ঢাকা ০২:০৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৭ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी
ব্রেকিং নিউজ ::
সরকার কোটা সংস্কারের পক্ষে বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। একইসঙ্গে শিক্ষার্থীরা যখনই চাইবে তাদের সাথে সরকার বসতে রাজি আছে বলেও জানিয়েছেন তিনি :: গুলির সঙ্গে কোনো সংলাপ হয় না। এর চেয়ে আমার মৃত্যুই ভালো। বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) আইনমন্ত্রী আনিসুল হকের আলোচনার প্রস্তাবের প্রতিক্রিয়ায় ফেসবুকে ব্যক্তিগত আইডিতে দেওয়া এক পোস্টে এ কথা বলেন আসিফ মাহমুদ :: রাজধানীর উত্তরায় বিএনএস সেন্টারের সামনে চলমান কোটা সংস্কারপন্থিদের সঙ্গে পুলিশ-ছাত্রলীগের ত্রিমুখী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সংঘর্ষে পুলিশের গুলিতে নর্দান বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪ শিক্ষার্থী নিহত হয়েছেন :: সাভারে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষে এমআইএসটিতে অধ্যয়নরত এক শিক্ষার্থী নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) দুপুরে সাভার বাজার বাসস্ট্যান্ড এলাকায় এ ঘটনা ঘটে :: কোটা সংস্কারের দাবিতে রাজধানীর মেরুল বাড্ডা, রামপুরা, ও বনশ্রী এলাকায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে আন্দোলনকারী ব্যাপক সংঘর্ষ। এ ঘটনায় শিক্ষার্থী-পুলিশসহ দুই শতাধিক আহত হয়েছেন :: ‘কমপ্লিট শাটডাউন’ এর ফলে ঢাকার সঙ্গে সব জেলার বাস যোগাযোগ বন্ধ :: চট্টগ্রামের নতুন ব্রিজ এলাকায় সড়ক অবরোধ, চট্টগ্রাম-কক্সবাজার রুটে যান চলাচল বন্ধ; ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে আগুন জ্বালিয়ে অবরোধ :: মানিকগঞ্জের খালপাড়ে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে ছাত্রলীগ ও যুবলীগের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, ইট পাটকেল নিক্ষেপ, পাঁচজন আহত :: কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের সাথে আওয়ামী লীগ-পুলিশের সংঘর্ষের কারণে মেট্রোরেলের তিনটি স্টেশন বন্ধ রয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) বিটিএমসির জনসংযোগ কর্মকর্তা নাজমুল ইসলাম ভুঁইয়া নিশ্চিত করেছেন।

উদ্বোধনের অপেক্ষায় কামারখন্দের বন্যা আশ্রয় কেন্দ্র

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৪:৩৮:৪৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২২
  • / ৬০৪ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

সিরাজগঞ্জের কামারখন্দ উপজেলায় উদ্বোধনের অপেক্ষায় নব নির্মিত ৩য় তলা বিশিষ্ট ডি.কে.এস.কে আদর্শ স্কুল ও কারিগরি কলেজ বন্যা আশ্রয় কেন্দ্র। নান্দনিক আধুনিক মানের এই বন্যা আশ্রয় কেন্দ্র নির্মাণে উপজেলার মানুষ বিভিন্ন দূর্যোগে যেমন নিরাপদ আশ্রয় পাবে। তেমনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষার্থীরা সারা বছর ক্লাস করতে পারবে। এতে তাদের শ্রেণীকক্ষ সমস্যরও সমাধান হয়েছে।

