ঢাকা ০৭:৫৩ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

ঈদের দ্বিতীয় দিনে কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকত পর্যটকদের পদচারণায় মূখর

এ এম মিজানুর রহমান বুলেট
  • আপডেট সময় : ০১:৪৫:১০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪
  • / ৪৫৪ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
পটুয়াখালীর কুয়াকাটার লেম্বুর বন সমুদ্র সৈকত থেকে চর গঙ্গামতি সমু্দ্র সৈকত। ঈদের দ্বিতীয় দিনে দেশী বিদেশী হাজার হাজার পর্যটকদের পদচারণায় মুখরিত হয়ে উঠেছে কুয়াকাটার দীর্ঘ ১৮ কিলোমিটার সমুদ্র সৈকত। আগত পর্যটকরা সৈকতের বুকে আছড়ে পড়া ছোট-বড় ঢেউয়ে সাঁতার কেটে মিতালীতে মেতেছেন। অনেকে বন্ধুদের সঙ্গে হইহুল্লোড়ে মেতেছেন। অনেকে আবার ঘোড়া ওটার বাইক কিংবা মোটর বাইকে চরে সৈকতের বিভিন্ন পর্যটনের পর ঘুরে দেখছেন। অনেকে আবার সৈকতের বেঞ্চিতে বসে প্রাকৃতিক সৌন্দর্য ভোগ করছেন। আগত পর্যটকদের ভিড়ে বিক্রি বেড়েছে সকল পর্যটন স্পটগুলোতে। বুকিং রয়েছে কুয়াকাটার অধিকাংশ হোটেল। পর্যটকদের নিরাপত্তায় ট্যুরিষ্ট পুলিশ, থানা পুলিশ, নৌ-পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যদের তৎপরতা লক্ষ করা গেছে।
বেঞ্চব্যবসায়ী নাসির খলিফা জানান আজকে কুয়াকাটায় পর্যটকদের ঢল ননেছে। আগামীকাল  লক্ষাধিক পর্যটককের আগমন ঘটবে।
 ঢাকা  থেকে আসা পর্যটক মোঃ মারুফ জানান, আজকে পর্যটক আসতে শুরু করেছে। আমরা বুকিং করে না এসে বিপদে পরে গেছি।হোটেলে রুম পেতে অনেক কষ্ট হয়েছে।
 হোটেল মোটেল অউনার এসোসিয়েশন সাধারণ সম্পাদক মোঃ মোতালেব শরীফ জানান, প্রায় হোটেলের আশি পার্সেন্ট রুম বুক হয়ে গেছ। এখনে পর্যটকরা ফোনে রুম বুকিং দিচ্ছে।
 কুয়াকাটা টুরিস্ট পুলিশ জোনের সহকারী পুলিশ সুপার আবুল কালাম আজাদ জানান,আমাদের পুলিশ পোসাখে সাদাপোসাকে সার্বক্ষণিক ডিওটিতে আছে।
পৌর মেয়র আনোয়ার হাওলাদার বলেন, পর্যটকদের সেবায় আমরা  পৌরবাসভা প্রস্তুত আছি।পদ্মাসেতু উদ্বোধনের পর থেকে কুয়াকাটায় পর্যটক বেড়েছে। ভা্ঙ্গা থেকে কুয়াকাটা মহাসড়ক  ফোরলেন বাস্তবায়িত হলে আরো পর্যটক বাড়বে। আজকে পর্যটকে মুখরিত কুয়াকাটা।
 কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ রবিউল ইসলাম বলেন, আজকে কুয়াকাটা পর্যটকে মুখর কুয়াকাটা  । কাল-পরশু কুয়াকাটায় পর্যটকের ঢল নামবে। পর্যটকদের নিরাপত্তায় উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে কলাপাড়া থানা,মহিপুর থানা,কুয়াকাটা টুরিস্ট পুলিশ, নৌ-পুলিশ, ফায়ারসার্ভিস, মেডিকেল টিম প্রস্তুত আছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ঈদের দ্বিতীয় দিনে কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকত পর্যটকদের পদচারণায় মূখর

