ঢাকা ০৬:৪১ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

দেশের সর্ববৃহৎ ঈদের জামাত দিনাজপুরে অনুষ্ঠিত

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০১:৩৪:৫০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ জুন ২০২৩
  • / ৪৭৯ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

দিনাজপুর প্রতিনিধি: এশিয়ার সর্ববৃহৎ ঈদগাহ দিনাজপুরের ঐতিহাসিক গোর-এ শহীদ ময়দানে এবারও দেশের সর্ববৃহৎ ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৈরী আবহাওয়াকে উপেক্ষা করে একসঙ্গে প্রায় দুই লাখ মুসল্লি ঈদুল আজহার নামাজ আদায় করেছেন বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

সকাল সাড়ে ৮টায় শুরু হয় ঈদের জামাত। এতে ঈমামতি করেন মাওলানা শামসুল আলম কাশেমী। নামাজ শেষে দেশ, জাতি ও মুসলিম উম্মাহসহ প্রধানমন্ত্রীর জন্য শান্তি কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।

এশিয়ার সর্ববৃহৎ ঈদগাহ মিনার ও মাঠ গোর-এ শহীদ ময়দানে এবার ঈদের নামাজ আদায়ের জন্য একজোড়া বিশেষ ট্রেনের ব্যবস্থা করা হয়।

দিনাজপুর রেলস্টেশন সূত্রে জানা যায়, ঠাকুরগাঁও থেকে দিনাজপুর এবং পার্বতীপুর থেকে দিনাজপুর বিশেষ ট্রেনগুলো সকাল সোয়া ৭টায় এবং পৌনে ৮টায় দিনাজপুর স্টেশনে এসে পৌঁছে এবং সাড়ে ৯টায় তা ছেড়ে যায়।

বৃহৎ এই জামাতে অংশ নেন বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম, জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম, দিনাজপুরের জেলা প্রশাসক শাকিল আহমেদ, পুলিশ সুপার শাহ ইফতেখার আহম্মেদ, দিনাজপুর পৌরসভার মেয়র সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলম, বিচার বিভাগের কর্মকর্তা, প্রশাসনের কর্মকর্তা, বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতাসহ সর্বস্তরের জনতা।

এদিকে, এ জামাতে অংশ নিতে পেরে খুশি মুসল্লিরা। এখানে নামাজ আদায় করতে পেরে স্বস্তি প্রকাশ করেন তারা। মুসল্লিরা চান আগামী দিনে বিশেষ ট্রেনের ব্যবস্থা যেন প্রতি ঈদে করা হয়। শুধু দিনাজপুর ও আশপাশের জেলা নয়, এই জামাতে অনেক দূর থেকে নামাজ আদায় করতে আসেন মানুষ।

বৃহৎ এই জামাতে অংশ নেওয়া মুসল্লিদের জন্য স্থাপন করা হয় শৌচাগার, ছিল ওজুর ব্যবস্থা। বসানো হয় মেডিক্যাল টিম। পুলিশ, বিজিবি, র‍্যাবসহ বিভিন্ন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সমন্বয়ে নেওয়া হয় চার স্তরের নিরাপত্তাব্যবস্থা। সুষ্ঠুভাবে নামাজ সম্পন্ন হওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করেন প্রশাসনের কর্মকর্তারাও।

আওয়ামী লীগ মনে করে তারা জমিদার, আমরা প্রজা : ফখরুল

দিনাজপুরের পুলিশ সুপার শাহ ঈফতেখার আহমেদ জানান, ঈদে মুসল্লিদের সুরক্ষায় নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা ছিল পুরো দিনাজপুর শহর। পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাবসহ অন্যান্য আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর সমন্বয়ে কয়েক স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করা ছিল।

দিনাজপুরের জেলা প্রশাসক মো. শাকিল আহমেদ জানান, ঈদের নামাজে যাতায়াতের জন্য দুটি ট্রেন উপহার দেওয়ায় মুসল্লিদের যাতায়াতের সুবিধা হয়েছে। আগামীতে এ ঈদের জামাত আরও বৃহৎ পরিসরে অনুষ্ঠিত হবে।

জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম জানান, বিশেষ ট্রেনে বিনা পয়সায় মুসল্লিদের জন্য যাতায়াতের সুবিধা থাকায় মুসল্লির সংখ্যা খুব বেশি কমেনি। বৃষ্টিতেও দুই লাখ ধর্মপ্রাণ মুসল্লি শান্তিপূর্ণভাবে নামাজ আদায় করেছেন এই জামাতে। উন্নয়নের অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে ঈদে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

দেশের সর্ববৃহৎ ঈদের জামাত দিনাজপুরে অনুষ্ঠিত

আপডেট সময় : ০১:৩৪:৫০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ জুন ২০২৩

দিনাজপুর প্রতিনিধি: এশিয়ার সর্ববৃহৎ ঈদগাহ দিনাজপুরের ঐতিহাসিক গোর-এ শহীদ ময়দানে এবারও দেশের সর্ববৃহৎ ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৈরী আবহাওয়াকে উপেক্ষা করে একসঙ্গে প্রায় দুই লাখ মুসল্লি ঈদুল আজহার নামাজ আদায় করেছেন বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

সকাল সাড়ে ৮টায় শুরু হয় ঈদের জামাত। এতে ঈমামতি করেন মাওলানা শামসুল আলম কাশেমী। নামাজ শেষে দেশ, জাতি ও মুসলিম উম্মাহসহ প্রধানমন্ত্রীর জন্য শান্তি কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।

এশিয়ার সর্ববৃহৎ ঈদগাহ মিনার ও মাঠ গোর-এ শহীদ ময়দানে এবার ঈদের নামাজ আদায়ের জন্য একজোড়া বিশেষ ট্রেনের ব্যবস্থা করা হয়।

দিনাজপুর রেলস্টেশন সূত্রে জানা যায়, ঠাকুরগাঁও থেকে দিনাজপুর এবং পার্বতীপুর থেকে দিনাজপুর বিশেষ ট্রেনগুলো সকাল সোয়া ৭টায় এবং পৌনে ৮টায় দিনাজপুর স্টেশনে এসে পৌঁছে এবং সাড়ে ৯টায় তা ছেড়ে যায়।

বৃহৎ এই জামাতে অংশ নেন বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম, জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম, দিনাজপুরের জেলা প্রশাসক শাকিল আহমেদ, পুলিশ সুপার শাহ ইফতেখার আহম্মেদ, দিনাজপুর পৌরসভার মেয়র সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলম, বিচার বিভাগের কর্মকর্তা, প্রশাসনের কর্মকর্তা, বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতাসহ সর্বস্তরের জনতা।

এদিকে, এ জামাতে অংশ নিতে পেরে খুশি মুসল্লিরা। এখানে নামাজ আদায় করতে পেরে স্বস্তি প্রকাশ করেন তারা। মুসল্লিরা চান আগামী দিনে বিশেষ ট্রেনের ব্যবস্থা যেন প্রতি ঈদে করা হয়। শুধু দিনাজপুর ও আশপাশের জেলা নয়, এই জামাতে অনেক দূর থেকে নামাজ আদায় করতে আসেন মানুষ।

বৃহৎ এই জামাতে অংশ নেওয়া মুসল্লিদের জন্য স্থাপন করা হয় শৌচাগার, ছিল ওজুর ব্যবস্থা। বসানো হয় মেডিক্যাল টিম। পুলিশ, বিজিবি, র‍্যাবসহ বিভিন্ন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সমন্বয়ে নেওয়া হয় চার স্তরের নিরাপত্তাব্যবস্থা। সুষ্ঠুভাবে নামাজ সম্পন্ন হওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করেন প্রশাসনের কর্মকর্তারাও।

আওয়ামী লীগ মনে করে তারা জমিদার, আমরা প্রজা : ফখরুল

দিনাজপুরের পুলিশ সুপার শাহ ঈফতেখার আহমেদ জানান, ঈদে মুসল্লিদের সুরক্ষায় নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা ছিল পুরো দিনাজপুর শহর। পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাবসহ অন্যান্য আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর সমন্বয়ে কয়েক স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করা ছিল।

দিনাজপুরের জেলা প্রশাসক মো. শাকিল আহমেদ জানান, ঈদের নামাজে যাতায়াতের জন্য দুটি ট্রেন উপহার দেওয়ায় মুসল্লিদের যাতায়াতের সুবিধা হয়েছে। আগামীতে এ ঈদের জামাত আরও বৃহৎ পরিসরে অনুষ্ঠিত হবে।

জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম জানান, বিশেষ ট্রেনে বিনা পয়সায় মুসল্লিদের জন্য যাতায়াতের সুবিধা থাকায় মুসল্লির সংখ্যা খুব বেশি কমেনি। বৃষ্টিতেও দুই লাখ ধর্মপ্রাণ মুসল্লি শান্তিপূর্ণভাবে নামাজ আদায় করেছেন এই জামাতে। উন্নয়নের অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে ঈদে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।