ঢাকা ০৯:৩৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी
ব্রেকিং নিউজ ::
চট্টগ্রামে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে ছাত্রলীগের সংঘর্ষে নিহত ২ :: ঢাকা কলেজের সামনে সংঘর্ষে যুবক নিহত :: রংপুরে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে বেরোবি শিক্ষার্থী নিহত :: ঢাকা, চট্টগ্রাম, বগুড়া ও রাজশাহীতে বিজিবি মোতায়েন :: রণক্ষেত্র মহাখালী, পুলিশ বক্সের সামনে দুটি মোটরসাইকেলে আগুন :: চার শিক্ষার্থী গুলিবিদ্ধ, উত্তাল জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা :: আজও ছাত্রলীগের সঙ্গে শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষ, রণক্ষেত্র ঢাবি

কলাপাড়ায় ধরা পড়ল কিলিং মেশিন খ্যাত ভয়ংকর রাসেলস ভাইপার সাপ

এ এম মিজানুর রহমান বুলেট, কলাপাড়া প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ০১:৩৯:২৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪
  • / ৪৩৬ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার ধুলাসার ইউনিয়নের (বৌলতলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন) বৌলতলী গ্রামের এক কৃষকের জালে ধরা পড়েছে একটি কিলিং মেশিন খ্যাত ভয়ংকর বিষধর রাসেলস ভাইপার সাপ। এটির দৈর্ঘ্যে ৫ ফুট। সোমবার সকাল আটটার সময় বৌলতলী গ্রামের নুর হাওলাদার রাড়ির পুকুরের উপর পাতা জালে সাপটি আটকে যায়। পরে ওই কৃষক সাপটি লাঠি দিয়ে আঘাত করে আহত অবস্থায় প্লাস্টিকের বড় কৌটায় জীবিত সংরক্ষণ করেন। এসময় সাপটিকে এক নজর দেখতে ভীড় জমায় ওই এলাকার উৎসুক জনতা। তবে সাপটি উদ্ধারের চেষ্টা চালাচ্ছে এনিমেল লাভারস অফ পটুয়াখালীর কলাপাড়া টিমের সদস্যরা। এ নিয়ে এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। যদিও আতঙ্কিত হয়ে সাপটিকে তৎক্ষণাৎ লাঠি দিয়ে আঘাত করে আহত অবস্থায় প্লাস্টিকে বড় কৌটায় জীবিত সংরক্ষণ করেন।
জানা গেছে, বাংলাদেশে বর্তমানে যে সব সাপ দেখা যায় সেগুলোর মধ্যে রাসেল ভাইপার সবচেয়ে বিষাক্ত। এই সাপের কামড়ে শরীরের দংশিত অংশে বিষ ছড়িয়ে অঙ্গহানি, ক্রমাগত রক্তপাত, রক্ত জমাট বাঁধা, স্নায়ু বৈকল্য, চোখ ভারি হয়ে যাওয়া, পক্ষাঘাত ও কিডনির ক্ষতিসহ বিভিন্ন ধরনের শারীরিক উপসর্গ দেখা দেয়।
স্থানীয় কৃষক মো: নুর হাওলাদার জানান, সাপটি আমাদের জালে আটকা পড়ার বিষয়টি আমার স্ত্রী প্রথমে দেখে। পরে আমাকে জানালে আমি এটি উদ্ধার চেষ্টা করি। এ সময় আমার স্ত্রীর কথায় সাপটির উপর লাঠি দিয়ে বেশ কয়েকটি আঘাত করি। তবে এটি এখনো জীবিত অবস্থায় আছে। এটি আমি একটি প্লাস্টিকের কৌটায় সংরক্ষণ করেছি। তবে বন বিভাগ বা সরকারের কেউ নিতে আসলে তাকে দিয়ে দিবো।
নয়াকাটা গ্রামের শাহিন চৌকিদার জানান, এই প্রথমবারের মতো রাসেলস ভাইপার সাপ দেখলাম। এর আগে ইউটিউব এবং ফেসবুকে ব্যাপক এই সাপের ছবি দেখেছি। এটি একটি বিষাক্ত সাপ। তবে এটাকে মেরে ফেলা উচিত।
তারিকাটা গ্রামের ইউসুফ ভূইয়া জানান, আমি রাসেলস ভাইপার সাপ ধরা পড়েছে শুনে এখানে দেখতে আসলাম। সাপটি দেখতে সুন্দর হলেও এটি তীব্র বিষধর সাপ। আমার মতো এখানে শত শত মানুষ সাপটিকে এক নজর দেখতে এসেছে।তবে সাপটিকে মারা ঠিক হয়নি। এটা অনেকটা আহত, বাঁচানো যায় কিনা সন্দেহ রয়েছে। সাপটিকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে বনে অবমুক্তের অনুরোধ জানাচ্ছি।
এনিমেল লাভারস অফ পটুয়াখালীর কলাপাড়া টিমের সদস্য বায়জিদ মুন্সী জানান, আমাদের একটি টিম ঘটনাস্থল যাচ্ছে। সাপটি উদ্ধার করে প্রথথমিক চিকিৎসা দিয়ে বন বিভাগকে হস্তান্তর করবো।তিনি আরও বলেন, সবাইকে সাপ দেখে আতঙ্কিত না হয়ে আমাদের খবর দেয়ার অনুরোধ জানাচ্ছি।  সর্পদংশনের শিকার হলে নিকটস্থ সরকারী হাসপাতালে যাওয়ার জন্য অনুরোধ করা হলো।
এছাড়া সাপ ধরার রেস্কিউ টিমের সদস্যদের খবর দিলেও হবে। সাপ আসলে আমাদের জীব বৈচিত্র্যের জন্য অনেক উপকারী বন্ধু। যা খাদ্য শৃঙ্খল  গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।
এ বিষয়ে কলাপাড়া উপজেলা হাসপাতালের চিকিৎসক ড.শংকর চন্দ্র অধিকারী বলেন, রাসেলস ভাইপার সাপ থেকে সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে। কাউকে যদি আঘাত করে সাথে সাথে হাসপাতালে নিয়ে আসবেন। হাসপাতালে এর চিকিৎসার ব্যবস্থা রয়েছে।
বাখ//আর

