ঢাকা ০৯:৫৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

কৃষকরাই এ দেশের অর্থনীতির মূল চালিকাশক্তি : রশীদুজ্জামান এমপি

শাহজাহান সিরাজ, কয়রা (খুলনা) প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ০৬:১০:০৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৮ মার্চ ২০২৪
  • / ৪৫৩ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

খুলনা-৬ (কয়রা-পাইকগাছা) সংসদ সদস্য মোঃ রশীদুজ্জামান বলেছেন, কৃষকরাই হচ্ছেন এদেশের অর্থনীতির মূল চালিকা শক্তি। কৃষি অর্থনীতির ওপর নির্ভর করে বাংলাদেশ আজ মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়ে আছে। তারা দেশকে স্বয়ংসম্পূর্ণ করেছে বলেই বৈদেশিক মুদ্রার উপর চাপ কম। সেখানেই দেশের শ্রমশক্তির একটি অংশ নিয়োজিত। কৃষকরা শস্য ফলান বলেই দেশের মানুষ দু’বেলা দু’মুঠো খাবার পান। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেই কৃষকদের উন্নয়নে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছেন ও বাস্তবায়ন করেছেন। সুজলা সুফলা বাংলাদেশের কৃষকদের তিনি একটি উন্নত জীবন উপহার দিয়েছেন, যোগ করেন এমপি।

তিনি বলেন, সেই কৃষকের ফসলের মূল্য নিশ্চিত করতে হবে। না হলে তারা কৃষিকাজে উৎসাহ হারিয়ে ফেলবে। কিন্তু দুর্ভাগ্য এই যে কৃষকরা অতীতের মতো সংগঠিত না। তাদেরকে সংগঠিত করেই কৃষকদের সম্মান আর অধিকারকে প্রতিষ্ঠা করতে হবে। তাই আমাদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে আন্তরিকতার সহিত কাজ করতে হবে। তবে এক শ্রেনির সিন্ডিকেটের জন্য দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি পায় কিন্তু কৃষক তার পণ্যের সঠিক দাম পায়না। এ সিন্ডিকেট ভেঙ্গে দেওয়া হবে। বুধবার (২৮মার্চ) বেলা ১১ টায় উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের আয়োজনে আমাদী ইউনিয়নের পাটনীখালী গ্রামে কৃষক সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক জনাব বাদল চন্দ্র বিশ্বাসের সভাপতিত্বে ও উপজেলা কৃষি অফিসার আব্দুল্লাহ আল মামুনের পরিচালনায়, কৃষকের উন্নয়ন ছাড়া দেশের ভাগ্যের পরিবর্তন সম্ভব নয় বলে মন্তব্য করেছেন সাংসাদ রশীদুজ্জামান।

তিনি বলেছেন, উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য ভাল বীজ ও ভাল উপকরনের প্রয়োজন। এখন উপকরনের অভাব নেই । আমরা যদি কৃষকের উন্নতি করতে পারি, তবে প্রধানমন্ত্রীর সেই শ্লোগান- কৃষক বাঁচলে দেশ বাঁচবে’ তা বাস্তবায়িত হবে। তাই কৃষকদের উন্নয়নে যা যা করা দরকার আমরা তা করব। কারন কৃষকের উন্নয়ন না হলে দেশের উন্নয়ন হবে না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাই বঙ্গবন্ধু সোনার বাংলা গড়ে তোলার জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। কৃষি ও কৃষকের উন্নয়নে উন্নত মানের বীজ, কৃষি উপকরণ বিতরন, কৃষিতে ভুর্তুকীসহ সেচের জন্য নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎসরবরাহ নিশ্চিত করেছেন।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহাপরিচলক বাদল চন্দ্র বিশ্বাস বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কৃষকদরদী ও কৃষির বিষয় খুবই আন্তরিক। এ আন্তরিকতাকে কাজে লাগিয়ে আমাদের কৃষি উৎপাদনকে বাড়াতে হবে। বর্তমানে সার, বীজ, সেচ, বিদ্যুৎ প্রভৃতির কোন সংকট নেই। আওয়ামীলীগ সরকারের আমলে কৃষি উপকরনের কোনো সংকট হবে না।

এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত পরিচালক মোহন কুমার ঘোষ, উপপরিচালক কাজী জাহাঙ্গীর হোসেন, প্রকল্প পরিচালক মোখলেছুর রহমান, জেলা প্রশিক্ষণ অফিসার মহাদেব কুমার সানা, স্মার্ট ক্লাইমেট প্রকল্প পরিচালক শেখ ফজলুল হক মনি, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এসএম শফিকুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) বি,এম,তারিক-উজ-জামান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জিএম মোহসিন রেজা, মূখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. হারুন অর রশীদ, অতিরিক্ত উপপরিচালক এসএম মিজান মাহমুদ, আমাদী ইউপি চেয়ারম্যান জিয়াউর রহমান জুয়েল, খান সাহেব কোমর উদ্দীন কলেজের অধ্যক্ষ ড. চয়ন কুমার রায়, বৈজ্ঞানিক সহকারি জাহিদ হাসান, উপসহকারি মাহফুজুর রহমান, নাইমুর রহমানসহ সাংবাদিক বৃন্দ, ইউপি সদস্য ও কৃষক কৃষানী উপস্থিত ছিলেন।

