ঢাকা ০৫:২২ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

ঈশ্বরদীতে পিকআপের ধাক্কায় স্কুল ছাত্র নিহত

ঈশ্বরদী (পাবনা) প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ১১:২৪:২৯ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২০ ডিসেম্বর ২০২৩
  • / ৫১৪ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
পাবনার ঈশ্বরদীতে পিক আপের ধাক্কায় মোটর সাইকেল চালক মনির হোসেন (১৮) নামের এক স্কুল ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন মোটর সাইকেলে থাকা  দুই আরোহীসহ পিকআপের চালক ও হেলপার। মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮ টার দিকে ঈশ্বরদী-বানেশ্বর আঞ্চলিক মহাসড়কের সাঁড়া মাড়োয়ারি স্কুল পাড়ায় হতাহতের এই ঘটনা ঘটে।
নিহত মনির ঈশ্বরদী শহরের পিয়ারপুর এলাকার ফজল আলীর ছেলে। আহতরা হলেন মোটর সাইকেল আরোহী আলিফ (১৮), তাজিম (১৮)। তারা একই এলাকার বাসিন্দা ও বন্ধু। আহত পিক আপ চালক ও হেলপারের পরিচয় তাৎক্ষনিকভাবে জানা যায়নি।
ঘটনায় আহত হয়ে ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আলিফ জানান, নিহত মনির ও আহত তাজিম তারা তিন বন্ধু। মনির লালপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের এবং তারা দুজন ঈশ্বরদী ভোকেশনাল ইনস্টিটিউটের ১০ম শ্রেণির ছাত্র। ঘটনার সময় তারা তিন বন্ধু মোটর সাইকেল যোগে ঈশ্বরদীতে আসতে ছিলো। ঘটনাস্থলে আসলে তাদের সামনে থাকা পিক আপের সঙ্গে বিপরীত দিক ঈশ্বরদী থেকে যাওয়া ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ বাঁধে। এতে পিক আপটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে তাদের মোটর সাইকেলে ধাক্কা দেয়। তাতে তারা এই দূর্ঘটনার শিকার হয়েছে।
প্রত্যক্ষর্দশী মুদি দোকানদার আজাদ হোসেন জানান, পিক আপ ও ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষের ফলে পিক আপটি ঘুরে যায়। এই সময় পিক আপের পেছনে থাকা মোটর সাইকেলটিকে ধাক্কা দেয়। মোটর সাইকেলের চালকসহ দুই আরোহি রাস্তার উপর ছিটকে পড়ে। আর পিক আপটি একজনকে চাপা দিয়ে ছেঁচড়ে নিয়ে যায়। স্থানীয় পল্লী চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে। ফায়ার সার্ভিসে খবর দেওয়া হয়। তারা এসে আহত দুইজনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান।
ঈশ্বরদী ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের ওয়ার হাউজ ইনচার্জ অপু মন্ডল জানান, স্থানীয়দের নিকট থেকে দুর্ঘটনার খবর পেয়ে আহত দুইজনকে উদ্ধার করে ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। পিক আপের চাকার নিচে আটকে ঘটনাস্থলেই একজনের মৃত্যু হয়।
ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক মোঃ শাকিব হোসেন জানান, ফায়ার সার্ভিস সদস্যরা আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসেন। আহতদের মধ্যে তাজিমের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। আহত আলিমকে ভর্তি রাখা হয়েছে।
ঈশ্বরদী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ রফিকুল ইসলাম জানান, নিহত মনিরের লাশ উদ্ধার করে থানা আনা হয়েছে। দুর্ঘটনার শিকার পিক আপ ও মোটর সাইকেলটি পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। নিহতের স্বজনদের সঙ্গে আলাপ করে পরবর্তি পদক্ষেপ নেওয়া হবে। আহত একজন ঈশ্বরদী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। আহত অপরজন রামেক প্রেরণ করা হয়েছে। পিক আপ চালক ও হেলপার পলাতক।
বাখ//আর

