ঢাকা ০২:২৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

গলাচিপায় এক সাথে তিন শিশুর জন্ম

গলাচিপা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ০৪:৫১:৩৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৪ এপ্রিল ২০২৪
  • / ৫১১ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
দরিদ্র জেলে পরিবারের আছিয়া বেগম (১৯) স্বাভাবিকভাবে তিন ছেলের জন্ম দিয়ে এলাকায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার রাত তিনটায় গলাচিপা উপজেলার নাঈমা কবীর ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও ক্লিনিকে। এখন পর্যন্ত দুটি শিশু সুস্থ থাকলেও একটি শিশুর শ্বাসকষ্ট রয়েছে। মা সুস্থ আছেন।
নাঈমা কবীর ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ জানায়, বুধবার রাত নয় টার দিকে রাঙ্গাবালী উপজেলার চালিতাবুনিয়া ইউনিয়নের গরুভাঙ্গা গ্রামের রাজিব হাওলাদারের স্ত্রী আছিয়া বেগম অসুস্থ হলে ক্লিনিকে ভর্তি হয়। পরে আছিয়ার সিজার ছাড়া সন্তান প্রসবের জন্য চিকিৎসকরা অপেক্ষা করতে থাকেন।
এক সময় রাত তিনটার দিকে আছিয়া বেগম পর পর তিনটি পুত্র সন্তানের জন্ম দেয়। প্রথম শিশুটির ওজন ১.৯
দ্বিতীয়টির ১.৫ ও তৃতীয়টির ওজন ১.৪ কেজি। শিশুর মা আছিয়া বেগমের সুস্থ হতে কিছুদিন সময় লাগবে। আমরা চারজনেরই পর্যবেক্ষণে রেখেছি।
এ বিষয়ে আছিয়া বেগমের স্বামী রাজিব হাওলাদার বলেন, আমি দরিদ্র জেলে। আমার একার আয় দিয়ে সংসার চলে। আমার বউ (স্ত্রী) বুধবার দুপুরে অসুস্থ হইলে গলাচিপা নিয়া আসি। এখানে আসার পর আমরা জানতে পারি তার গর্ভে একাধিক সন্তান রয়েছে। রাইত তিনটায় পর পর তিনটি ছেলে সন্তান জন্ম দেয়। এখন মা ও বাচ্চাদের চিকিৎসা খরচ চালানো আমার পক্ষে কষ্ট হয়ে যাচ্ছে। এদিকে ডাক্তাররা একটি বাচ্চার শ্বাসকষ্ট হলে তাকে পটুয়াখালী সদর হাসপাতালে নিয়ে যেতে বলছে। কি করবো বুঝতে পারছি না।
বাখ//আর

নিউজটি শেয়ার করুন

গলাচিপায় এক সাথে তিন শিশুর জন্ম

আপডেট সময় : ০৪:৫১:৩৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৪ এপ্রিল ২০২৪
দরিদ্র জেলে পরিবারের আছিয়া বেগম (১৯) স্বাভাবিকভাবে তিন ছেলের জন্ম দিয়ে এলাকায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার রাত তিনটায় গলাচিপা উপজেলার নাঈমা কবীর ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও ক্লিনিকে। এখন পর্যন্ত দুটি শিশু সুস্থ থাকলেও একটি শিশুর শ্বাসকষ্ট রয়েছে। মা সুস্থ আছেন।
নাঈমা কবীর ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ জানায়, বুধবার রাত নয় টার দিকে রাঙ্গাবালী উপজেলার চালিতাবুনিয়া ইউনিয়নের গরুভাঙ্গা গ্রামের রাজিব হাওলাদারের স্ত্রী আছিয়া বেগম অসুস্থ হলে ক্লিনিকে ভর্তি হয়। পরে আছিয়ার সিজার ছাড়া সন্তান প্রসবের জন্য চিকিৎসকরা অপেক্ষা করতে থাকেন।
এক সময় রাত তিনটার দিকে আছিয়া বেগম পর পর তিনটি পুত্র সন্তানের জন্ম দেয়। প্রথম শিশুটির ওজন ১.৯
দ্বিতীয়টির ১.৫ ও তৃতীয়টির ওজন ১.৪ কেজি। শিশুর মা আছিয়া বেগমের সুস্থ হতে কিছুদিন সময় লাগবে। আমরা চারজনেরই পর্যবেক্ষণে রেখেছি।
এ বিষয়ে আছিয়া বেগমের স্বামী রাজিব হাওলাদার বলেন, আমি দরিদ্র জেলে। আমার একার আয় দিয়ে সংসার চলে। আমার বউ (স্ত্রী) বুধবার দুপুরে অসুস্থ হইলে গলাচিপা নিয়া আসি। এখানে আসার পর আমরা জানতে পারি তার গর্ভে একাধিক সন্তান রয়েছে। রাইত তিনটায় পর পর তিনটি ছেলে সন্তান জন্ম দেয়। এখন মা ও বাচ্চাদের চিকিৎসা খরচ চালানো আমার পক্ষে কষ্ট হয়ে যাচ্ছে। এদিকে ডাক্তাররা একটি বাচ্চার শ্বাসকষ্ট হলে তাকে পটুয়াখালী সদর হাসপাতালে নিয়ে যেতে বলছে। কি করবো বুঝতে পারছি না।
বাখ//আর