ঢাকা ০৯:১০ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

গাজায় যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব: মানছেনা হামাস ও ইসরাইল

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০১:৫৬:১৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ মার্চ ২০২৪
  • / ৪৪৯ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে গাজায় অবিলম্বে যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানিয়ে পাস হওয়া প্রস্তাবকে স্বাগত জানিয়েছে ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী গোষ্ঠী হামাস ও বিশ্ব নেতারা। তবে, যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব পাস হওয়া সত্ত্বেও গাজায় হামলা চালানোর ঘোষণা দিয়েছে ইসরাইল।

স্থানীয় সময় সোমবার ইসরাইলের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইসরায়েল কাটজ বলেছেন, গাজায় ইসরাইলের গুলি থামবে না। হামাসকে ধ্বংস করা এবং জিম্মিদের ফিরিয়ে না আন পর্যন্ত গাজায় লড়াই চলবে।

এদিকে, হামাস নিরাপত্তা পরিষদের প্রস্তাবকে স্বাগত জানিয়ে বলেছেন, এটি গুরুত্বপূর্ণ ও তাৎপর্যপূর্ণ। কিন্তু ইসরাইল তা যেন মেনে চলে, সেটি নিশ্চিত করতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় এখন কীভাবে কাজ করবে তা এখন গুরুত্বপূর্ণ।

অস্ট্রেলিয়া এই যুদ্ধবিরতির প্রস্তাবকে স্বাগত জানিয়ছে। দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী পেনি ওং বলেছেন, সব পক্ষকে জাতিসংঘের যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব মেনে চলতে হবে।

সোমবার জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে গাজায় অবিলম্বে যুদ্ধবিরতি ও শর্তহীনভাবে হামাসের হাতে সব জিম্মির মুক্তির আহ্বান জানিয়ে একটি প্রস্তাব পাস হয়েছে। পরিষদের ১৫ সদস্য রাষ্ট্রের মধ্যে ১৪টি রাষ্ট্র প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দিয়েছে। অতীতে যুদ্ধবিরতির আহ্বানে ভেটো দিলেও এবার ভোটদানে বিরত ছিল যুক্তরাষ্ট্র। ফলে প্রস্তাবটি পাস হয়।

যদিও আমেরিকার দাবি, জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে গাজায় যুদ্ধবিরতির পাস হওয়া প্রস্তাব আন্তর্জাতিক আইনের অধীনে বাধ্যতামূলক নয়। তবে তাদের এই দাবি প্রত্যাখান করে জাতিসংঘ জানিয়েছে, নিরাপত্তা পরিষদের সব রেজুলেশনই আন্তর্জাতিক আইন।

নিউজটি শেয়ার করুন

গাজায় যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব: মানছেনা হামাস ও ইসরাইল

আপডেট সময় : ০১:৫৬:১৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ মার্চ ২০২৪

জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে গাজায় অবিলম্বে যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানিয়ে পাস হওয়া প্রস্তাবকে স্বাগত জানিয়েছে ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী গোষ্ঠী হামাস ও বিশ্ব নেতারা। তবে, যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব পাস হওয়া সত্ত্বেও গাজায় হামলা চালানোর ঘোষণা দিয়েছে ইসরাইল।

স্থানীয় সময় সোমবার ইসরাইলের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইসরায়েল কাটজ বলেছেন, গাজায় ইসরাইলের গুলি থামবে না। হামাসকে ধ্বংস করা এবং জিম্মিদের ফিরিয়ে না আন পর্যন্ত গাজায় লড়াই চলবে।

এদিকে, হামাস নিরাপত্তা পরিষদের প্রস্তাবকে স্বাগত জানিয়ে বলেছেন, এটি গুরুত্বপূর্ণ ও তাৎপর্যপূর্ণ। কিন্তু ইসরাইল তা যেন মেনে চলে, সেটি নিশ্চিত করতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় এখন কীভাবে কাজ করবে তা এখন গুরুত্বপূর্ণ।

অস্ট্রেলিয়া এই যুদ্ধবিরতির প্রস্তাবকে স্বাগত জানিয়ছে। দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী পেনি ওং বলেছেন, সব পক্ষকে জাতিসংঘের যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব মেনে চলতে হবে।

সোমবার জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে গাজায় অবিলম্বে যুদ্ধবিরতি ও শর্তহীনভাবে হামাসের হাতে সব জিম্মির মুক্তির আহ্বান জানিয়ে একটি প্রস্তাব পাস হয়েছে। পরিষদের ১৫ সদস্য রাষ্ট্রের মধ্যে ১৪টি রাষ্ট্র প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দিয়েছে। অতীতে যুদ্ধবিরতির আহ্বানে ভেটো দিলেও এবার ভোটদানে বিরত ছিল যুক্তরাষ্ট্র। ফলে প্রস্তাবটি পাস হয়।

যদিও আমেরিকার দাবি, জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে গাজায় যুদ্ধবিরতির পাস হওয়া প্রস্তাব আন্তর্জাতিক আইনের অধীনে বাধ্যতামূলক নয়। তবে তাদের এই দাবি প্রত্যাখান করে জাতিসংঘ জানিয়েছে, নিরাপত্তা পরিষদের সব রেজুলেশনই আন্তর্জাতিক আইন।