ঢাকা ১২:৫৬ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

এনবিআর–আইএমএফ বৈঠকে যা গুরুত্ব পাচ্ছে

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় : ১১:৫৫:২৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৪ মার্চ ২০২৪
  • / ৪৫৮ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ঢাকায় সোমবার (৪ মার্চ) থেকে শুরু হচ্ছে আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থার (আইএমএফ) তিন আয়কর বিশেষজ্ঞের সাথে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) ৯ দিনের সিরিজ বৈঠক। এতে গুরুত্ব পাচ্ছে আয়কর বিভাগের সক্ষমতা পর্যালোচনাসহ তিন বিষয়। এনবিআর কর্মকর্তারা জানান, আয়কর আদায় বাড়াতে নীতি ও কারিগরি সহায়তার প্রস্তাব দেবে আইএমএফ।

রিজার্ভ সংকট কাটাতে দাতা সংস্থা আইএমএফ থেকে প্রায় পৌনে পাঁচ বিলিয়ন ডলার ঋণ নিচ্ছে সরকার। এরই মধ্যে মিলেছে ঋণের দুটি কিস্তি। ঋণ দিতে আর্থিকসহ নানা খাত সংস্কারে সুনির্দিষ্ট শর্ত দিয়েছে সংস্থাটি, যার অগ্রগতি নিয়ে হচ্ছে দফায় দফায় বৈঠক।

এবার ঢাকা এসেছেন আইএমএফের তিন আয়কর বিশেষজ্ঞ ডেভিড বার, ডেভিড ওয়েন্টওর্থ ও আরবিন্দ মোদী। প্রথম বৈঠকে রাজস্ব আদায়ে স্বল্প, মধ্য ও দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা তুলে ধরবে এনবিআর। কোন খাত থেকে আয়কর আদায়ের সম্ভাবনা বেশি, তাও জানাবেন কর্মকর্তারা। তুলে ধরবেন চ্যালেঞ্জ। পাশাপাশি কর ছাড়ের হিসাব ও প্রভাব তুলে ধরবে এনবিআর।

কর্মকর্তারা জানান, বৈঠকে কর ছাড় যৌক্তিকীকরণ, আয়কর বিভাগের সক্ষমতা বৃদ্ধি ও প্রযুক্তিগত উন্নয়নের নানা দিক জানতে চাইবে আইএমএফ।

গবেষণা সংস্থা সিপিডির সম্মানীয় ফেলো মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ‘সক্ষমতার দিকগুলোও তারা দেখবেন। যেভাবে এনবিআর হিসাব করছে ছাড়ের, সেটাও তারা দেখবেন। আইনগত ও প্রযুক্তিগত কোন কোন জায়গাগুলোতে গ্যাপস আছে সেগুলোও পর্যালোচনা করবেন আইএমএফের সংশ্লিষ্ট কর্তকর্তারা।’

এনবিআর কর্মকর্তারা জানান, সিরিজ বৈঠকে আয়কর আদায় বাড়ানোর নতুন নতুন খাত সম্পর্কে এনবিআরকে অবহিত করবে আইএমএফ। প্রয়োজনে নীতি ও কারিগরি সহায়তার প্রস্তাব দেবে আইএমএফ। অর্থনীতিবিদরা বলছেন, এসব প্রস্তাব পরিপালনের ওপর নির্ভর করবে ঋণের কিস্তির ধারাবাহিকতা।

মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ‘তারা এখন কিছু পর্যবেক্ষণ দেবেন, পরামর্শ দেবেন। প্রয়োজন হলে তারা টেকনিক্যাল অ্যাসিসটেন্সও দেবেন। কিন্তু এটা করতে না পারলে আমাদের বিভিন্ন যে সব কিস্তি ছাড়, সেটার সাপেক্ষে দেখবেন।’

আগামী ১৪ মার্চ পর্যন্ত চলবে সিরিজ বৈঠক। শেষদিন এনবিআর চেয়ারম্যান ও অর্থসচিবের সঙ্গে বৈঠক করবেন আইএমএফ বিশেষজ্ঞরা।

