ঢাকা ০৫:৫৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

গণতন্ত্রকে নিঃশেষ করে দিয়েছে আওয়ামী লীগ : মিনু

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৭:৫১:৩৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩
  • / ৪৪৫ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নওগাঁ প্রতিনিধি:

গণতন্ত্রকে নিঃশেষ করে দিয়েছে আওয়ামী লীগ। আন্দোলন ছাড়া গণতন্ত্রকে পুনরুদ্ধার করার কোন উপায় নেই বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন এর সাবেক মেয়র মিজানুর রহমান মিনু। শনিবার দুপুরে নওগাঁ জেলা বিএনপি আয়োজিত পদযাত্রার উদ্বোধনের সময় এ সমব কথা বলেন তিনি।

এ সময় মিজানুর রহমান মিনু বলেন, জনগণ আর আওয়ামী লীগ সরকারকে ক্ষমতায় দেখতে চায় না। চাল, ডাল, আটা, তেলসহ নিত্যপণ্যের দাম বেড়ে যাওয়ায় মানুষ আজ অসহায়। এই অসহায় মানুষগুলো এখন আর আওয়ামী লীগ সরকারকে ক্ষমতায় দেখতে চায় না। গণতন্ত্রকে নিঃশেষ করে দিয়েছে আওয়ামী লীগ।

প্রশাসনের কথা উল্লেখ করে মিনু বলেন, দেশের শতকরা ৮০ ভাগ প্রসাশনের কর্মকর্তারা আমাদের বন্ধু। কতিপয় কিছু প্রসাশনের কর্মকর্তারা আওয়ামী লীগ সরকারের পক্ষে অন্যায় ভাবে আমাদের নেতা-কর্মীদের উপর দমন নিপীড়ন চালাচ্ছেন। এমনকি হত্যা, খুন, গুমের রাজনীতি করছে এ সরকার। এমন পরিস্থিতিতে আন্দোলন ছাড়া গণতন্ত্রকে পুনরুদ্ধার করার কোন উপায় নেই।

মিজানুর রহমান মিনু আরও বলেন, জণগন আমাদের বন্ধু, সারাবিশ্ব আমাদের বন্ধু। আগামী দিনে এই সরকারের বিদায় হবে, নিরপেক্ষ সরকার হবে, দেশের মানুষ মুক্তি পাবে এই অবৈধ সরকারের কাছে থেকে। নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে আওয়ামী লীগ ২০টি আসনও পাবে না। দেশ ও দেশের মানুষের মুক্তির জন্য কঠোর আন্দোলনের কোন বিকল্প নাই। বিএনপি মাঠে আছে, আগামীতেও থাকবে। আন্দোলনের মাধ্যমেই এই সরকারকে পতন করা হবে। এই সরকারকে পতনের জন্য বিএনপির সাথে আছে দেশের জনগন। তাই রাজপথেই সকল অশক্তির মোকাবেলা করা হবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা বিএনপির আহবায়ক আবু বকর সিদ্দিক নান্নু, সদস্য সচিব বায়েজিত হোসেন পলাশ, নওগাঁ পৌরসভার মেয়র নজমুল হক সনি, জেলা বিএনপির সাবেক সাধারন সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম ধলু, বিএনপি নেতা মামুনুর রহমান রিপন, খাঁজা নজিমুল্লাহ, ফজলে হুদা বাবুলসহ জেলা বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদল, সেচ্ছাসেবক দল, মহিলা দলসহ জেলার ১১টি উপজেলা থেকে শত শত নেতা-কর্মীরা অংশগ্রহণ করে। পরে শহরের নোওজোয়ান মাঠ থেকে পদযাত্রাটি বের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে পুনরায় সেখানে গিয়ে শেষ হয়। এতে প্রায় আড়াই হাজার নেতা-কর্মীরা অংশ নেয়।

বা/খ: এসআর।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

গণতন্ত্রকে নিঃশেষ করে দিয়েছে আওয়ামী লীগ : মিনু

আপডেট সময় : ০৭:৫১:৩৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

নওগাঁ প্রতিনিধি:

গণতন্ত্রকে নিঃশেষ করে দিয়েছে আওয়ামী লীগ। আন্দোলন ছাড়া গণতন্ত্রকে পুনরুদ্ধার করার কোন উপায় নেই বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন এর সাবেক মেয়র মিজানুর রহমান মিনু। শনিবার দুপুরে নওগাঁ জেলা বিএনপি আয়োজিত পদযাত্রার উদ্বোধনের সময় এ সমব কথা বলেন তিনি।

এ সময় মিজানুর রহমান মিনু বলেন, জনগণ আর আওয়ামী লীগ সরকারকে ক্ষমতায় দেখতে চায় না। চাল, ডাল, আটা, তেলসহ নিত্যপণ্যের দাম বেড়ে যাওয়ায় মানুষ আজ অসহায়। এই অসহায় মানুষগুলো এখন আর আওয়ামী লীগ সরকারকে ক্ষমতায় দেখতে চায় না। গণতন্ত্রকে নিঃশেষ করে দিয়েছে আওয়ামী লীগ।

প্রশাসনের কথা উল্লেখ করে মিনু বলেন, দেশের শতকরা ৮০ ভাগ প্রসাশনের কর্মকর্তারা আমাদের বন্ধু। কতিপয় কিছু প্রসাশনের কর্মকর্তারা আওয়ামী লীগ সরকারের পক্ষে অন্যায় ভাবে আমাদের নেতা-কর্মীদের উপর দমন নিপীড়ন চালাচ্ছেন। এমনকি হত্যা, খুন, গুমের রাজনীতি করছে এ সরকার। এমন পরিস্থিতিতে আন্দোলন ছাড়া গণতন্ত্রকে পুনরুদ্ধার করার কোন উপায় নেই।

মিজানুর রহমান মিনু আরও বলেন, জণগন আমাদের বন্ধু, সারাবিশ্ব আমাদের বন্ধু। আগামী দিনে এই সরকারের বিদায় হবে, নিরপেক্ষ সরকার হবে, দেশের মানুষ মুক্তি পাবে এই অবৈধ সরকারের কাছে থেকে। নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে আওয়ামী লীগ ২০টি আসনও পাবে না। দেশ ও দেশের মানুষের মুক্তির জন্য কঠোর আন্দোলনের কোন বিকল্প নাই। বিএনপি মাঠে আছে, আগামীতেও থাকবে। আন্দোলনের মাধ্যমেই এই সরকারকে পতন করা হবে। এই সরকারকে পতনের জন্য বিএনপির সাথে আছে দেশের জনগন। তাই রাজপথেই সকল অশক্তির মোকাবেলা করা হবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা বিএনপির আহবায়ক আবু বকর সিদ্দিক নান্নু, সদস্য সচিব বায়েজিত হোসেন পলাশ, নওগাঁ পৌরসভার মেয়র নজমুল হক সনি, জেলা বিএনপির সাবেক সাধারন সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম ধলু, বিএনপি নেতা মামুনুর রহমান রিপন, খাঁজা নজিমুল্লাহ, ফজলে হুদা বাবুলসহ জেলা বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদল, সেচ্ছাসেবক দল, মহিলা দলসহ জেলার ১১টি উপজেলা থেকে শত শত নেতা-কর্মীরা অংশগ্রহণ করে। পরে শহরের নোওজোয়ান মাঠ থেকে পদযাত্রাটি বের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে পুনরায় সেখানে গিয়ে শেষ হয়। এতে প্রায় আড়াই হাজার নেতা-কর্মীরা অংশ নেয়।

বা/খ: এসআর।