ঢাকা ০৩:১৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

ঈশ্বরদী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডাস্টবিনে মিলল নবজাতকের মরদেহ 

সৌরভ কুমার দেবনাথ
  • আপডেট সময় : ০৬:০৮:৪৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৮ অগাস্ট ২০২৩
  • / ৭১১ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
// ঈশ্বরদী (পাবনা)প্রতিনিধি //
ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ময়লার ডাস্টবিন থেকে একটি অজ্ঞাত শিশুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার দুপুরে উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রধান ফটকের ভেতরে রাখা ডাস্টবিনের মধ্য থেকে মৃত নবজাতকের মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।
জানাযায়, শুক্রবার হাসপাতাল মসজিদে জুম্মার নামাজ আদায় শেষে দুপুর পৌঁনে ২ টার দিকে হাসপাতালের প্রধান ফটকের পাশেই রাখা একটি ডাস্টবিনের মধ্যে নবজাতকটিকে দেখতে পায় একজন বয়স্ক লোক। তারপর সবার হইহুল্লোড়ে এই তথ্য হাসপাতালের একজন এম্বুলেন্স চালক এগিয়ে আসেন। পরে এম্বুলেন্সের চালক বিষয়টি হাসপাতাল সংশ্লিষ্টদের জানালে তারা বিষয়টি ঈশ্বরদী থানা পুলিশকে অবহিত করেন।
প্রত্যক্ষদর্শী আব্দুল মান্নান জানান, জুম্মা নামাজ শেষে আমরা সবাই বেড়িয়ে যাচ্ছিলাম। এমন সময় একজন বৃদ্ধ প্রথমে ডাস্টবিনে শিশুটিকে দেখে আমাদের জানান। তারপর আমরা সবাই দেখি এবং হাসপাতালের লোকজনকে জানাই।
গতরাতে হাসপাতালের ডেলিভারী বিভাগের দ্বায়িত্বে থাকা নার্স ফাতেমা খাতুন জানান, রাত ২ টা ৫ মিনিটে উপজেলার বাঘইলের মোস্তাফিজুর রহমানের স্ত্রী তানিয়া খাতুনের স্বাভাবিক ডেলিভারী করানো হয়। এবং তাদের সম্পূর্ন সুস্থ্য একটি মেয়ে বাচ্চা হয়েছে। আমি সকালে তাদের সুস্থ্য রেখেই দ্বায়িত্ব হস্তান্তর করে এসেছি।
অপর নার্স মায়া খাতুন বলেন, ভোর রাত ৪টা ৫০ মিনিটে নাটোরের লালপুর থানার রাকশা থেকে আসা শাকিলা খাতুনেরও স্বাভাবিক ডেলিভারি করানো হয়েছে। তার ও একটি ছেলে বাচ্চা হয়েছে। বাচ্চা এবং বাচ্চার মাকে সম্পূর্ণ সুস্থ্য রেখেই সকালে আমি আমার দ্বায়িত্ব হস্তান্তর করেছি।
ঈশ্বরদী থানার অফিসার ইনচার্জ অরবিন্দ সরকার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, হাসপাতালের ডাস্টবিনে নবজাতকের  মরদেহ পাওয়ার তথ্য পেয়েছি। সেখানে আমাদের সদস্যদের পাঠানো হয়েছে। তবে তদন্ত শেষে বিস্তারিত বলতে পারব।

নিউজটি শেয়ার করুন

ঈশ্বরদী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডাস্টবিনে মিলল নবজাতকের মরদেহ 

আপডেট সময় : ০৬:০৮:৪৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৮ অগাস্ট ২০২৩
// ঈশ্বরদী (পাবনা)প্রতিনিধি //
ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ময়লার ডাস্টবিন থেকে একটি অজ্ঞাত শিশুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার দুপুরে উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রধান ফটকের ভেতরে রাখা ডাস্টবিনের মধ্য থেকে মৃত নবজাতকের মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।
জানাযায়, শুক্রবার হাসপাতাল মসজিদে জুম্মার নামাজ আদায় শেষে দুপুর পৌঁনে ২ টার দিকে হাসপাতালের প্রধান ফটকের পাশেই রাখা একটি ডাস্টবিনের মধ্যে নবজাতকটিকে দেখতে পায় একজন বয়স্ক লোক। তারপর সবার হইহুল্লোড়ে এই তথ্য হাসপাতালের একজন এম্বুলেন্স চালক এগিয়ে আসেন। পরে এম্বুলেন্সের চালক বিষয়টি হাসপাতাল সংশ্লিষ্টদের জানালে তারা বিষয়টি ঈশ্বরদী থানা পুলিশকে অবহিত করেন।
প্রত্যক্ষদর্শী আব্দুল মান্নান জানান, জুম্মা নামাজ শেষে আমরা সবাই বেড়িয়ে যাচ্ছিলাম। এমন সময় একজন বৃদ্ধ প্রথমে ডাস্টবিনে শিশুটিকে দেখে আমাদের জানান। তারপর আমরা সবাই দেখি এবং হাসপাতালের লোকজনকে জানাই।
গতরাতে হাসপাতালের ডেলিভারী বিভাগের দ্বায়িত্বে থাকা নার্স ফাতেমা খাতুন জানান, রাত ২ টা ৫ মিনিটে উপজেলার বাঘইলের মোস্তাফিজুর রহমানের স্ত্রী তানিয়া খাতুনের স্বাভাবিক ডেলিভারী করানো হয়। এবং তাদের সম্পূর্ন সুস্থ্য একটি মেয়ে বাচ্চা হয়েছে। আমি সকালে তাদের সুস্থ্য রেখেই দ্বায়িত্ব হস্তান্তর করে এসেছি।
অপর নার্স মায়া খাতুন বলেন, ভোর রাত ৪টা ৫০ মিনিটে নাটোরের লালপুর থানার রাকশা থেকে আসা শাকিলা খাতুনেরও স্বাভাবিক ডেলিভারি করানো হয়েছে। তার ও একটি ছেলে বাচ্চা হয়েছে। বাচ্চা এবং বাচ্চার মাকে সম্পূর্ণ সুস্থ্য রেখেই সকালে আমি আমার দ্বায়িত্ব হস্তান্তর করেছি।
ঈশ্বরদী থানার অফিসার ইনচার্জ অরবিন্দ সরকার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, হাসপাতালের ডাস্টবিনে নবজাতকের  মরদেহ পাওয়ার তথ্য পেয়েছি। সেখানে আমাদের সদস্যদের পাঠানো হয়েছে। তবে তদন্ত শেষে বিস্তারিত বলতে পারব।