নিউজটি শেয়ার করুন

এনবিআর–আইএমএফ বৈঠকে যা গুরুত্ব পাচ্ছে

আপডেট সময় : ১১:৫৫:২৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৪ মার্চ ২০২৪

ঢাকায় সোমবার (৪ মার্চ) থেকে শুরু হচ্ছে আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থার (আইএমএফ) তিন আয়কর বিশেষজ্ঞের সাথে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) ৯ দিনের সিরিজ বৈঠক। এতে গুরুত্ব পাচ্ছে আয়কর বিভাগের সক্ষমতা পর্যালোচনাসহ তিন বিষয়। এনবিআর কর্মকর্তারা জানান, আয়কর আদায় বাড়াতে নীতি ও কারিগরি সহায়তার প্রস্তাব দেবে আইএমএফ।

রিজার্ভ সংকট কাটাতে দাতা সংস্থা আইএমএফ থেকে প্রায় পৌনে পাঁচ বিলিয়ন ডলার ঋণ নিচ্ছে সরকার। এরই মধ্যে মিলেছে ঋণের দুটি কিস্তি। ঋণ দিতে আর্থিকসহ নানা খাত সংস্কারে সুনির্দিষ্ট শর্ত দিয়েছে সংস্থাটি, যার অগ্রগতি নিয়ে হচ্ছে দফায় দফায় বৈঠক।

এবার ঢাকা এসেছেন আইএমএফের তিন আয়কর বিশেষজ্ঞ ডেভিড বার, ডেভিড ওয়েন্টওর্থ ও আরবিন্দ মোদী। প্রথম বৈঠকে রাজস্ব আদায়ে স্বল্প, মধ্য ও দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা তুলে ধরবে এনবিআর। কোন খাত থেকে আয়কর আদায়ের সম্ভাবনা বেশি, তাও জানাবেন কর্মকর্তারা। তুলে ধরবেন চ্যালেঞ্জ। পাশাপাশি কর ছাড়ের হিসাব ও প্রভাব তুলে ধরবে এনবিআর।

কর্মকর্তারা জানান, বৈঠকে কর ছাড় যৌক্তিকীকরণ, আয়কর বিভাগের সক্ষমতা বৃদ্ধি ও প্রযুক্তিগত উন্নয়নের নানা দিক জানতে চাইবে আইএমএফ।

গবেষণা সংস্থা সিপিডির সম্মানীয় ফেলো মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ‘সক্ষমতার দিকগুলোও তারা দেখবেন। যেভাবে এনবিআর হিসাব করছে ছাড়ের, সেটাও তারা দেখবেন। আইনগত ও প্রযুক্তিগত কোন কোন জায়গাগুলোতে গ্যাপস আছে সেগুলোও পর্যালোচনা করবেন আইএমএফের সংশ্লিষ্ট কর্তকর্তারা।’

এনবিআর কর্মকর্তারা জানান, সিরিজ বৈঠকে আয়কর আদায় বাড়ানোর নতুন নতুন খাত সম্পর্কে এনবিআরকে অবহিত করবে আইএমএফ। প্রয়োজনে নীতি ও কারিগরি সহায়তার প্রস্তাব দেবে আইএমএফ। অর্থনীতিবিদরা বলছেন, এসব প্রস্তাব পরিপালনের ওপর নির্ভর করবে ঋণের কিস্তির ধারাবাহিকতা।

মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ‘তারা এখন কিছু পর্যবেক্ষণ দেবেন, পরামর্শ দেবেন। প্রয়োজন হলে তারা টেকনিক্যাল অ্যাসিসটেন্সও দেবেন। কিন্তু এটা করতে না পারলে আমাদের বিভিন্ন যে সব কিস্তি ছাড়, সেটার সাপেক্ষে দেখবেন।’

আগামী ১৪ মার্চ পর্যন্ত চলবে সিরিজ বৈঠক। শেষদিন এনবিআর চেয়ারম্যান ও অর্থসচিবের সঙ্গে বৈঠক করবেন আইএমএফ বিশেষজ্ঞরা।