ঢাকা ০৬:০৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

ক্ষমা চাইলেন মার্ক জাকারবার্গ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০১:৩৩:৪১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • / ৪৯৮ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

অনলাইনে শিশুদের মানসিক স্বাস্থ্যের ক্ষতি এবং যৌন হয়রানির অভিযোগে পাঁচটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের বিরুদ্ধে মার্কিন কংগ্রেসে শুনানি অনুষ্ঠিত হয়েছে। এসময় ক্ষতিগ্রস্ত অভিভাবকদের কাছে ক্ষমা প্রার্থণা করেছেন ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী (সিইও) মার্ক জাকারবার্গ।

বুধবার (৩১শে জানুয়ারি) কংগ্রেসে ‘বিগ টেক অ্যান্ড দ্য অনলাইন চাইল্ড সেক্সুয়াল এক্সপ্লয়টেশন ক্রাইসিস’ শীর্ষক শুনানিতে যে পাঁচজন নির্বাহীকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে, তাদের একজন জাকারবার্গ। এতে আরও উপস্থিত ছিলেন- এক্স-এর লিন্ডা ইয়াকারিনো, টিকটকের শো জি চিউ, স্ন্যাপের ইভান স্পিগেল এবং ডিসকর্ডে জেসন সিট্রন।

এদিন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যৌন নিপীড়ন বা হয়রানির শিকার হয়ে মারা যাওয়া সন্তানদের ছবি নিয়ে সিনেট ফ্লোরে এসেছিলেন বাবা-মায়েরা।

মার্কিন জনপ্রতিনিধিদের অভিযোগ, বড় প্রযুক্তি কোম্পানিগুলো অনলাইনে যৌন হয়রানি থেকে শিশুদের রক্ষায় যথেষ্ট ভূমিকা রাখছে না। তারা আরও কঠোর আইন চান। একই সঙ্গে এখন পর্যন্ত নেওয়া পদক্ষেপ বিষয়ে নির্বাহীদের কাছ থেকে জানতে চান মার্কিন জনপ্রতিনিধিরা।

এসময় জাকারবার্গ দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, পরিবারগুলো যে ক্ষতির শিকার হয়েছে, এ রকম হওয়া উচিত নয়। প্রতিরোধের জন্য বিনিয়োগ করা হয় জানিয়ে তিনি বলেন এমনটি যেন আর কারও সঙ্গে না হয়। আর এসব থামাতে চেষ্টা চালিয়ে যাওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

নিউজটি শেয়ার করুন

ক্ষমা চাইলেন মার্ক জাকারবার্গ

আপডেট সময় : ০১:৩৩:৪১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

অনলাইনে শিশুদের মানসিক স্বাস্থ্যের ক্ষতি এবং যৌন হয়রানির অভিযোগে পাঁচটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের বিরুদ্ধে মার্কিন কংগ্রেসে শুনানি অনুষ্ঠিত হয়েছে। এসময় ক্ষতিগ্রস্ত অভিভাবকদের কাছে ক্ষমা প্রার্থণা করেছেন ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী (সিইও) মার্ক জাকারবার্গ।

বুধবার (৩১শে জানুয়ারি) কংগ্রেসে ‘বিগ টেক অ্যান্ড দ্য অনলাইন চাইল্ড সেক্সুয়াল এক্সপ্লয়টেশন ক্রাইসিস’ শীর্ষক শুনানিতে যে পাঁচজন নির্বাহীকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে, তাদের একজন জাকারবার্গ। এতে আরও উপস্থিত ছিলেন- এক্স-এর লিন্ডা ইয়াকারিনো, টিকটকের শো জি চিউ, স্ন্যাপের ইভান স্পিগেল এবং ডিসকর্ডে জেসন সিট্রন।

এদিন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যৌন নিপীড়ন বা হয়রানির শিকার হয়ে মারা যাওয়া সন্তানদের ছবি নিয়ে সিনেট ফ্লোরে এসেছিলেন বাবা-মায়েরা।

মার্কিন জনপ্রতিনিধিদের অভিযোগ, বড় প্রযুক্তি কোম্পানিগুলো অনলাইনে যৌন হয়রানি থেকে শিশুদের রক্ষায় যথেষ্ট ভূমিকা রাখছে না। তারা আরও কঠোর আইন চান। একই সঙ্গে এখন পর্যন্ত নেওয়া পদক্ষেপ বিষয়ে নির্বাহীদের কাছ থেকে জানতে চান মার্কিন জনপ্রতিনিধিরা।

এসময় জাকারবার্গ দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, পরিবারগুলো যে ক্ষতির শিকার হয়েছে, এ রকম হওয়া উচিত নয়। প্রতিরোধের জন্য বিনিয়োগ করা হয় জানিয়ে তিনি বলেন এমনটি যেন আর কারও সঙ্গে না হয়। আর এসব থামাতে চেষ্টা চালিয়ে যাওয়া হবে বলেও জানান তিনি।