ঢাকা ১০:৪৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

ইসরায়েলে সর্বোচ্চ পর্যায়ের ব্যবস্থা নেওয়ার হুমকি ইরানের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৪:৩৫:০৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪
  • / ৪২২ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

হামলা-পাল্টা হামলা ঘিরে তৈরি হওয়া চরম উত্তেজনার মাঝে আবারও ইসরায়েলের বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ পর্যায়ের ব্যবস্থা নেওয়ার হুমকি দিয়েছে ইরান। শুক্রবার মার্কিন সংবাদমাধ্যম এনবিসি নিউজকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির হোসেইন আমির আব্দুল্লা হিয়ান বলেছেন, ইসরায়েল তেহরানের স্বার্থবিরোধী কাজ করলে ইরান তাৎক্ষণিকভাবে সর্বোচ্চ পর্যায়ের জবাব দেবে।

একই সঙ্গে শুক্রবার ইরানের ইসফাহান শহরে হওয়া হামলার ঘটনায় তদন্ত চলছে বলেও জানিয়েছেন তিনি। আমির হোসেইন আমিরআব্দুল্লাহিয়ান বলেছেন, শুক্রবারের হামলার ঘটনায় এখন পর্যন্ত ইসরায়েলের সংশ্লিষ্টতার প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

এনবিসি নিউজকে তিনি বলেছেন, ড্রোনগুলো ইরানের ভেতর থেকে ছোড়া হয়েছে এবং কয়েকশ মিটার উড়ে যাওয়ার পর সেগুলো ভূপাতিত হয়েছে। ইরানের এই পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, এগুলো ড্রোন নয়; তবে খেলনার মতো। যা দিয়ে আমাদের বাচ্চারা খেলাধুলা করে। আর এসবের সাথে ইসরায়েলের সংশ্লিষ্টতার কোনও প্রমাণ এখনও আমরা পাইনি। ইরান বিষয়টি তদন্ত করছে। তেহরানের তথ্য অনুযায়ী, গণমাধ্যমে আসা তথ্য সঠিক নয়।

ইরানের সরকারি কর্মকর্তা ও গণমাধ্যম বলছে, শুক্রবার ভোরের দিকে ইরানের মধ্যাঞ্চলীয় ইসফাহান শহরে তিনটি ড্রোন আঘাত হেনেছে। এর ফলে সেখানে ছোট বিস্ফোরণ ঘটেছে। তারা এই ঘটনাকে ইসরায়েলের পরিবর্তে ‌‌‘‘অনুপ্রবেশকারীদের’’ আক্রমণ হিসাবে উল্লেখ করেছেন। এর মাধ্যমে প্রতিশোধ নেওয়ার প্রয়োজনীয়তা এড়িয়ে গেছেন।

ইসরায়েল যদি প্রতিশোধ নেয় এবং ইরানের স্বার্থের বিরুদ্ধে কাজ করে, তাহলে তেহরানের পরবর্তী প্রতিক্রিয়া কঠোর হবে বলে সতর্ক করে দিয়েছেন আমিরআব্দুল্লাহিয়ান। তিনি বলেন, ‘‘যদি ইসরায়েল আরেকবার দুঃসাহসিকতা দেখায় এবং ইরানের স্বার্থের বিরুদ্ধে কাজ করতে চায়, তাহলে আমাদের প্রতিক্রিয়া তাৎক্ষণিক এবং সর্বোচ্চ স্তরের হবে।’’

শুক্রবার গভীর রাতে ইরানের মধ্যাঞ্চলের ইসফাহান শহরের কাছের একটি বিমান ঘাঁটি লক্ষ্য করে ড্রোন হামলা হয়েছে। তবে কৌশলগত কোনও গুরুত্বপূর্ণ স্থানে আঘাত হানতে ব্যর্থ হয়েছে এসব ড্রোন। এছাড়া এই হামলায় বড় ধরনের ক্ষয়ক্ষতিও হয়নি।

ইসরায়েল এই হামলার বিষয়ে এখন পর্যন্ত কোনও মন্তব্য করেনি। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র কোনও আক্রমণাত্মক অভিযান চালায়নি। যদিও হোয়াইট হাউস বলেছে, এই বিষয়ে তাদের কোনও মন্তব্য নেই।

নিউজটি শেয়ার করুন

ইসরায়েলে সর্বোচ্চ পর্যায়ের ব্যবস্থা নেওয়ার হুমকি ইরানের

আপডেট সময় : ০৪:৩৫:০৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪

হামলা-পাল্টা হামলা ঘিরে তৈরি হওয়া চরম উত্তেজনার মাঝে আবারও ইসরায়েলের বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ পর্যায়ের ব্যবস্থা নেওয়ার হুমকি দিয়েছে ইরান। শুক্রবার মার্কিন সংবাদমাধ্যম এনবিসি নিউজকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির হোসেইন আমির আব্দুল্লা হিয়ান বলেছেন, ইসরায়েল তেহরানের স্বার্থবিরোধী কাজ করলে ইরান তাৎক্ষণিকভাবে সর্বোচ্চ পর্যায়ের জবাব দেবে।

একই সঙ্গে শুক্রবার ইরানের ইসফাহান শহরে হওয়া হামলার ঘটনায় তদন্ত চলছে বলেও জানিয়েছেন তিনি। আমির হোসেইন আমিরআব্দুল্লাহিয়ান বলেছেন, শুক্রবারের হামলার ঘটনায় এখন পর্যন্ত ইসরায়েলের সংশ্লিষ্টতার প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

এনবিসি নিউজকে তিনি বলেছেন, ড্রোনগুলো ইরানের ভেতর থেকে ছোড়া হয়েছে এবং কয়েকশ মিটার উড়ে যাওয়ার পর সেগুলো ভূপাতিত হয়েছে। ইরানের এই পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, এগুলো ড্রোন নয়; তবে খেলনার মতো। যা দিয়ে আমাদের বাচ্চারা খেলাধুলা করে। আর এসবের সাথে ইসরায়েলের সংশ্লিষ্টতার কোনও প্রমাণ এখনও আমরা পাইনি। ইরান বিষয়টি তদন্ত করছে। তেহরানের তথ্য অনুযায়ী, গণমাধ্যমে আসা তথ্য সঠিক নয়।

ইরানের সরকারি কর্মকর্তা ও গণমাধ্যম বলছে, শুক্রবার ভোরের দিকে ইরানের মধ্যাঞ্চলীয় ইসফাহান শহরে তিনটি ড্রোন আঘাত হেনেছে। এর ফলে সেখানে ছোট বিস্ফোরণ ঘটেছে। তারা এই ঘটনাকে ইসরায়েলের পরিবর্তে ‌‌‘‘অনুপ্রবেশকারীদের’’ আক্রমণ হিসাবে উল্লেখ করেছেন। এর মাধ্যমে প্রতিশোধ নেওয়ার প্রয়োজনীয়তা এড়িয়ে গেছেন।

ইসরায়েল যদি প্রতিশোধ নেয় এবং ইরানের স্বার্থের বিরুদ্ধে কাজ করে, তাহলে তেহরানের পরবর্তী প্রতিক্রিয়া কঠোর হবে বলে সতর্ক করে দিয়েছেন আমিরআব্দুল্লাহিয়ান। তিনি বলেন, ‘‘যদি ইসরায়েল আরেকবার দুঃসাহসিকতা দেখায় এবং ইরানের স্বার্থের বিরুদ্ধে কাজ করতে চায়, তাহলে আমাদের প্রতিক্রিয়া তাৎক্ষণিক এবং সর্বোচ্চ স্তরের হবে।’’

শুক্রবার গভীর রাতে ইরানের মধ্যাঞ্চলের ইসফাহান শহরের কাছের একটি বিমান ঘাঁটি লক্ষ্য করে ড্রোন হামলা হয়েছে। তবে কৌশলগত কোনও গুরুত্বপূর্ণ স্থানে আঘাত হানতে ব্যর্থ হয়েছে এসব ড্রোন। এছাড়া এই হামলায় বড় ধরনের ক্ষয়ক্ষতিও হয়নি।

ইসরায়েল এই হামলার বিষয়ে এখন পর্যন্ত কোনও মন্তব্য করেনি। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র কোনও আক্রমণাত্মক অভিযান চালায়নি। যদিও হোয়াইট হাউস বলেছে, এই বিষয়ে তাদের কোনও মন্তব্য নেই।