বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ০২:২২ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
বৃহস্পতিবার থেকে রাজশাহী বিভাগে পরিবহন ধর্মঘট ১৬ বছর পর ডেনমার্ককে হারিয়ে শেষ ষোলো’তে অস্ট্রেলিয়া চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্সকে হারিয়েও তিউনিসিয়ার কান্না রাউজানে ডাকাতির ঘটনায় র‌্যাবের হাতে আরো এক ডাকাত আটক রাউজানে স্কুল থেকে ফেরার পথে ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টায় যুবক কারাগারে রাউজানে ব্যবসায়ীর মরদেহ উদ্ধার ‘আওয়ামী লীগ গরীব দুখী মেহনতি মানুষের কল্যানে রাজনীতি করে’ -কম্বল বিতরণ অনুষ্ঠানে এমপি মুহিব ডিমলায় বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা রিজার্ভ কমে ৩৩ বিলিয়নে নেমেছে নিউজিল্যান্ডদের কাছে সিরিজ হারল ভারত তিন নারী রেফারি, ইতিহাস গড়তে যাচ্ছে কাতার বিশ্বকাপ কীর্তি সুরেশের বিয়ে প্রফেসর মযহারুল ইসলাম ॥ শ্রদ্ধাঞ্জলি সিটি করপোরেশনে মহামারি বিশেষজ্ঞ পদসৃষ্টির প্রস্তাব পেয়েছি : স্থানীয় সরকারমন্ত্রী বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ সফরে আসছে ভারত

কাউন্সিলরদের জন্য প্রতিটি বাসস্ট্যান্ডে স্বেচ্ছাসেবক থাকবে : বাহাউদ্দিন নাছিম

কাউন্সিলরদের জন্য প্রতিটি বাসস্ট্যান্ডে স্বেচ্ছাসেবক থাকবে : বাহাউদ্দিন নাছিম

নিজস্ব প্রতিবেদক : 
আওয়ামী লীগের আসন্ন সম্মেলনে ঢাকায় আসা বয়োবৃদ্ধ কাউন্সিলরদের সহায়তা করতে প্রতিটি বাসস্ট্যান্ডে নির্দিষ্ট পোশাক পরা স্বেচ্ছাসেবক থাকবে বলে জানান আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম।

শুক্রবার (১৮ নভেম্বর) আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমণ্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সম্মেলনের স্বেচ্ছাসেবক ও শৃঙ্খলা উপ-কমিটির সভা শেষে এ কথা জানান তিনি।

আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, আওয়ামী লীগের ২২তম জাতীয় সম্মেলনে ২৪ ডিসেম্বর সারা দেশ থেকে আসা বয়োবৃদ্ধ কাউন্সিলরদের সহায়তা করতে প্রতিটি বাসস্ট্যান্ডে আমাদের স্বেচ্ছাসেবক থাকবে। তারা একটা নির্দিষ্ট রংয়ের ড্রেস পরা অবস্থায় থাকবে।

বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, ২০১৩, ১৪ ও ১৫ সালে যেভাবে অগ্নিসন্ত্রাস চালিয়ে, বোমা নিক্ষেপ করে মানুষ পুড়িয়ে মেরে ছিল, তারাই আবার সেই কায়দায় সন্ত্রাস সৃষ্টি করার পাঁয়তারা চালাচ্ছে। যেখানেই সন্ত্রাস হবে সেখানে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা জনগণকে সঙ্গে নিয়ে সন্ত্রাসীদের প্রতিহত করবে। এদের রুখে দেওয়ার জন্য আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা সতর্ক অবস্থানে থাকবে। প্রস্তুত থাকবে। এই মুহূর্তে আমরা সম্মেলন নিয়ে ব্যস্ত। প্রতিদিন আওয়ামী লীগের জনসভাগুলো জনসমাবেশে রূপ নিচ্ছে। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের কথা শোনার আগ্রহ দেখাচ্ছে জনসাধারণ।

