ঢাকা ০৩:৪২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

 এ কেমন নির্মমতা ! 

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০১:৩৫:৩৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ মে ২০২৩
  • / ৪৯৬ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

// আশরাফ হোসেন পল্টু, শ্রীপুর (মাগুরা) প্রতিনিধি// 

মাগুরার শ্রীপুর উপজেলার তখলপুর গ্রামের এক পাষন্ড মায়ের নির্মমতা ২দিনের শিশু কন্যাকে  ব্যাগে ভরে রাস্তার পাশে ফেলে রেখে পালিয়ে যাওয়ার এক চাঞ্চল্যকর তথ্য পাওয়া গেছে। পরে স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় শিশুটি উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে এবং শিশুটি বর্তমানে সুস্থ্য রয়েছে বলে স্বাস্থ্য বিভাগ জানিয়েছেন।
তখলপুর গ্রামের প্রাক্তন ইউপি সদস্য আব্দুর রউফ জানান, আজ বুধবার ভোর ৫টার দিকে ওই গ্রামের লিয়াকত মোল্লার স্ত্রী রুবিয়া পারভীন প্রাতঃকালীণ হাটার সময় তখলপুর পশ্চিমপাড়া মসজিদ সংলগ্ন রাস্তার পাশে একটি বাজার করা প্লাস্টিকের ব্যাগের মধ্যে শিশুর কান্না শুনতে পান। শিশুটির কান্না শুনে রুবিয়া পারভীন স্থানীয় লোকজনের খবর দেন।পরে স্থানীয় লোকজন শিশুটি উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। তবে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত শিশুটির মায়ের পরিচয় পাওয়া যায়নি।
 এ বিষয়ে শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ নাজমুস সাকীব বলেন, শিশুটির বয়স ২দিনের বেশী নয় তবে প্রচুর পরিমান কান্নাকাটি করার কারণে এবং বদ্ধ ব্যাগের মধ্যে থাকায় শিশুটি কিছুটা পানিশূণ্য ও অক্সিজেন সংকট হয়েছিল। তবে শিশুটি হাসপাতালে আসার পর থেকে চিকিৎসকগণ তাকে অব্যাহতভাবে স্বাস্থ্যসেবা ও নিবিড় পরিচর্যা করায় পুরোপুরি সুস্থ্য হয়ে উঠেছে।
বা/খ: এসআর।

নিউজটি শেয়ার করুন

 এ কেমন নির্মমতা ! 

আপডেট সময় : ০১:৩৫:৩৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ মে ২০২৩

// আশরাফ হোসেন পল্টু, শ্রীপুর (মাগুরা) প্রতিনিধি// 

মাগুরার শ্রীপুর উপজেলার তখলপুর গ্রামের এক পাষন্ড মায়ের নির্মমতা ২দিনের শিশু কন্যাকে  ব্যাগে ভরে রাস্তার পাশে ফেলে রেখে পালিয়ে যাওয়ার এক চাঞ্চল্যকর তথ্য পাওয়া গেছে। পরে স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় শিশুটি উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে এবং শিশুটি বর্তমানে সুস্থ্য রয়েছে বলে স্বাস্থ্য বিভাগ জানিয়েছেন।
তখলপুর গ্রামের প্রাক্তন ইউপি সদস্য আব্দুর রউফ জানান, আজ বুধবার ভোর ৫টার দিকে ওই গ্রামের লিয়াকত মোল্লার স্ত্রী রুবিয়া পারভীন প্রাতঃকালীণ হাটার সময় তখলপুর পশ্চিমপাড়া মসজিদ সংলগ্ন রাস্তার পাশে একটি বাজার করা প্লাস্টিকের ব্যাগের মধ্যে শিশুর কান্না শুনতে পান। শিশুটির কান্না শুনে রুবিয়া পারভীন স্থানীয় লোকজনের খবর দেন।পরে স্থানীয় লোকজন শিশুটি উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। তবে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত শিশুটির মায়ের পরিচয় পাওয়া যায়নি।
 এ বিষয়ে শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ নাজমুস সাকীব বলেন, শিশুটির বয়স ২দিনের বেশী নয় তবে প্রচুর পরিমান কান্নাকাটি করার কারণে এবং বদ্ধ ব্যাগের মধ্যে থাকায় শিশুটি কিছুটা পানিশূণ্য ও অক্সিজেন সংকট হয়েছিল। তবে শিশুটি হাসপাতালে আসার পর থেকে চিকিৎসকগণ তাকে অব্যাহতভাবে স্বাস্থ্যসেবা ও নিবিড় পরিচর্যা করায় পুরোপুরি সুস্থ্য হয়ে উঠেছে।
বা/খ: এসআর।