আপডেট সময় : ০১:৪৫:১০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪
পটুয়াখালীর কুয়াকাটার লেম্বুর বন সমুদ্র সৈকত থেকে চর গঙ্গামতি সমু্দ্র সৈকত। ঈদের দ্বিতীয় দিনে দেশী বিদেশী হাজার হাজার পর্যটকদের পদচারণায় মুখরিত হয়ে উঠেছে কুয়াকাটার দীর্ঘ ১৮ কিলোমিটার সমুদ্র সৈকত। আগত পর্যটকরা সৈকতের বুকে আছড়ে পড়া ছোট-বড় ঢেউয়ে সাঁতার কেটে মিতালীতে মেতেছেন। অনেকে বন্ধুদের সঙ্গে হইহুল্লোড়ে মেতেছেন। অনেকে আবার ঘোড়া ওটার বাইক কিংবা মোটর বাইকে চরে সৈকতের বিভিন্ন পর্যটনের পর ঘুরে দেখছেন। অনেকে আবার সৈকতের বেঞ্চিতে বসে প্রাকৃতিক সৌন্দর্য ভোগ করছেন। আগত পর্যটকদের ভিড়ে বিক্রি বেড়েছে সকল পর্যটন স্পটগুলোতে। বুকিং রয়েছে কুয়াকাটার অধিকাংশ হোটেল। পর্যটকদের নিরাপত্তায় ট্যুরিষ্ট পুলিশ, থানা পুলিশ, নৌ-পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যদের তৎপরতা লক্ষ করা গেছে।
বেঞ্চব্যবসায়ী নাসির খলিফা জানান আজকে কুয়াকাটায় পর্যটকদের ঢল ননেছে। আগামীকাল  লক্ষাধিক পর্যটককের আগমন ঘটবে।
 ঢাকা  থেকে আসা পর্যটক মোঃ মারুফ জানান, আজকে পর্যটক আসতে শুরু করেছে। আমরা বুকিং করে না এসে বিপদে পরে গেছি।হোটেলে রুম পেতে অনেক কষ্ট হয়েছে।
 হোটেল মোটেল অউনার এসোসিয়েশন সাধারণ সম্পাদক মোঃ মোতালেব শরীফ জানান, প্রায় হোটেলের আশি পার্সেন্ট রুম বুক হয়ে গেছ। এখনে পর্যটকরা ফোনে রুম বুকিং দিচ্ছে।
 কুয়াকাটা টুরিস্ট পুলিশ জোনের সহকারী পুলিশ সুপার আবুল কালাম আজাদ জানান,আমাদের পুলিশ পোসাখে সাদাপোসাকে সার্বক্ষণিক ডিওটিতে আছে।
পৌর মেয়র আনোয়ার হাওলাদার বলেন, পর্যটকদের সেবায় আমরা  পৌরবাসভা প্রস্তুত আছি।পদ্মাসেতু উদ্বোধনের পর থেকে কুয়াকাটায় পর্যটক বেড়েছে। ভা্ঙ্গা থেকে কুয়াকাটা মহাসড়ক  ফোরলেন বাস্তবায়িত হলে আরো পর্যটক বাড়বে। আজকে পর্যটকে মুখরিত কুয়াকাটা।
 কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ রবিউল ইসলাম বলেন, আজকে কুয়াকাটা পর্যটকে মুখর কুয়াকাটা  । কাল-পরশু কুয়াকাটায় পর্যটকের ঢল নামবে। পর্যটকদের নিরাপত্তায় উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে কলাপাড়া থানা,মহিপুর থানা,কুয়াকাটা টুরিস্ট পুলিশ, নৌ-পুলিশ, ফায়ারসার্ভিস, মেডিকেল টিম প্রস্তুত আছে।