বিএনপির প্রতি ইঙ্গিত করে আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, যারা অশান্তি সৃষ্টি, অবিচার, ধ্বংসাত্মক কর্মকাণ্ড, জীবন নিয়ে ছিনিমিনি কিংবা মানুষকে লাশ বানিয়ে ফায়দা লুটতে চাইবে। বিএনপি-জামায়াতের নেতারা কি করছে, কি করবে? আমরা মাথা ঘামাই না। যদি কেউ জনসভার নামে নৈরাজ্য করে, উচ্ছৃঙ্খল আচরণ করে, তার জবাব বাংলাদেশের মানুষ দিতে পারে এবং দিয়েছে। আগামীতেও করতে চাইলে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা সতর্ক থাকবে।

আওয়ামী লীগের এবারের সম্মেলন সাদামাটাভাবে হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, বিজয়ে মাসে এই সম্মেলন জাতির কাছে, বাংলাদেশের মানুষের কাছে ও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের কাছে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। বাংলাদেশের অর্জন, সাফল্য, গৌরবগাঁথা আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে হয়েছে। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা জীবন উৎসর্গ করেছে। সেই সংগঠনের সম্মেলনকে ঘিরে দেশব্যাপী একটা অন্যরকম আনন্দ, উচ্ছ্বাস-উদ্দীপনা সৃষ্টি হয়েছে। বৈশ্বিক সঙ্কটকে বিবেচনা নিয়ে এবারের কাউন্সিল সাদামাটাভাবেই আয়োজন করা হয়েছে এবার আলোকসজ্জা করা হবে না। এখানে উচ্ছ্বাস থাকবে, অংশগ্রহণ থাকবে, নেতাকর্মীদের আগ্রহ থাকবে কিন্তু বর্ণিল আয়োজন থাকবে না। এখানে কোনো বাহুল্যতা, বেশি করে আয়োজন করা, ব্যয় করা, আলোর ঝলমল থাকবে না।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ হলো জনতার দল, মাঠ ময়দানে আন্দোলন সংগ্রামের দল। আওয়ামী লীগ শান্তি সৃষ্টি করে, শান্তি সৃষ্টির লক্ষ্যে অশান্তি সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে সবসময় কাজ করে। জনগণকে নিয়ে যেকোনো অন্যায়, অবিচার অথবা ধ্বংসাত্মক কর্মকাণ্ড যারা করে, যারা জীবন নিয়ে ছিনিমিনি করতে চাইবে, যারা মানুষের জীবনকে লাশ বানিয়ে ফায়দা লুটতে চাইবে, তাদের আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধভাবে প্রতিহত করবে।

এই মুহূর্তে সম্মেলন নিয়ে ব্যস্ত থাকার কথা জানিয়ে তিনি বলেন, আমরা বিএনপি-জামায়াত নিয়ে এখন ভাবতে চাই না, তাদের নিয়ে মাথা ব্যথা নেই। তারা ১০ ডিসেম্বর সমাবেশ করতে যাচ্ছে, করবে। তবে তারা সমাবেশের নামে ফের অগ্নিসন্ত্রাস করলে, জনগণের ক্ষতি করলে, সরকারি সম্পদ নষ্ট করলে জনগণকে সাথে নিয়ে তাদের উপযুক্ত জবাব দেওয়া হবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন স্বেচ্ছাসেবক ও শৃঙ্খলা উপ-কমিটির আহ্বায়ক আবুল হাসনাত আব্দুল্লাহ, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতা আনোয়ার হোসেন, কৃষক লীগের সভাপতি সমীর চন্দ, স্বেচ্ছাসেবক লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি গাজী মেজবাউর হোসেন সাচ্চু, সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান বাবুসহ স্বেচ্ছাসেবক ও শৃঙ্খলা উপ-কমিটির সদস্যরা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *