শনিবার, ১০ ডিসেম্বর ২০২২, ০২:৪১ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
পটুয়াখালীর “শ্রেষ্ঠ জয়িতা” কলাপাড়ার মিলি রাস্তা বন্ধ করে সভা-সমাবেশ মানবাধিকার লঙ্ঘনের শামিল: আইনমন্ত্রী নাশকতার চেষ্টা হলে প্রতিহত করা হবে : র‌্যাব গোলের পর কেঁদে ফেলেছি: পরীমণি ব্রাজিল যে কারণে ছিটকে গেল বিএনপির ৭ এমপির সংসদ থেকে পদত্যাগের ঘোষণা ১১ লাখের যৌতুক ফিরিয়ে দিয়ে বিয়ের পিঁড়িতে বসলেন যুবক রোমান্টিক সিনেমায় আর অভিনয় করবেন না রণবীর বাংলাদেশি সমর্থকদের জন্য নাচবেন মেসি : আগুয়েরো রাজধানীর অলিগলিতে সতর্ক অবস্থানে আওয়ামী লীগ কর্মীরা খালেদা জিয়ার বাসভবনের আশপাশে আরো পুলিশ মোতায়েন বাংলাদেশের পরিস্থিতি নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি নেতাকর্মীরা ঘরে না ঢোকা পর্যন্ত আমরা পাহারায় থাকব : নিখিল সমাবেশ ঘিরে যে আতঙ্ক ছিল, আজ নেই: ডিবিপ্রধান নেতাকর্মীরা পাহারাদার হিসেবে আছেন: মায়া

কারিগরি ক্রটিতে ৩ ঘণ্টা পর ডিএসইতে লেনদেন চালু

কারিগরি ক্রটিতে ৩ ঘণ্টা পর ডিএসইতে লেনদেন চালু

নিজস্ব প্রতিবেদক : 
কারিগরি ত্রুটির কারণে তিন ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেন চালু হয়েছে। তবে এ জন্য লেনদেনের সময় বাড়ানো হয়েছে। সোমবার (২৪ অক্টোবর) দুপুর ২টা ২৫ মিনিট পর্যন্ত লেনদেন চলে।

দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) লেনদেন সাময়িক বন্ধ হয়ে গেছে। ট্রেডিং সফটওয়্যারে কারিগরি সমস্যার কারণে লেনদেন বন্ধ রয়েছে। তবে অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) স্বাভাবিক লেনদেন চলছে। সোমবার (২৪ অক্টোবর) সকাল ১০টা ৫৮ মিনিটের পরেই লেনদেন বন্ধ হয়ে যায়।

এ বিষয়ে ডিএসইর ডিজিএম শফিকুর রহমান বলেন, আমাদের সফটওয়্যারের সিস্টেমে সমস্যা দেখা দেয়। যা শুরুতে চিহ্নিত করা সম্ভব হয়নি। যে কারণে লেনদেন বন্ধ রাখতে হয়েছিল। তবে লেনদেনে ফেরার জন্য আইটি টিম কাজ করে তা সমাধান করে। দুপুর ২টা ২০ মিনিট থেকে ডিএসইতে লেনদেন শুরু হয়। তবে লেনদেনর সময় ২টা ২৫ মিনিট পর্যন্ত বাড়ানো হয়ে। আর পোস্ট ক্লোজিং সেশন কমিয়ে ৫ মিনিট বা ২টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত করা হয়েছে। অন্যান্য স্বভাবিক দিনে লেনদেন দুপুর ১টা ৫০ মিনিট পর্যন্ত হয়ে থাকে।

সোমবার (২৪ অক্টোবর) লেনদেন বন্ধ হয়ে যাওয়ার আগে পর্যন্ত ডিএসইতে ৩০৩ কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ড লেনদেন হয়। এর মধ্যে মাত্র ২৫টি দর বেড়ে কেনাবেচা হতে দেখা গেছে। বাকি শেয়ারগুলোর মধ্যে ৭৯টি দাম হারিয়ে এবং ১৯৯টি দাম অপরিবর্তিত অবস্থায় কেনাবেচা হয়েছে।

তালিকাভুক্ত ৩৮৮ শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে ২৮০টির বেশি শেয়ার ফ্লোর প্রাইসে থাকায় এসব শেয়ারের দরপতনের সুযোগ না থাকায় এমনিতেই সূচকের বড় পতনের পথ বন্ধ হয়ে আছে। লেনদেন বন্ধ হওয়ার আগে ডিএসইতে ২২৮ কোটি ৬৫ লাখ টাকার শেয়ার কেনাবেচা হয়েছে।

এর আগে গত বছরের ১৮ জুলাইও কারগরি ত্রুটির কারণে লেনদেন বন্ধ ছিলো। ওইদিন সকাল ১০টায় লেনদেন শুরুর ১ ঘণ্টা ৯ মিনিট পর বেলা ১১টা ৯ মিনিটে লেনদেন বন্ধ হয়ে যায়। ত্রুটি সারিয়ে ওই দিন ফের লেনদেন শুরু হয় দুপুর ১টায়।

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *