ঢাকা ০৭:৫৭ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবসে রবীন্দ্র উপাচার্যের শ্রদ্ধাঞ্জলী

রাজেশ দত্ত ও ভরত সাহা
  • আপডেট সময় : ১২:১১:৫৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪
  • / ৪৬৭ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

১৭ এপ্রিল ২০২৪, ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস। এ দিবস উপলক্ষ্যে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবন-০১ এর উপাচারে‌্যর সভাকক্ষে ১৭ এপ্রিল বিকাল ৪ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দের সাথে মতবিনিময় করেন।

শুরুতেই বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতার স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও জাতীয় চার নেতার প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ শাহ্ আজম। মহান মুক্তিযুদ্ধে যাঁরা অবদান রেখেছেন তাদের সম্মানে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

এ সময় উপাচার্য ড. শাহ্ আজম ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবসের পটভূমি ও গুরুত্ব তুলে ধরে বলেন, “১৭ এপ্রিল বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম এবং মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসে স্মরণীয় একটি দিন। ১৯৭১ সালে এদিনে মেহেরপুরের বৈদ্যনাথতলার আম্রকাননে স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম অস্থায়ী সরকার আনুষ্ঠানিকভাবে শপথ গ্রহণ করে। এদিন থেকেই মূলত বাংলাদেশ স্বাধীন ও সার্বভৌম রাষ্ট্র হিসেবে বিশ্ব-দরবারে আত্মপ্রকাশ করে। এই সরকার গঠনের মাধ্যমে বাংলাদেশ দ্রুতই মুক্তিযুদ্ধের আন্তর্জাতিক সমর্থন ও সহযোগিতা আদায় করতে সক্ষম হয়। ফলশ্রুতিতে মুক্তিসংগ্রামের সফলতা বেগবান হয়, এবং বাঙালি স্বাধীনতা অর্জনে সক্ষম হয়।” উপাচার্য আরো বলেন, “জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ার পথে বাংলাদেশ অনেকদূর অগ্রসর হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার এবারের স্বপ্ন তথ্য-প্রযুক্তি নির্ভর, জ্ঞান-সমৃদ্ধ, স্মার্ট বাংলাদেশ। স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণের ক্ষেত্রে সকলকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করে যেতে হবে।” মতবিনিময়কালে উপস্থিত ছিলেন রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার প্রফেসর ড. ফিরোজ আহমদসহ শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।

 

বাখ//আর

নিউজটি শেয়ার করুন

ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবসে রবীন্দ্র উপাচার্যের শ্রদ্ধাঞ্জলী

আপডেট সময় : ১২:১১:৫৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪

১৭ এপ্রিল ২০২৪, ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস। এ দিবস উপলক্ষ্যে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবন-০১ এর উপাচারে‌্যর সভাকক্ষে ১৭ এপ্রিল বিকাল ৪ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দের সাথে মতবিনিময় করেন।

শুরুতেই বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতার স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও জাতীয় চার নেতার প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ শাহ্ আজম। মহান মুক্তিযুদ্ধে যাঁরা অবদান রেখেছেন তাদের সম্মানে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

এ সময় উপাচার্য ড. শাহ্ আজম ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবসের পটভূমি ও গুরুত্ব তুলে ধরে বলেন, “১৭ এপ্রিল বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম এবং মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসে স্মরণীয় একটি দিন। ১৯৭১ সালে এদিনে মেহেরপুরের বৈদ্যনাথতলার আম্রকাননে স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম অস্থায়ী সরকার আনুষ্ঠানিকভাবে শপথ গ্রহণ করে। এদিন থেকেই মূলত বাংলাদেশ স্বাধীন ও সার্বভৌম রাষ্ট্র হিসেবে বিশ্ব-দরবারে আত্মপ্রকাশ করে। এই সরকার গঠনের মাধ্যমে বাংলাদেশ দ্রুতই মুক্তিযুদ্ধের আন্তর্জাতিক সমর্থন ও সহযোগিতা আদায় করতে সক্ষম হয়। ফলশ্রুতিতে মুক্তিসংগ্রামের সফলতা বেগবান হয়, এবং বাঙালি স্বাধীনতা অর্জনে সক্ষম হয়।” উপাচার্য আরো বলেন, “জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ার পথে বাংলাদেশ অনেকদূর অগ্রসর হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার এবারের স্বপ্ন তথ্য-প্রযুক্তি নির্ভর, জ্ঞান-সমৃদ্ধ, স্মার্ট বাংলাদেশ। স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণের ক্ষেত্রে সকলকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করে যেতে হবে।” মতবিনিময়কালে উপস্থিত ছিলেন রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার প্রফেসর ড. ফিরোজ আহমদসহ শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।

 

বাখ//আর