ঢাকা ০৩:২৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

খেজুরের রসের হাট

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০২:১৭:৫২ অপরাহ্ন, রবিবার, ৮ জানুয়ারী ২০২৩
  • / ৪৬১ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

বিশেষ প্রতিবেদক :

কুমিল্লায় টাটকা খেজুরের রস আস্বাদনের হাট বসেছে গোমতী নদীর বাঁধের সড়কের পাশে গোলাবাড়ী এলাকায়। গোমতী নদীর বাঁধের পাকা সড়কের দু’পাশে সারি সারি খেজুর গাছ। টাটকা রস গাছ থেকে নামিয়ে আনা হলো। নদীর পাশের সড়কের পাশে বসেই চলল কেনা বেচা। কেউ সংগ্রহ করে নিয়ে যাচ্ছে, আবার কেউ সেখানে বসেই গ্লাসে করে পান করছে।

ভোরবেলায় সেখানে গিয়ে দেখা গেছে, শত শত মানুষ ভিড় করে খেজুরের রস কিনছে। গাছের টাটকা খেজুরের রসের এমন বিকিকিনি চলায় পুরো এলাকা এখন ভোরবেলা সরব থাকে।

আশপাশের বাসিন্দারা জানিয়েছেন, প্রথম দিন রস সংগ্রহ করার খবর পাওয়ায় পরদিন থেকে শহরসহ দূরদূরান্তের মানুষ ভোর পাঁচটা থেকে ঘণ্টাখানেক অপেক্ষা করে রস কিনছে। প্রতি লিটার ৬০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। এক গ্লাস রস খুচরা ১৫ টাকায়ও বিক্রি হচ্ছে। ভোরবেলা মোটরসাইকেল দিয়ে কুমিল্লা শহর থেকে কয়েকজন বন্ধু নিয়ে রস খেতে এসেছেন তামজিদ, সম্রাট ও ফাহিম। তারা বলেন, কোনো দিন খেজুরের টাটকা রস দেখিনি, খাইওনি। লোক মারফতে জেনে  আজ খেতে এলাম। অনেক ভালো লেগেছে।

খেজুরগাছের রস সংগ্রহ সম্পর্কে কৃষি সম্প্রাসারণ অধিদপ্তরের কুমিল্লার উপ-পরিচালক মিজানুর রহমান বলেন, কুমিল্লা অঞ্চলের মাটিও খেজুর গাছের জন্য উপযোগী। কিন্তু এ অঞ্চলের মাটি অম্ল বলে গাছে রস ভালো হবে ।

রস সংগ্রহ ও বিক্রির কাজটি করছেন আবদুল্লাহ ও সিয়াম বলেন, নির্ভেজাল রসের চাহিদা বেশি হওয়ায় দামও ভালো পেয়েছি। ক্রেতাদের ব্যাপক সাড়া পেয়েছি। নিপাহ ভাইরাস থেকে রক্ষা পেতে কলসীর মুখে জাল বেঁধে দেন। এতে করে বাদুড়সহ যে কোনও পাখি সেই গাছের রস পানে বাধা পায়।

বা/খ: এসআর।

নিউজটি শেয়ার করুন

খেজুরের রসের হাট

আপডেট সময় : ০২:১৭:৫২ অপরাহ্ন, রবিবার, ৮ জানুয়ারী ২০২৩

বিশেষ প্রতিবেদক :

কুমিল্লায় টাটকা খেজুরের রস আস্বাদনের হাট বসেছে গোমতী নদীর বাঁধের সড়কের পাশে গোলাবাড়ী এলাকায়। গোমতী নদীর বাঁধের পাকা সড়কের দু’পাশে সারি সারি খেজুর গাছ। টাটকা রস গাছ থেকে নামিয়ে আনা হলো। নদীর পাশের সড়কের পাশে বসেই চলল কেনা বেচা। কেউ সংগ্রহ করে নিয়ে যাচ্ছে, আবার কেউ সেখানে বসেই গ্লাসে করে পান করছে।

ভোরবেলায় সেখানে গিয়ে দেখা গেছে, শত শত মানুষ ভিড় করে খেজুরের রস কিনছে। গাছের টাটকা খেজুরের রসের এমন বিকিকিনি চলায় পুরো এলাকা এখন ভোরবেলা সরব থাকে।

আশপাশের বাসিন্দারা জানিয়েছেন, প্রথম দিন রস সংগ্রহ করার খবর পাওয়ায় পরদিন থেকে শহরসহ দূরদূরান্তের মানুষ ভোর পাঁচটা থেকে ঘণ্টাখানেক অপেক্ষা করে রস কিনছে। প্রতি লিটার ৬০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। এক গ্লাস রস খুচরা ১৫ টাকায়ও বিক্রি হচ্ছে। ভোরবেলা মোটরসাইকেল দিয়ে কুমিল্লা শহর থেকে কয়েকজন বন্ধু নিয়ে রস খেতে এসেছেন তামজিদ, সম্রাট ও ফাহিম। তারা বলেন, কোনো দিন খেজুরের টাটকা রস দেখিনি, খাইওনি। লোক মারফতে জেনে  আজ খেতে এলাম। অনেক ভালো লেগেছে।

খেজুরগাছের রস সংগ্রহ সম্পর্কে কৃষি সম্প্রাসারণ অধিদপ্তরের কুমিল্লার উপ-পরিচালক মিজানুর রহমান বলেন, কুমিল্লা অঞ্চলের মাটিও খেজুর গাছের জন্য উপযোগী। কিন্তু এ অঞ্চলের মাটি অম্ল বলে গাছে রস ভালো হবে ।

রস সংগ্রহ ও বিক্রির কাজটি করছেন আবদুল্লাহ ও সিয়াম বলেন, নির্ভেজাল রসের চাহিদা বেশি হওয়ায় দামও ভালো পেয়েছি। ক্রেতাদের ব্যাপক সাড়া পেয়েছি। নিপাহ ভাইরাস থেকে রক্ষা পেতে কলসীর মুখে জাল বেঁধে দেন। এতে করে বাদুড়সহ যে কোনও পাখি সেই গাছের রস পানে বাধা পায়।

বা/খ: এসআর।