখানের লেন বন্ধ ও ঘাতক জলসিড়ি বাসের চালক এবং হেলপারের ফাঁসির দাবি করা হয়।
উল্লেখ্য, চাঁদনী আক্তার পিতা খোকন মিয়া গ্রামের বাড়ি শরীয়তপুর জাজিরা থানা ১৬ জুলাই সকাল সাড়ে ৯ ঘটিকার সময় গাজীপুর টঙ্গী হোসেন মার্কেট এলাকায় রাস্তা পারাপার হতে গিয়ে বাস চাপায় নিহত হয়েছেন। নিহত চাঁদনী আক্তার স্কয়ার কোম্পানি মার্কেটিং বিভাগে চাকরি করতেন এবং গত এক সপ্তাহে টঙ্গীর কলেজ গেইট এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীসহ মোট ৩জন মারা যান, আহত হন বেশ কয়েকজন।

নিউজটি শেয়ার করুন

গাজীপুরে নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের মহাসড়ক অবরোধ 

আপডেট সময় : ০৫:৩৮:৫৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুলাই ২০২৩
// কাজী মকবুল, গাজীপুর থেকে //
গাজীপুরের টঙ্গীতে নিরাপদ সড়ক ও ফুটওভার ব্রিজ নির্মানসহ পাঁচ দফা দাবি নিয়ে মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা। একের একের পর সড়ক দুর্ঘটনায় ফুঁসে উঠেছে শিক্ষার্থীরা। দুপুরে টঙ্গীর কলেজ গেইট এলাকার শিক্ষার্থীরা মানববন্ধনে অংশ নেয়। পরে টঙ্গীর আশেপাশের বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা অবরোধ কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে শিক্ষার্থীরা ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের উভয় পাশের সড়কে যানচলাচল বন্ধ করে দিয়ে বিক্ষোভ শুরু করে। এ সময় শিক্ষার্থীদের শান্ত করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও বিআরটি প্রকল্পের উর্ধ্বতন কর্মকতারা ঘটনাস্থলে যান। পরে শিক্ষার্থীদের পক্ষ ফুটওভার ব্রিজ নির্মান, স্পিড ব্রেকার, স্থায়ী ট্রাফিক পুলিশ মোতায়েন, বিআরটি প্রকল্পের মাঝখানের লেন বন্ধ ও ঘাতক জলসিড়ি বাসের চালক এবং হেলপারের ফাঁসির দাবি করা হয়।
উল্লেখ্য, চাঁদনী আক্তার পিতা খোকন মিয়া গ্রামের বাড়ি শরীয়তপুর জাজিরা থানা ১৬ জুলাই সকাল সাড়ে ৯ ঘটিকার সময় গাজীপুর টঙ্গী হোসেন মার্কেট এলাকায় রাস্তা পারাপার হতে গিয়ে বাস চাপায় নিহত হয়েছেন। নিহত চাঁদনী আক্তার স্কয়ার কোম্পানি মার্কেটিং বিভাগে চাকরি করতেন এবং গত এক সপ্তাহে টঙ্গীর কলেজ গেইট এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীসহ মোট ৩জন মারা যান, আহত হন বেশ কয়েকজন।