জানা যায়, সরকার সারা দেশে বন্যা প্রবণ ও নদী ভাঙ্গন এলাকায় দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের মাধ্যমে বন্যা আশ্রয় কেন্দ্র নির্মাণ করছে। সেই ধারা বাহিকতায় কামারখন্দ উপজেলার ডি.কে.এস.কে আদর্শ স্কুল ও কারিগরি কলেজে একটি ৩ তলা বিশিষ্ট বন্যা আশ্রয় কেন্দ্র নির্মাণ করেছে। এই বন্যা আশ্রয় কেন্দ্রে বিভিন্ন দূর্যোগে উপজেলার প্রায় ২ হাজার মানুষ নিরাপদে আশ্রয় নিতে পারবে। পাশাপাশি এই প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা সারা বছর ভবনে ক্লাস করতে পারবে। যা একসাথে দুই কাজেই বড় ভূমিকা পালন করবে।

ডি.কে.এস.কে আদর্শ স্কুল ও কারিগরি কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ মমিনুল ইসলাম তালুকদার জানান,তার প্রতিষ্ঠানে অনেক শিক্ষার্থী। সেই অনুপাতে শিক্ষার্থীদের ক্লাস রুম সংকট ছিল অনেকদিন ধরে। বর্তমান সরকারের আমলে চলতি ২০২১-২০২২ অর্থ বছরে তার প্রতিষ্ঠানে ৩ তলা বিশিষ্ট একটি বন্যা আশ্রয় কেন্দ্র নির্মাণ করা হয়েছে। এই কেন্দ্রটিতে মানুষ দূর্যোগে আশ্রয় নিতে পারবে। আর বাকী সময় তার প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা ক্লাস করতে পারবে। কেন্দ্রটি পেয়ে তিনি দারুন খুশি।

তিনি উল্লেখ করেন, বন্যা আশ্রয়ন কেন্দ্রটি এলাকার মানুষের বিপদে যেমন আশ্রয় দিবে। তেমনি সারা বছর তার প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা সুন্দর মনোরম পরিবেশে ক্লাস করতে পারবে। এখানে ৯ টি সুবিশাল ক্লাস রুম ও একটি অফিস কক্ষ রয়েছে। এতে তার প্রতিষ্ঠানের শ্রেণীকক্ষ সমস্যর সমাধান হয়েছে। পাশাপাশি তার প্রতিষ্ঠানের সুন্দর্য বৃদ্ধি পেয়েছে। প্রকল্প সংশ্লিষ্ট কর্মকতাদের কঠোর মনিটরিংয়ের কারনে যথাযথভাবে বন্যা আশ্রয় কেন্দ্রটি নির্মাণ হওয়ায় তিনি সন্তোশ প্রকাশ করেন।

কামারখন্দ প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকতা মোঃ শফিউর রহমান জানান,প্রায় ২ কোটি ৯৪ লাখ টাকা ব্যায়ে ৩ তলা বিশিষ্ট বন্যা আশ্রয় কেন্দ্রটি নির্মাণ করা হয়েছে। এখানে নানা দূর্যোগে উপজেলার প্রায় ২ হাজার মানুষ নিরাপদ আশ্রয় নিতে পারবে। পাশাপাশি ডি.কে.এস.কে আদর্শ স্কুল ও কারিগরি কলেজের শিক্ষার্থীরা সারা বছর ক্লাসরুম হিসেবে আশ্রয়ন কেন্দ্রটি ব্যবহার করতে পারবে। প্রকল্পটির কাজ শেষ করে আমরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কাছে হস্তান্তর করেছি। শিঘ্রই এটি আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

উদ্বোধনের অপেক্ষায় কামারখন্দের বন্যা আশ্রয় কেন্দ্র

আপডেট সময় : ০৪:৩৮:৪৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২২

সিরাজগঞ্জের কামারখন্দ উপজেলায় উদ্বোধনের অপেক্ষায় নব নির্মিত ৩য় তলা বিশিষ্ট ডি.কে.এস.কে আদর্শ স্কুল ও কারিগরি কলেজ বন্যা আশ্রয় কেন্দ্র। নান্দনিক আধুনিক মানের এই বন্যা আশ্রয় কেন্দ্র নির্মাণে উপজেলার মানুষ বিভিন্ন দূর্যোগে যেমন নিরাপদ আশ্রয় পাবে। তেমনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষার্থীরা সারা বছর ক্লাস করতে পারবে। এতে তাদের শ্রেণীকক্ষ সমস্যরও সমাধান হয়েছে।

জানা যায়, সরকার সারা দেশে বন্যা প্রবণ ও নদী ভাঙ্গন এলাকায় দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের মাধ্যমে বন্যা আশ্রয় কেন্দ্র নির্মাণ করছে। সেই ধারা বাহিকতায় কামারখন্দ উপজেলার ডি.কে.এস.কে আদর্শ স্কুল ও কারিগরি কলেজে একটি ৩ তলা বিশিষ্ট বন্যা আশ্রয় কেন্দ্র নির্মাণ করেছে। এই বন্যা আশ্রয় কেন্দ্রে বিভিন্ন দূর্যোগে উপজেলার প্রায় ২ হাজার মানুষ নিরাপদে আশ্রয় নিতে পারবে। পাশাপাশি এই প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা সারা বছর ভবনে ক্লাস করতে পারবে। যা একসাথে দুই কাজেই বড় ভূমিকা পালন করবে।

ডি.কে.এস.কে আদর্শ স্কুল ও কারিগরি কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ মমিনুল ইসলাম তালুকদার জানান,তার প্রতিষ্ঠানে অনেক শিক্ষার্থী। সেই অনুপাতে শিক্ষার্থীদের ক্লাস রুম সংকট ছিল অনেকদিন ধরে। বর্তমান সরকারের আমলে চলতি ২০২১-২০২২ অর্থ বছরে তার প্রতিষ্ঠানে ৩ তলা বিশিষ্ট একটি বন্যা আশ্রয় কেন্দ্র নির্মাণ করা হয়েছে। এই কেন্দ্রটিতে মানুষ দূর্যোগে আশ্রয় নিতে পারবে। আর বাকী সময় তার প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা ক্লাস করতে পারবে। কেন্দ্রটি পেয়ে তিনি দারুন খুশি।

তিনি উল্লেখ করেন, বন্যা আশ্রয়ন কেন্দ্রটি এলাকার মানুষের বিপদে যেমন আশ্রয় দিবে। তেমনি সারা বছর তার প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা সুন্দর মনোরম পরিবেশে ক্লাস করতে পারবে। এখানে ৯ টি সুবিশাল ক্লাস রুম ও একটি অফিস কক্ষ রয়েছে। এতে তার প্রতিষ্ঠানের শ্রেণীকক্ষ সমস্যর সমাধান হয়েছে। পাশাপাশি তার প্রতিষ্ঠানের সুন্দর্য বৃদ্ধি পেয়েছে। প্রকল্প সংশ্লিষ্ট কর্মকতাদের কঠোর মনিটরিংয়ের কারনে যথাযথভাবে বন্যা আশ্রয় কেন্দ্রটি নির্মাণ হওয়ায় তিনি সন্তোশ প্রকাশ করেন।

কামারখন্দ প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকতা মোঃ শফিউর রহমান জানান,প্রায় ২ কোটি ৯৪ লাখ টাকা ব্যায়ে ৩ তলা বিশিষ্ট বন্যা আশ্রয় কেন্দ্রটি নির্মাণ করা হয়েছে। এখানে নানা দূর্যোগে উপজেলার প্রায় ২ হাজার মানুষ নিরাপদ আশ্রয় নিতে পারবে। পাশাপাশি ডি.কে.এস.কে আদর্শ স্কুল ও কারিগরি কলেজের শিক্ষার্থীরা সারা বছর ক্লাসরুম হিসেবে আশ্রয়ন কেন্দ্রটি ব্যবহার করতে পারবে। প্রকল্পটির কাজ শেষ করে আমরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কাছে হস্তান্তর করেছি। শিঘ্রই এটি আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হবে।