ঢাকা ১২:৪৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

ক্রিমিয়া সেতু ফের চালু, জানা গেল বিস্ফোরণের কারণ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:৫৪:৫৭ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৯ অক্টোবর ২০২২
  • / ৫১৭ বার পড়া হয়েছে

ক্রিমিয়া সেতু

বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

বিস্ফোরণের পর ক্রিমিয়ার সঙ্গে রাশিয়ার মূল ভূখণ্ডকে যুক্ত করা একমাত্র সেতুটি যান চলাচলের জন্য আংশিকভাবে খুলে দেয়া হয়েছে এবং শিগগিরই ট্রেন চলাচলও শুরু হবে বলে জানিয়েছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ।

রিপাবলিক অব ক্রিমিয়ার প্রধান সের্গেই আকসিওনভ এক টেলিগ্রাম পোস্টে জানান, ক্রিমিয়া সেতু দিয়ে যান চলাচল পুনরায় শুরু হয়েছে। পূর্ণাঙ্গ পর্যবেক্ষণ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে গাড়ি এবং বাস চলাচলের জন্য সেতুটি চালু করা হয়েছে। তবে ট্রাকচালকদের কের্চ ফেরি ক্রসিং ব্যবহার করার পরামর্শ দেয়া হচ্ছে।

এক প্রতিবেদনে রুশ সংবাদমাধ্যম আরটি জানায়, ক্রিমিয়া সেতুতে পুনরায় যানবাহন চলাচল শুরুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছে রাশিয়ার পরিবহন মন্ত্রণালয়ও। প্রাথমিকভাবে উভয় দিকে (রাশিয়া-ক্রিমিয়া) চলাচলের জন্য সেতুর একটি লেন চালু রয়েছে।

এর আগে বিস্ফোরণের ঘটনা তদন্তে গঠিত রুশ কমিটি শনিবার (৮ অক্টোবর) জানায়, সেতুর ওপর একটি ট্রাকে বিস্ফোরণের ফলে ক্রিমিয়ার দিকে যাওয়া একটি ট্রেনের ৭টি জ্বালানি ট্যাংকে আগুন ধরে যায়। এ ঘটনায় তিনজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

বিস্ফোরণের কারণে সেতুটির ক্ষতির পরিমাণ ২০০-৫০০ মিলিয়ন রুবল (৩.২ থেকে ৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলার) হতে পারে বলে জানিয়েছে অল-রাশিয়ান ইউনিয়ন অব ইন্স্যুরার্স।

এদিকে ক্রিমিয়া সেতুতে বিস্ফোরণের ঘটনার পর ইউক্রেনের শীর্ষ কর্মকর্তারা উল্লাস করলেও দায় স্বীকার করা থেকে বিরত থেকেছেন। তবে এস্তোনিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী উরমাস রেইনসালু কিয়েভের বিশেষ অপারেশন ইউনিটকে অভিনন্দন জানিয়েছেন, যারা এই ‘অভিযানের’ পেছনে রয়েছে বলে ধারণা অনেকের।

স্থানীয় সময় শনিবার সকালে ক্রিমিয়া উপদ্বীপের সঙ্গে রাশিয়ার মূল ভূখণ্ডকে সংযোগকারী ক্রিমিয়া সেতুতে ভয়াবহ বিস্ফোরণের এ ঘটনা ঘটে। ২০১৮ সালে সেতুটি উদ্বোধন করেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

নিউজটি শেয়ার করুন

ক্রিমিয়া সেতু ফের চালু, জানা গেল বিস্ফোরণের কারণ

আপডেট সময় : ১১:৫৪:৫৭ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৯ অক্টোবর ২০২২

বিস্ফোরণের পর ক্রিমিয়ার সঙ্গে রাশিয়ার মূল ভূখণ্ডকে যুক্ত করা একমাত্র সেতুটি যান চলাচলের জন্য আংশিকভাবে খুলে দেয়া হয়েছে এবং শিগগিরই ট্রেন চলাচলও শুরু হবে বলে জানিয়েছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ।

রিপাবলিক অব ক্রিমিয়ার প্রধান সের্গেই আকসিওনভ এক টেলিগ্রাম পোস্টে জানান, ক্রিমিয়া সেতু দিয়ে যান চলাচল পুনরায় শুরু হয়েছে। পূর্ণাঙ্গ পর্যবেক্ষণ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে গাড়ি এবং বাস চলাচলের জন্য সেতুটি চালু করা হয়েছে। তবে ট্রাকচালকদের কের্চ ফেরি ক্রসিং ব্যবহার করার পরামর্শ দেয়া হচ্ছে।

এক প্রতিবেদনে রুশ সংবাদমাধ্যম আরটি জানায়, ক্রিমিয়া সেতুতে পুনরায় যানবাহন চলাচল শুরুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছে রাশিয়ার পরিবহন মন্ত্রণালয়ও। প্রাথমিকভাবে উভয় দিকে (রাশিয়া-ক্রিমিয়া) চলাচলের জন্য সেতুর একটি লেন চালু রয়েছে।

এর আগে বিস্ফোরণের ঘটনা তদন্তে গঠিত রুশ কমিটি শনিবার (৮ অক্টোবর) জানায়, সেতুর ওপর একটি ট্রাকে বিস্ফোরণের ফলে ক্রিমিয়ার দিকে যাওয়া একটি ট্রেনের ৭টি জ্বালানি ট্যাংকে আগুন ধরে যায়। এ ঘটনায় তিনজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

বিস্ফোরণের কারণে সেতুটির ক্ষতির পরিমাণ ২০০-৫০০ মিলিয়ন রুবল (৩.২ থেকে ৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলার) হতে পারে বলে জানিয়েছে অল-রাশিয়ান ইউনিয়ন অব ইন্স্যুরার্স।

এদিকে ক্রিমিয়া সেতুতে বিস্ফোরণের ঘটনার পর ইউক্রেনের শীর্ষ কর্মকর্তারা উল্লাস করলেও দায় স্বীকার করা থেকে বিরত থেকেছেন। তবে এস্তোনিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী উরমাস রেইনসালু কিয়েভের বিশেষ অপারেশন ইউনিটকে অভিনন্দন জানিয়েছেন, যারা এই ‘অভিযানের’ পেছনে রয়েছে বলে ধারণা অনেকের।

স্থানীয় সময় শনিবার সকালে ক্রিমিয়া উপদ্বীপের সঙ্গে রাশিয়ার মূল ভূখণ্ডকে সংযোগকারী ক্রিমিয়া সেতুতে ভয়াবহ বিস্ফোরণের এ ঘটনা ঘটে। ২০১৮ সালে সেতুটি উদ্বোধন করেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।