নিউজটি শেয়ার করুন

কলাপাড়ায় ধরা পড়ল কিলিং মেশিন খ্যাত ভয়ংকর রাসেলস ভাইপার সাপ

আপডেট সময় : ০১:৩৯:২৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪
পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার ধুলাসার ইউনিয়নের (বৌলতলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন) বৌলতলী গ্রামের এক কৃষকের জালে ধরা পড়েছে একটি কিলিং মেশিন খ্যাত ভয়ংকর বিষধর রাসেলস ভাইপার সাপ। এটির দৈর্ঘ্যে ৫ ফুট। সোমবার সকাল আটটার সময় বৌলতলী গ্রামের নুর হাওলাদার রাড়ির পুকুরের উপর পাতা জালে সাপটি আটকে যায়। পরে ওই কৃষক সাপটি লাঠি দিয়ে আঘাত করে আহত অবস্থায় প্লাস্টিকের বড় কৌটায় জীবিত সংরক্ষণ করেন। এসময় সাপটিকে এক নজর দেখতে ভীড় জমায় ওই এলাকার উৎসুক জনতা। তবে সাপটি উদ্ধারের চেষ্টা চালাচ্ছে এনিমেল লাভারস অফ পটুয়াখালীর কলাপাড়া টিমের সদস্যরা। এ নিয়ে এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। যদিও আতঙ্কিত হয়ে সাপটিকে তৎক্ষণাৎ লাঠি দিয়ে আঘাত করে আহত অবস্থায় প্লাস্টিকে বড় কৌটায় জীবিত সংরক্ষণ করেন।
জানা গেছে, বাংলাদেশে বর্তমানে যে সব সাপ দেখা যায় সেগুলোর মধ্যে রাসেল ভাইপার সবচেয়ে বিষাক্ত। এই সাপের কামড়ে শরীরের দংশিত অংশে বিষ ছড়িয়ে অঙ্গহানি, ক্রমাগত রক্তপাত, রক্ত জমাট বাঁধা, স্নায়ু বৈকল্য, চোখ ভারি হয়ে যাওয়া, পক্ষাঘাত ও কিডনির ক্ষতিসহ বিভিন্ন ধরনের শারীরিক উপসর্গ দেখা দেয়।
স্থানীয় কৃষক মো: নুর হাওলাদার জানান, সাপটি আমাদের জালে আটকা পড়ার বিষয়টি আমার স্ত্রী প্রথমে দেখে। পরে আমাকে জানালে আমি এটি উদ্ধার চেষ্টা করি। এ সময় আমার স্ত্রীর কথায় সাপটির উপর লাঠি দিয়ে বেশ কয়েকটি আঘাত করি। তবে এটি এখনো জীবিত অবস্থায় আছে। এটি আমি একটি প্লাস্টিকের কৌটায় সংরক্ষণ করেছি। তবে বন বিভাগ বা সরকারের কেউ নিতে আসলে তাকে দিয়ে দিবো।
নয়াকাটা গ্রামের শাহিন চৌকিদার জানান, এই প্রথমবারের মতো রাসেলস ভাইপার সাপ দেখলাম। এর আগে ইউটিউব এবং ফেসবুকে ব্যাপক এই সাপের ছবি দেখেছি। এটি একটি বিষাক্ত সাপ। তবে এটাকে মেরে ফেলা উচিত।
তারিকাটা গ্রামের ইউসুফ ভূইয়া জানান, আমি রাসেলস ভাইপার সাপ ধরা পড়েছে শুনে এখানে দেখতে আসলাম। সাপটি দেখতে সুন্দর হলেও এটি তীব্র বিষধর সাপ। আমার মতো এখানে শত শত মানুষ সাপটিকে এক নজর দেখতে এসেছে।তবে সাপটিকে মারা ঠিক হয়নি। এটা অনেকটা আহত, বাঁচানো যায় কিনা সন্দেহ রয়েছে। সাপটিকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে বনে অবমুক্তের অনুরোধ জানাচ্ছি।
এনিমেল লাভারস অফ পটুয়াখালীর কলাপাড়া টিমের সদস্য বায়জিদ মুন্সী জানান, আমাদের একটি টিম ঘটনাস্থল যাচ্ছে। সাপটি উদ্ধার করে প্রথথমিক চিকিৎসা দিয়ে বন বিভাগকে হস্তান্তর করবো।তিনি আরও বলেন, সবাইকে সাপ দেখে আতঙ্কিত না হয়ে আমাদের খবর দেয়ার অনুরোধ জানাচ্ছি।  সর্পদংশনের শিকার হলে নিকটস্থ সরকারী হাসপাতালে যাওয়ার জন্য অনুরোধ করা হলো।
এছাড়া সাপ ধরার রেস্কিউ টিমের সদস্যদের খবর দিলেও হবে। সাপ আসলে আমাদের জীব বৈচিত্র্যের জন্য অনেক উপকারী বন্ধু। যা খাদ্য শৃঙ্খল  গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।
এ বিষয়ে কলাপাড়া উপজেলা হাসপাতালের চিকিৎসক ড.শংকর চন্দ্র অধিকারী বলেন, রাসেলস ভাইপার সাপ থেকে সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে। কাউকে যদি আঘাত করে সাথে সাথে হাসপাতালে নিয়ে আসবেন। হাসপাতালে এর চিকিৎসার ব্যবস্থা রয়েছে।
বাখ//আর