ঢাকা ১০:৫৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

উজিরপুরের হারতয় ৭০ বছরের বৃদ্ধাকে পিটিয়ে হাত ভেঙ্গে দিল মহিলা মেম্বার অঞ্জনা রানী : আহত ৩

উজিরপুর প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ০৭:৫৭:০৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪
  • / ৪২৬ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
বরিশালের উজিরপুর উপজেলার হারতায় ৭০ বছরের বৃদ্ধাকে পিটিয়ে হাত ভেঙ্গে দিল সংরক্ষিত ১,২ ও ৩ নং ওয়াডের মহিলা মেম্বার অঞ্জনা রানী বাড়ৈ ও তার স্বামী সন্ত্রাসী প্রমানন্দ বাড়ৈ সহ ১০/১২ জন।
ভুক্তভোগী ও অভিযোগ সুত্রে যানাজায় গত ১৭ এপ্রিল  সকাল সাড়ে ৮ টায় রঞ্জন মজুমদার তার অসুস্থ্য কাকা শুকলাল মজুমদারের চিকিৎসার জন্য ১ লক্ষ টাকা নিয়া হারতার উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়ে ভাঙ্গা ব্রীজের কাছে পৌছা মাত্র পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে মহিলা মেম্বার অঞ্জনা রানী বাড়ৈ ও তার স্বামী প্রমানন্দ বাড়ৈ, তার ছেলে রতন বাড়ৈ, মানিক বাড়ৈ, উজ্জ্বল বাড়ৈ,গীতা রানী,বাতাসী বাড়ৈ মিলে প্রতিপক্ষ রঞ্জন মজুমদারের উপর হামলা চালায় তার ডাকচিৎকারে অনিল মজুমদার এগিয়ে আসলে তাকে হামলা চালিয়ে খালের মধ্যে ফেলে দেয়।
৭০ বছরের বৃদ্ধা লক্ষী রাণী মজুমদার এগিয়ে আসলে তাকে পিটিয়ে হাত ভেঙ্গে দেয় মহিলা মেম্বার ও তার স্বামী। আহতদের স্থানীয়রা উদ্ধার করে উজিরপুর হাসপাতালে ভর্তি করে। এ ব্যাপারে উজিরপুর মডেল থানায় রঞ্জন মজুমদার বাদী হয়ে অভিযোগ দায়ের করেন।
মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ জাফর আহম্মেদ জানান উভয় পক্ষের অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। স্থানীয়রা আরো জানান মহিলা মেম্বার অঞ্জনা রানী একজন দস্যু প্রকৃতির লোক। তার ভয়ে কেহ কথা বলতে সাহস পায়না। অভিযুক্ত অঞ্জনা রানী জানান আমরা কোন হামলা চালাইনী কে হাত ভেঙ্গেছে জানিনা।
বাখ//আর

নিউজটি শেয়ার করুন

উজিরপুরের হারতয় ৭০ বছরের বৃদ্ধাকে পিটিয়ে হাত ভেঙ্গে দিল মহিলা মেম্বার অঞ্জনা রানী : আহত ৩

আপডেট সময় : ০৭:৫৭:০৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪
বরিশালের উজিরপুর উপজেলার হারতায় ৭০ বছরের বৃদ্ধাকে পিটিয়ে হাত ভেঙ্গে দিল সংরক্ষিত ১,২ ও ৩ নং ওয়াডের মহিলা মেম্বার অঞ্জনা রানী বাড়ৈ ও তার স্বামী সন্ত্রাসী প্রমানন্দ বাড়ৈ সহ ১০/১২ জন।
ভুক্তভোগী ও অভিযোগ সুত্রে যানাজায় গত ১৭ এপ্রিল  সকাল সাড়ে ৮ টায় রঞ্জন মজুমদার তার অসুস্থ্য কাকা শুকলাল মজুমদারের চিকিৎসার জন্য ১ লক্ষ টাকা নিয়া হারতার উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়ে ভাঙ্গা ব্রীজের কাছে পৌছা মাত্র পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে মহিলা মেম্বার অঞ্জনা রানী বাড়ৈ ও তার স্বামী প্রমানন্দ বাড়ৈ, তার ছেলে রতন বাড়ৈ, মানিক বাড়ৈ, উজ্জ্বল বাড়ৈ,গীতা রানী,বাতাসী বাড়ৈ মিলে প্রতিপক্ষ রঞ্জন মজুমদারের উপর হামলা চালায় তার ডাকচিৎকারে অনিল মজুমদার এগিয়ে আসলে তাকে হামলা চালিয়ে খালের মধ্যে ফেলে দেয়।
৭০ বছরের বৃদ্ধা লক্ষী রাণী মজুমদার এগিয়ে আসলে তাকে পিটিয়ে হাত ভেঙ্গে দেয় মহিলা মেম্বার ও তার স্বামী। আহতদের স্থানীয়রা উদ্ধার করে উজিরপুর হাসপাতালে ভর্তি করে। এ ব্যাপারে উজিরপুর মডেল থানায় রঞ্জন মজুমদার বাদী হয়ে অভিযোগ দায়ের করেন।
মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ জাফর আহম্মেদ জানান উভয় পক্ষের অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। স্থানীয়রা আরো জানান মহিলা মেম্বার অঞ্জনা রানী একজন দস্যু প্রকৃতির লোক। তার ভয়ে কেহ কথা বলতে সাহস পায়না। অভিযুক্ত অঞ্জনা রানী জানান আমরা কোন হামলা চালাইনী কে হাত ভেঙ্গেছে জানিনা।
বাখ//আর