ঢাকা ০৪:৫৯ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

গাজা নিয়ে ব্লিঙ্কেন ও কাতারের প্রধানমন্ত্রীর আলোচনা

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০১:৩৫:৩২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩১ অক্টোবর ২০২৩
  • / ৫৬৭ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ফিলিস্তিনের গাজায় মানবিক সহায়তা বাড়ানোর প্রয়োজনীয়তা নিয়ে কাতারের প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মদ বিন আবদুল রহমান বিন জসিম আল থানির সঙ্গে আলোচনা করেছেন বলে জানিয়েছেন আমেরিকার পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দেওয়া এক পোস্টে ব্লিঙ্কেন এ তথ্য জানিয়েছেন বলে কাতারভিত্তিক গণমাধ্যম আল জাজিরা এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে (সাবেক টুইটার) দেওয়া পোস্টে ব্লিঙ্কেন লিখেছেন, তিনি কাতারের প্রধানমন্ত্রীকে বলেছেন যে গাজা থেকে মার্কিন নাগরিকদের সরিয়ে নেওয়া ও হামাসের হাতে জিম্মিদের মুক্তির ব্যাপারে কাতার অত্যন্ত প্রশংসনীয় ভূমিকা পালন করেছে।

আল জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কাতারের মধ্যস্থতায় এ পর্যন্ত গাজা থেকে অন্তত চার বন্দিকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে। এদিকে ইসরায়েল জানিয়েছে, গাজায় এখনও অন্তত ২৩৮ জন বন্দী রয়েছে।

অ্যাক্সিওস নিউজ ওয়েবসাইট জানিয়েছে, জিম্মিদের মুক্তির ব্যাপারে আলোচনা করতে ইসরায়েলের গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদের প্রধান কাতারের রাজধানী দোহায় গেছেন। তবে এ ব্যাপারে মন্তব্য জানতে কাতারের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে যোগাযোগ করেও সাড়া মেলেনি বলে জানিয়েছে আল জাজিরা।

গাজায় গত ২৩ দিন ধরে সংঘাত চলছে। বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, গত ২৩ দিনে ফিলিস্তিনের গাজায় ইসরায়েলের নির্বিচার বিমান হামলা ও গোলাবর্ষণে এ পর্যন্ত ৮ হাজার ৩০৬ জন নিহত হয়েছে। গতকাল সোমবার এ তথ্য জানিয়েছে ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। নিহতদের মধ্যে ৩ হাজার ৪৫৭টি শিশু আর ২ হাজার ১৩৬ জন নারী। এ ছাড়া বয়োবৃদ্ধ রয়েছেন ৪৮০ জন। পশ্চিম তীরে নিহত হয়েছেন ১১৯ ফিলিস্তিনি। ৭ অক্টোবর হামাসের আকস্মিক হামলার পর ইসরায়েল গাজায় হামলা শুরু করে।

নিউজটি শেয়ার করুন

গাজা নিয়ে ব্লিঙ্কেন ও কাতারের প্রধানমন্ত্রীর আলোচনা

আপডেট সময় : ০১:৩৫:৩২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩১ অক্টোবর ২০২৩

ফিলিস্তিনের গাজায় মানবিক সহায়তা বাড়ানোর প্রয়োজনীয়তা নিয়ে কাতারের প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মদ বিন আবদুল রহমান বিন জসিম আল থানির সঙ্গে আলোচনা করেছেন বলে জানিয়েছেন আমেরিকার পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দেওয়া এক পোস্টে ব্লিঙ্কেন এ তথ্য জানিয়েছেন বলে কাতারভিত্তিক গণমাধ্যম আল জাজিরা এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে (সাবেক টুইটার) দেওয়া পোস্টে ব্লিঙ্কেন লিখেছেন, তিনি কাতারের প্রধানমন্ত্রীকে বলেছেন যে গাজা থেকে মার্কিন নাগরিকদের সরিয়ে নেওয়া ও হামাসের হাতে জিম্মিদের মুক্তির ব্যাপারে কাতার অত্যন্ত প্রশংসনীয় ভূমিকা পালন করেছে।

আল জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কাতারের মধ্যস্থতায় এ পর্যন্ত গাজা থেকে অন্তত চার বন্দিকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে। এদিকে ইসরায়েল জানিয়েছে, গাজায় এখনও অন্তত ২৩৮ জন বন্দী রয়েছে।

অ্যাক্সিওস নিউজ ওয়েবসাইট জানিয়েছে, জিম্মিদের মুক্তির ব্যাপারে আলোচনা করতে ইসরায়েলের গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদের প্রধান কাতারের রাজধানী দোহায় গেছেন। তবে এ ব্যাপারে মন্তব্য জানতে কাতারের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে যোগাযোগ করেও সাড়া মেলেনি বলে জানিয়েছে আল জাজিরা।

গাজায় গত ২৩ দিন ধরে সংঘাত চলছে। বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, গত ২৩ দিনে ফিলিস্তিনের গাজায় ইসরায়েলের নির্বিচার বিমান হামলা ও গোলাবর্ষণে এ পর্যন্ত ৮ হাজার ৩০৬ জন নিহত হয়েছে। গতকাল সোমবার এ তথ্য জানিয়েছে ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। নিহতদের মধ্যে ৩ হাজার ৪৫৭টি শিশু আর ২ হাজার ১৩৬ জন নারী। এ ছাড়া বয়োবৃদ্ধ রয়েছেন ৪৮০ জন। পশ্চিম তীরে নিহত হয়েছেন ১১৯ ফিলিস্তিনি। ৭ অক্টোবর হামাসের আকস্মিক হামলার পর ইসরায়েল গাজায় হামলা শুরু করে।