শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১০:১৬ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
রাজশাহীতে কুখ্যাত ভূমি প্রতারক ফারজানাসহ আটক-৩ রাজশাহীতে আন্তর্জাতিক ক্বিরাত সম্মেলন কলমাকান্দায় সচেতনতা তৈরিতে বৈঠক শ্রীমঙ্গলে তিন দিনব্যাপী পিঠা উৎসব শুরু শ্রীমঙ্গলে টপসয়েল কাটার দায়ে ১ জনের ৫০ হাজার টাকা দন্ড রাস্তাঘাটের ব্যাপক উন্নয়নের পাশাপাশি দুর্ঘটনা অনেক বেড়েছে : সংসদে হানিফ সোনার চামচে রাজ-পরীমণির ছেলের মুখে ভাত! বাংলাদেশ সফরে ইংল্যান্ডের দল ঘোষণা চীন বাংলাদেশের বৃহৎ অর্থনৈতিক ও বাণিজ্যিক অংশীদার : বাণিজ্যমন্ত্রী স্মার্ট বাংলাদেশ নির্মাণে সরকার কাজ করছে : স্পিকার হিরো আলমের অভিযোগের কোনও ভিত্তি নেই : ইসি রাশেদা দেশে মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ২০৩১৬ : সংসদে শিক্ষামন্ত্রী রাজউকে অনলাইনে নকশার আবেদন ৩৪ হাজার : সংসদে গৃহায়ণ ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী আইএমএফের ঋণের প্রথম কিস্তি পেল বাংলাদেশ নোবিপ্রবিতে আট দাবিতে তৃতীয় দিনও আন্দোলন অব্যহত

একসঙ্গে জিপিএ-৫ পেলেন বাবা-ছেলে!

একসঙ্গে জিপিএ-৫ পেলেন বাবা-ছেলে!

গৌরীপুর প্রতিনিধি : 
‘ইচ্ছা থাকলে উপায় হয়।’ এই প্রবাদ বাক্যকে শতভাগ সত্য করলেন এখলাছ উদ্দিন নয়ন। ৪৫ বছর বয়সে কারিগরি বোর্ডের অধীনে এসএসসিতে জিপিএ-৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছেন তিনি। শুধু তাই নয়, তার ছেলে মো. রায়হানও জিপিএ-৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছে।

এখলাছ উদ্দিন ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার বাসিন্দা। এছাড়াও তিনি উপজেলার ২ নং গৌরীপুর ইউনিয়ন পরিষদের ৯ নং ওয়ার্ডের সাবেক ইউপি সদস্যও ছিলেন। বাবা-ছেলের একসাথে এসএসসি পাসকে কেন্দ্র করে ওই পরিবার এখন আনন্দের জোয়ারে ভাসছে।

এছাড়াও তাদের এমন সাফল্যের খবর ছড়িয়ে পড়লে সোমবার (২৮ নভেম্বর) বিকাল থেকে বাড়িতে ভিড় করতে থাকেন স্থানীয়রা। সেই সাথে চলছে মিষ্টি বিতরণ।

অনেক বাধা পেরিয়ে এসএসসি পাস করা এখলাছ উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, শিক্ষার কোন বয়স নাই। আমার আগ্রহ ছিল লেখাপড়া করার। সেই আগ্রহ থেকেই এই বছর মগরাইল আদর্শ কারিগরি ইনস্টিটিউট থেকে পরীক্ষা দিয়ে জিপিএ-৫ পেয়েছি।

তিনি আরো জানান, আমার স্ত্রীর দেয়া উৎসাহ থেকেই পড়াশোনায় মনোযোগী হই। আমার ছেলে আমাকে অনেক সাহায্য করেছে। ছেলে রায়হানও গৌরীপুর টেনকিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ থেকে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে জিপিএ-৫ পেয়েছে।

জানতে চাইলে নেত্রকোনা জেলার কেন্দুয়া উপজেলার মগরাইল আদর্শ কারিগরি ইনস্টিটিউটের অধ্যক্ষ আব্দুল কাইয়ুম জানান, এখলাছ উদ্দিন নয়ন এই প্রতিষ্ঠানের নিয়মিত শিক্ষার্থী। তাকে দেখে এলাকার ছাত্রছাত্রীদের পাশাপাশি অন্যরাও উদ্বুদ্ধ হবে। এলাকার গণ্যমান্যরা তাকে ঘিরে আনন্দে বিমোহিত। তিনি প্রমাণ করলেন, শিক্ষার কোনো বয়স নেই।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *