ঢাকা ০৩:০৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

কেকের ভেতর নারী, অতঃপর…

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৮:৪১:৪১ অপরাহ্ন, রবিবার, ৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩
  • / ৪৪০ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : 

সামাজিক অনুষ্ঠানে বাড়ছে কেকের প্রচলন। আর কেক দেখে লোভ ঢেকে রাখবেন অতিথিরা, তা হয় না। কেটে কেটে খাবেন তারা, এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু সেই কেকের মধ্যে আস্ত একজন মানুষ ঢুকে পড়বে, এটা মানা যায়? তবে, এমন ঘটনা ঘটেছে সুইজারল্যান্ডে।

আর কেকটি তৈরি করেছে দেশটির একটি বেকারি, যা ইতোমধ্যে নাম লিখিয়েছে গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে। এক প্রতিবেদন বলছে, কেক দিয়ে আস্ত একটি গাউন তৈরি করে প্রস্তুতকারী বেকারি ‘সুইটিকেকস’।

১৩১ কেজিরও বেশি ওজনের কেকটির ভেতরে রাখে মানুষ ঢোকার পথ, যেন মনে হয়- কোনো নারীর পোশাক। গত ১৫ জানুয়ারি কেকটি প্রদর্শনের জন্য সুইজারল্যান্ডের রাজধানী বার্নে একটি ফ্যাশন শো’র আয়োজন করা হয়। বেকারির মালিক নাতাশা কলিন কিম ফা লি কেকের গাউনটি পরেন ও অতিথিদের দেখার জন্য উন্মুক্ত করেন।

গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ড কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, পরিধানযোগ্য কেকটির ওজন ১৩১ দশমিক ১৫ কেজি। এটি তৈরি করেছে সুইটিকেকস নামের একটি বেকারি; যার উদ্যেক্তা নাতাশা। কেকটি প্রদর্শনের জন্য একটি ফ্যাশন শোর আয়োজন করা হয়। পরিধানযোগ্য কেকটির একটি ভিডিও সোশ্যাল প্ল্যাটফর্ম ইনস্টাগ্রামে প্রকাশ করেছে গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ড কর্তৃপক্ষ।

ওই ভিডিওতে দেখা যায়, বেকারির মালিক কেকটি পরেছেন। পরে আগত অতিথিরা সেটি কেটে কেটে খাচ্ছেন। এ ছাড়া, গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডের একটি স্বীকৃতিপত্র হাতে নিয়ে সবাইকে দেখাচ্ছেন নাতাশা। ইনস্টাগ্রামে প্রকাশিত ভিডিওটি ইতোমধ্যে ১৩ লাখ বার দেখা হয়ে গেছে। অনেক মন্তব্য করেছেন নেটিজেনরা।

এক নেটিজেন কমেন্টে লেখেন, ‘কেক কোথায়? তিনি কি তা পরেছেন।’ আরেকজন লিখেছেন, ‘এটি অবিশ্বাস্য।’ কয়েক স্তরের কেকটি বিয়ের পোশাকের স্টাইলে তৈরি করা হয়েছে। এতে ঐতিহ্যের ছাপ রাখা হয়েছে। সূত্র : এনডিটিভি।

নিউজটি শেয়ার করুন

কেকের ভেতর নারী, অতঃপর…

আপডেট সময় : ০৮:৪১:৪১ অপরাহ্ন, রবিবার, ৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : 

সামাজিক অনুষ্ঠানে বাড়ছে কেকের প্রচলন। আর কেক দেখে লোভ ঢেকে রাখবেন অতিথিরা, তা হয় না। কেটে কেটে খাবেন তারা, এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু সেই কেকের মধ্যে আস্ত একজন মানুষ ঢুকে পড়বে, এটা মানা যায়? তবে, এমন ঘটনা ঘটেছে সুইজারল্যান্ডে।

আর কেকটি তৈরি করেছে দেশটির একটি বেকারি, যা ইতোমধ্যে নাম লিখিয়েছে গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে। এক প্রতিবেদন বলছে, কেক দিয়ে আস্ত একটি গাউন তৈরি করে প্রস্তুতকারী বেকারি ‘সুইটিকেকস’।

১৩১ কেজিরও বেশি ওজনের কেকটির ভেতরে রাখে মানুষ ঢোকার পথ, যেন মনে হয়- কোনো নারীর পোশাক। গত ১৫ জানুয়ারি কেকটি প্রদর্শনের জন্য সুইজারল্যান্ডের রাজধানী বার্নে একটি ফ্যাশন শো’র আয়োজন করা হয়। বেকারির মালিক নাতাশা কলিন কিম ফা লি কেকের গাউনটি পরেন ও অতিথিদের দেখার জন্য উন্মুক্ত করেন।

গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ড কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, পরিধানযোগ্য কেকটির ওজন ১৩১ দশমিক ১৫ কেজি। এটি তৈরি করেছে সুইটিকেকস নামের একটি বেকারি; যার উদ্যেক্তা নাতাশা। কেকটি প্রদর্শনের জন্য একটি ফ্যাশন শোর আয়োজন করা হয়। পরিধানযোগ্য কেকটির একটি ভিডিও সোশ্যাল প্ল্যাটফর্ম ইনস্টাগ্রামে প্রকাশ করেছে গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ড কর্তৃপক্ষ।

ওই ভিডিওতে দেখা যায়, বেকারির মালিক কেকটি পরেছেন। পরে আগত অতিথিরা সেটি কেটে কেটে খাচ্ছেন। এ ছাড়া, গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডের একটি স্বীকৃতিপত্র হাতে নিয়ে সবাইকে দেখাচ্ছেন নাতাশা। ইনস্টাগ্রামে প্রকাশিত ভিডিওটি ইতোমধ্যে ১৩ লাখ বার দেখা হয়ে গেছে। অনেক মন্তব্য করেছেন নেটিজেনরা।

এক নেটিজেন কমেন্টে লেখেন, ‘কেক কোথায়? তিনি কি তা পরেছেন।’ আরেকজন লিখেছেন, ‘এটি অবিশ্বাস্য।’ কয়েক স্তরের কেকটি বিয়ের পোশাকের স্টাইলে তৈরি করা হয়েছে। এতে ঐতিহ্যের ছাপ রাখা হয়েছে। সূত্র : এনডিটিভি।