 

বাখ//আর

নিউজটি শেয়ার করুন

কৃষকরাই এ দেশের অর্থনীতির মূল চালিকাশক্তি : রশীদুজ্জামান এমপি

আপডেট সময় : ০৬:১০:০৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৮ মার্চ ২০২৪

খুলনা-৬ (কয়রা-পাইকগাছা) সংসদ সদস্য মোঃ রশীদুজ্জামান বলেছেন, কৃষকরাই হচ্ছেন এদেশের অর্থনীতির মূল চালিকা শক্তি। কৃষি অর্থনীতির ওপর নির্ভর করে বাংলাদেশ আজ মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়ে আছে। তারা দেশকে স্বয়ংসম্পূর্ণ করেছে বলেই বৈদেশিক মুদ্রার উপর চাপ কম। সেখানেই দেশের শ্রমশক্তির একটি অংশ নিয়োজিত। কৃষকরা শস্য ফলান বলেই দেশের মানুষ দু’বেলা দু’মুঠো খাবার পান। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেই কৃষকদের উন্নয়নে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছেন ও বাস্তবায়ন করেছেন। সুজলা সুফলা বাংলাদেশের কৃষকদের তিনি একটি উন্নত জীবন উপহার দিয়েছেন, যোগ করেন এমপি।

তিনি বলেন, সেই কৃষকের ফসলের মূল্য নিশ্চিত করতে হবে। না হলে তারা কৃষিকাজে উৎসাহ হারিয়ে ফেলবে। কিন্তু দুর্ভাগ্য এই যে কৃষকরা অতীতের মতো সংগঠিত না। তাদেরকে সংগঠিত করেই কৃষকদের সম্মান আর অধিকারকে প্রতিষ্ঠা করতে হবে। তাই আমাদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে আন্তরিকতার সহিত কাজ করতে হবে। তবে এক শ্রেনির সিন্ডিকেটের জন্য দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি পায় কিন্তু কৃষক তার পণ্যের সঠিক দাম পায়না। এ সিন্ডিকেট ভেঙ্গে দেওয়া হবে। বুধবার (২৮মার্চ) বেলা ১১ টায় উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের আয়োজনে আমাদী ইউনিয়নের পাটনীখালী গ্রামে কৃষক সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক জনাব বাদল চন্দ্র বিশ্বাসের সভাপতিত্বে ও উপজেলা কৃষি অফিসার আব্দুল্লাহ আল মামুনের পরিচালনায়, কৃষকের উন্নয়ন ছাড়া দেশের ভাগ্যের পরিবর্তন সম্ভব নয় বলে মন্তব্য করেছেন সাংসাদ রশীদুজ্জামান।

তিনি বলেছেন, উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য ভাল বীজ ও ভাল উপকরনের প্রয়োজন। এখন উপকরনের অভাব নেই । আমরা যদি কৃষকের উন্নতি করতে পারি, তবে প্রধানমন্ত্রীর সেই শ্লোগান- কৃষক বাঁচলে দেশ বাঁচবে’ তা বাস্তবায়িত হবে। তাই কৃষকদের উন্নয়নে যা যা করা দরকার আমরা তা করব। কারন কৃষকের উন্নয়ন না হলে দেশের উন্নয়ন হবে না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাই বঙ্গবন্ধু সোনার বাংলা গড়ে তোলার জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। কৃষি ও কৃষকের উন্নয়নে উন্নত মানের বীজ, কৃষি উপকরণ বিতরন, কৃষিতে ভুর্তুকীসহ সেচের জন্য নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎসরবরাহ নিশ্চিত করেছেন।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহাপরিচলক বাদল চন্দ্র বিশ্বাস বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কৃষকদরদী ও কৃষির বিষয় খুবই আন্তরিক। এ আন্তরিকতাকে কাজে লাগিয়ে আমাদের কৃষি উৎপাদনকে বাড়াতে হবে। বর্তমানে সার, বীজ, সেচ, বিদ্যুৎ প্রভৃতির কোন সংকট নেই। আওয়ামীলীগ সরকারের আমলে কৃষি উপকরনের কোনো সংকট হবে না।

এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত পরিচালক মোহন কুমার ঘোষ, উপপরিচালক কাজী জাহাঙ্গীর হোসেন, প্রকল্প পরিচালক মোখলেছুর রহমান, জেলা প্রশিক্ষণ অফিসার মহাদেব কুমার সানা, স্মার্ট ক্লাইমেট প্রকল্প পরিচালক শেখ ফজলুল হক মনি, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এসএম শফিকুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) বি,এম,তারিক-উজ-জামান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জিএম মোহসিন রেজা, মূখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. হারুন অর রশীদ, অতিরিক্ত উপপরিচালক এসএম মিজান মাহমুদ, আমাদী ইউপি চেয়ারম্যান জিয়াউর রহমান জুয়েল, খান সাহেব কোমর উদ্দীন কলেজের অধ্যক্ষ ড. চয়ন কুমার রায়, বৈজ্ঞানিক সহকারি জাহিদ হাসান, উপসহকারি মাহফুজুর রহমান, নাইমুর রহমানসহ সাংবাদিক বৃন্দ, ইউপি সদস্য ও কৃষক কৃষানী উপস্থিত ছিলেন।

 

বাখ//আর