নিউজটি শেয়ার করুন

ঈশ্বরদীতে পিকআপের ধাক্কায় স্কুল ছাত্র নিহত

আপডেট সময় : ১১:২৪:২৯ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২০ ডিসেম্বর ২০২৩
পাবনার ঈশ্বরদীতে পিক আপের ধাক্কায় মোটর সাইকেল চালক মনির হোসেন (১৮) নামের এক স্কুল ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন মোটর সাইকেলে থাকা  দুই আরোহীসহ পিকআপের চালক ও হেলপার। মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮ টার দিকে ঈশ্বরদী-বানেশ্বর আঞ্চলিক মহাসড়কের সাঁড়া মাড়োয়ারি স্কুল পাড়ায় হতাহতের এই ঘটনা ঘটে।
নিহত মনির ঈশ্বরদী শহরের পিয়ারপুর এলাকার ফজল আলীর ছেলে। আহতরা হলেন মোটর সাইকেল আরোহী আলিফ (১৮), তাজিম (১৮)। তারা একই এলাকার বাসিন্দা ও বন্ধু। আহত পিক আপ চালক ও হেলপারের পরিচয় তাৎক্ষনিকভাবে জানা যায়নি।
ঘটনায় আহত হয়ে ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আলিফ জানান, নিহত মনির ও আহত তাজিম তারা তিন বন্ধু। মনির লালপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের এবং তারা দুজন ঈশ্বরদী ভোকেশনাল ইনস্টিটিউটের ১০ম শ্রেণির ছাত্র। ঘটনার সময় তারা তিন বন্ধু মোটর সাইকেল যোগে ঈশ্বরদীতে আসতে ছিলো। ঘটনাস্থলে আসলে তাদের সামনে থাকা পিক আপের সঙ্গে বিপরীত দিক ঈশ্বরদী থেকে যাওয়া ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ বাঁধে। এতে পিক আপটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে তাদের মোটর সাইকেলে ধাক্কা দেয়। তাতে তারা এই দূর্ঘটনার শিকার হয়েছে।
প্রত্যক্ষর্দশী মুদি দোকানদার আজাদ হোসেন জানান, পিক আপ ও ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষের ফলে পিক আপটি ঘুরে যায়। এই সময় পিক আপের পেছনে থাকা মোটর সাইকেলটিকে ধাক্কা দেয়। মোটর সাইকেলের চালকসহ দুই আরোহি রাস্তার উপর ছিটকে পড়ে। আর পিক আপটি একজনকে চাপা দিয়ে ছেঁচড়ে নিয়ে যায়। স্থানীয় পল্লী চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে। ফায়ার সার্ভিসে খবর দেওয়া হয়। তারা এসে আহত দুইজনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান।
ঈশ্বরদী ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের ওয়ার হাউজ ইনচার্জ অপু মন্ডল জানান, স্থানীয়দের নিকট থেকে দুর্ঘটনার খবর পেয়ে আহত দুইজনকে উদ্ধার করে ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। পিক আপের চাকার নিচে আটকে ঘটনাস্থলেই একজনের মৃত্যু হয়।
ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক মোঃ শাকিব হোসেন জানান, ফায়ার সার্ভিস সদস্যরা আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসেন। আহতদের মধ্যে তাজিমের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। আহত আলিমকে ভর্তি রাখা হয়েছে।
ঈশ্বরদী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ রফিকুল ইসলাম জানান, নিহত মনিরের লাশ উদ্ধার করে থানা আনা হয়েছে। দুর্ঘটনার শিকার পিক আপ ও মোটর সাইকেলটি পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। নিহতের স্বজনদের সঙ্গে আলাপ করে পরবর্তি পদক্ষেপ নেওয়া হবে। আহত একজন ঈশ্বরদী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। আহত অপরজন রামেক প্রেরণ করা হয়েছে। পিক আপ চালক ও হেলপার পলাতক।
বাখ//আর